মুখের আলসার সারবে ঘরোয়া প্রতিকারেই

ঢাকা, সোমবার   ০১ জুন ২০২০,   জ্যৈষ্ঠ ১৮ ১৪২৭,   ০৮ শাওয়াল ১৪৪১

Beximco LPG Gas

মুখের আলসার সারবে ঘরোয়া প্রতিকারেই

স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১২:১৪ ১৮ মে ২০২০  

ছবি: মুখে আলসার

ছবি: মুখে আলসার

মুখের ভেতরে, জিহ্বা, গলার ভেতরে বা ঠোঁটের অভ্যন্তরে অনেক সময় ছোট সাদা ঘা এর মতো হয়। যা খুবই বেদনাদায়ক। এটি মুখের আলসার বা ক্যানকার নামেও পরিচিত। বিভিন্ন কারণে এটি হয়ে থাকে। 

ব্যাকটেরিয়া, ভাইরাল বা ছত্রাকের সংক্রমণ, টুথপেস্ট এবং মুখের ছোটখাটো আঘাত, ভিটামিন বি ১২, জিংক, আয়রন বা ভিটামিনের ঘাটতি হলে এটি দেখা দিতে পারে। 

মুখে আলসার দেখা দিলে খাবার খাওয়া বা পানি পান করাও অনেক কষ্টকর হয়ে পড়ে। কিছু ঘরোয়া প্রতিকার এ ব্যথা কমাতে এবং দ্রুত আলসার নিরাময় করতে সহায়তা করে। জেনে রাখুন সেগুলো- 

বরফ  

একটি টিস্যুতে এক টুকরা বরফ নিয়ে নিন। এবার আক্রান্ত স্থানে হালকা হাতে ঘষুন। এটি দ্রুত ব্যথা ও জ্বালা পোড়া কমাতে সহায়তা করবে। 

লবণ পানি 

এক গ্লাস পানিতে এক চামচ লবণ মিশিয়ে নিন। এটি দিয়ে কুলকুচি করুন। লবণের অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল এবং অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল বৈশিষ্ট্য মুখের আলসারের ব্যথা এবং প্রদাহ কমাতে সহায়তা করবে। সেই সঙ্গে লবণ দ্রুত ঘা শুকাতে সহায়তা করে।  

মধু 

মধু অ্যান্টিব্যাকটিরিয়াল এবং অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল বৈশিষ্ট্যযুক্ত। ২০১৪ সালের এক সমীক্ষা অনুযায়ী, মধু আলসারের ব্যথা এবং প্রদাহ কমাতে সব থেকে বেশি কার্যকরী। দিনে তিন থেকে চারবার আক্রান্ত স্থানে মধু লাগান। 

বেকিং সোডা  

বেকিং সোডায় রয়েছে প্রাকৃতিক ক্ষার এবং অ্যাসিড। যা মুখের অভ্যন্তরে ব্যাকটেরিয়া মারতে সহায়তা করে। এটি আলসারকে দ্রুত নিরাময় করতেও সহায়তা করে। এক কাপ গরম পানিতে এক চা চামচ বেকিং সোডা মিশিয়ে আক্রান্ত স্থান ধুয়ে নিন।  

অ্যালোভেরা  

অ্যালোভেরায় প্রদাহবিরোধক বৈশিষ্ট্য রয়েছে। যা মুখের আলসার দ্রুত নিরাময়ে সহায়তা করতে পারে। একটি গবেষণা অনুসারে, অ্যালোভেরা জেল আলসার দ্রুত সারাতে সহায়তা করে। অ্যালোভেরার পাতা থেকে অ্যালো জেলটি বের করে নিন। আক্রান্ত স্থানে সরাসরি এটি লাগান। 

নারকেল তেল 

নারকেল তেলে লৌরিক অ্যাসিড রয়েছে। যা ব্যথা এবং ফোলাভাব কমাতে সহায়তা করে। সামান্য নারকেল তেল তুলায় জড়িয়ে আক্রান্ত স্থানে লাগিয়ে রাখুন। 

রসুন 

অ্যালিসিনের উপস্থিতির কারণে রসুন মুখের আলসার কমাতে সহায়তা করতে পারে। এছাড়াও রসুনে রয়েছে অ্যান্টি-ইনফ্ল্যামেটরি, অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল এবং অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল বৈশিষ্ট্য। রসুনের কোয়া কেটে আক্রান্ত স্থানে এক থেকে দুই মিনিট খুব আলতো করে ঘষুন। এরপর পানি দিয়ে ধুয়ে নিন।  

সূত্র: বোল্ডস্কাই

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএমএস