মুক্তামনির অপারেশন সম্পন্ন

ঢাকা, রোববার   ২৬ মে ২০১৯,   জ্যৈষ্ঠ ১২ ১৪২৬,   ২০ রমজান ১৪৪০

Best Electronics

মুক্তামনির অপারেশন সম্পন্ন

 প্রকাশিত: ১৩:৩৫ ৫ সেপ্টেম্বর ২০১৭   আপডেট: ১০:৩৩ ৬ সেপ্টেম্বর ২০১৭

মুক্তামনির আক্রান্ত হাতের সব টিউমার অপসারণ করা হয়েছে। অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে টিউমারগুলো অপসারণ করা হয়। মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৯টায় শুরু হয়ে দুপুর সাড়ে ১২টায় অস্ত্রোপচার শেষ হয়েছে। পরে তাকে আইসিউতে (নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্র) স্থানান্তর করা হয়।

বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিটের সমন্বয়ক ডা. সামন্ত লাল সেন সাংবাদিকদের বলেন, ‘মুক্তামনির হাতের সব টিউমার রিমুভ করা হয়েছে। আর কোনও টিউমার নেই। সে ভালো আছে। তবে তাকে আমরা এখনও একেবারে ঝুঁকিমুক্ত বলছি না।’

তিনি বলেন, ‘আগামী ২৪ ঘণ্টা সে আমাদের নিবিড় পর‌্যবেক্ষণে থাকবে।’

শরীরের আক্রান্ত অন্যান্য অংশের অপারেশন কবে হবে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমরা আরও এক সপ্তাহ থেকে ১০ দিন ওয়েট করবো। এ সময়টার মধ্যে অপারেশনের জন্য তাকে ফিট করতে হবে। মুক্তামনির আরও দুই কিংবা তিনটি অপারেশন লাগবে।’

আজকের অপারেশনে সাত জনের একটি চিকিৎসক দল অংশ নেন বলে জানান তিনি।

তিনি জানান, বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিটের চিকিৎসকদের সঙ্গে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল এবং প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিটের অ্যানেসথিসিয়া বিভাগের চিকিৎসকরা আজকের অপারেশনে অংশ নেন।

প্রসঙ্গত, প্রথমে মুক্তামনির এই রোগটিকে বিরল রোগ বলা হলেও প্রথম বায়োপসি করার পর জানা যায়, তার রক্তনালীতে টিউমার (হেমানজিওমা) হয়েছে। পরে ১২ আগস্ট সকাল ৯টার দিকে মুক্তামনির অস্ত্রোপচার শুরু করেন ত্রিশ জনের বেশি একটি চিকিৎসক দল। অস্ত্রোপচার করে তার হাত থেকে তিন কেজি মাংসপিণ্ড ফেলে দেওয়া হয়। এর পরে ২৯ আগস্ট প্রচণ্ড জ্বরের কারণে মুক্তামনির অস্ত্রোপচার পুরোপুরি সম্পন্ন করতে পারেননি চিকিৎসকরা। প্রায় ২০ শতাংশ অস্ত্রোপচারের পর অপারেশন শেষ না করেই অস্ত্রোপচার কক্ষ থেকে তাকে বের করতে বাধ্য হন চিকিৎসকরা, নেওয়া হয় আইসিইউতে (নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্র)। তবে খুব বেশিক্ষণ তাকে সেখানে থাকতে হয়নি। দুই ঘণ্টা পর তাকে কেবিনে স্থানান্তর করা হয়। পরে চিকিৎসকরা বলেছিলেন, ঈদের ছুটির পরই অস্ত্রোপচার করবেন তারা। তারই ধারাবাহিকতায় আজ তৃতীয় অস্ত্রোপচার সম্পন্ন হলো।

ডেইলি বাংলাদেশ/আর কে

Best Electronics