মুকসুদপুরে একই পরিবারের ৬ জনসহ নতুন শনাক্ত ৮

ঢাকা, সোমবার   ০৬ জুলাই ২০২০,   আষাঢ় ২২ ১৪২৭,   ১৪ জ্বিলকদ ১৪৪১

Beximco LPG Gas

মুকসুদপুরে একই পরিবারের ৬ জনসহ নতুন শনাক্ত ৮

মুকসুদপুর ( গোপালগঞ্জ) প্রতিনিধি   ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২১:৫৭ ২৯ মে ২০২০  

মুকসুদপুরে একই পরিবারের ৬ জনসহ নতুন শনাক্ত ৮

মুকসুদপুরে একই পরিবারের ৬ জনসহ নতুন শনাক্ত ৮

গোপালগঞ্জের মুকসুদপুরে একই পরিবারের ৬ জনসহ নতুন করে করোনা শনাক্ত হয়েছে ৮ জন। এ নিয়ে মুকসুদপুরে মোট ৪২ জনের করোনাভাইরাস এর অস্তিত্ব মিলেছে। 

আক্রান্তদের মধ্যে ২০ জন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। হোম আইসোলেশনে আছেন ২২ জন। এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন মুকসুদপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডা. রিজভী আহম্মদ। 

জানা যায়, ২৬ মে মঙ্গলবার মুকসুদপুর সদর টেংরাখোলা বাজারের এক ব্যবসায়ীর পরিবারের ১০ জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়। শুক্রবার ওই পরিবারের ৬ জনসহ মোট ৮ জনের নমুনায় করোনার অস্তিত্ব পাওয়া যায়। 

উল্লেখ্য গত ২৪ মে মুকসুদপুর উপজেলা সদর বাজারের প্রতিষ্ঠিত বস্ত্র ব্যবসায়ীর ছেলে ইলান জ্বর, কাশি নিয়ে মুকসুদপুর হাসপাতালে যান। চিকিৎসক তার নমুনা সংগ্রহ করে রাখেন এবং হোমকোয়ারেন্টাইনে থাকতে পরামর্শ দেন। তিনি চিকিৎসকের পরামর্শ না মেনে মুকসুদপুর উপজেলার বিভিন্নস্থানে বন্ধুদের সঙ্গে সময় কাটিয়েছেন। ইলান ঈদের দিন সকাল থেকে মুকসুদপুর উপজেলার কেজি স্কুল মাঠে বন্ধুসহ পরিচিতজনদের নিয়ে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করেছেন। অনেকের সঙ্গেই ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করেছেন। বুধবার ইলানের করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়। তাকে বুধবার রাতে আইসোলেশনে ওয়ার্ডে ভর্তি করে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। আক্রান্ত ইলানের বাড়ি লকডাউন করা হয়েছে। পরিবারের সদস্যদের রাখা হয়েছে হোমকোয়ারেন্টাইনে।

মুকসুদপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মাহাবুবুর রহমান জানান, বুধবার যার করোনা সনাক্ত হয়েছে, তিনি অনেককেই ঝুঁকির মধ্যে ফেলেছেন। এখন তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করে তার সংস্পর্শে আশাদের হোমকোয়ারেন্টিন নিশ্চিত ও উপসর্গ দেখা দেয়াদের নমুনা সংগ্রহ করে ফরিদপুর পাঠানো হচ্ছে। এছাড়া তাদের বাড়ি লকডাউন করা হয়েছে। পরিবারে সদস্যদের হোমকোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। ২৯ মে তার পরিবারের ৬ জনের করোনা পজিটিভ এসেছে।

মুকসুদপুর হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার ডা. রিজভী আহমাদ জানান, মুকসুদপুরে করোনা পরিস্থিতি অবনতির দিকে যাচ্ছে। সবাইকে আরো বেশি সতর্ক থাকতে হবে এবং নিরাপদ দূরুত্ব বজায় রেখে চলতে হবে। 

ডেইলি বাংলাদেশ/এমএইচ