.ঢাকা, শনিবার   ২৩ মার্চ ২০১৯,   চৈত্র ৯ ১৪২৫,   ১৬ রজব ১৪৪০

মিয়ানমারকে চাপ দিতে হবে জাতিসংঘকে: প্রধানমন্ত্রী

জাতীয় ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ

 প্রকাশিত: ১৯:১৯ ৬ সেপ্টেম্বর ২০১৭  

মিয়ানমারের শরণার্থী সনাক্তকরণ প্রক্রিয়ায় বাংলাদেশকে সহায়তার প্রস্তাব দিয়েছে জাতিসংঘ। প্রস্তাবকে স্বাগত জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, মিয়ানমারের নাগরিকদের দ্রুত ফিরিয়ে নিতে জাতিসংঘকে দেশটির উপর চাপ সৃষ্টি করতে হবে।

বুধবার প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে তার কার্যালয়ে বিদায়ী সাক্ষাতে এ প্রস্তাব দেন জাতিসংঘের আবাসিক সমন্বয়ক ও ইউএনডিপি’র আবাসিক প্রতিনিধি রবার্ট ডি ওয়াটকিনস।

বৈঠক শেষে প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম সাংবাদিকদের বলেন, মিয়ানমারের নাগরিক সনাক্তে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতিংসঘের প্রস্তাবকে স্বাগত জানিয়েছেন। তিনি বলেছেন, মিয়ানমারের নাগরিকদের দ্রুত ফিরিয়ে নিতে জাতিসংঘকে দেশটির উপর চাপ সৃষ্টি করতে হবে।

প্রেস সচিব বলেন, প্রধানমন্ত্রী বিদ্রোহীদের পৃষ্ঠপোষক, অর্থদাতা ও অস্ত্র সরবরাহকারীদের খুঁজে বের করার জন্যও আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানান।

শেখ হাসিনা বলেন, সরকার বর্ডার গার্ডকে শরণার্থী এবং তাদের মধ্যে অধিক নির্যাতিত নারী, বয়স্ক মানুষ ও দুর্ভোগের শিকার শিশুদের তালিকা তৈরির নির্দেশ দিয়েছে। সরকার শরণার্থীদের আশ্রয়ের জন্য ভাষানচর দ্বীপকে নির্ধারণ করেছে।

জাতিসংঘের আবাসিক প্রতিনিধি মিয়ানমারের শরণার্থীদের ব্যাপারে বাংলাদেশের মানবিক নীতির ভূয়সী প্রশংসা করে বলেন, ‘এ ক্ষেত্রে বাংলাদেশের যা যা করণীয় বাংলাদেশ তা যথাযথভাবে পালন করছে।’

তিনি বলেন, চলমান দফায় বাংলাদেশে প্রায় ১ লাখ ২৬ হাজার মিয়ানমারের নাগরিক পালিয়ে এসেছে।

ওয়াটকিনস প্রধানমন্ত্রীকে জানান, জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস ব্যক্তিগতভাবে এর সঙ্গে সম্পৃক্ত এবং এনিয়ে তিনি কয়েকটি বিবৃতিও দিয়েছেন। তিনি এই পরিস্থিতি মোকাবেলায় বাংলাদেশকে সহায়তার প্রস্তাবও দিয়েছেন।

এসময় বাংলাদেশে তার দায়িত্বপালনকালে চমৎকার সমর্থনের জন্য প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানান ওয়াটকিনস।

খবর: বাসস।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএ