Exim Bank
ঢাকা, বৃহস্পতিবার ২৪ মে, ২০১৮
iftar

‘মা দিবস’ হোক প্রতিদিন

 সাদিয়া স্বর্ণা ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২২:০৪, ১৩ মে ২০১৮

২৯৯ বার পঠিত

সাদিয়া স্বর্ণা

সাদিয়া স্বর্ণা

মমতাময়ী মায়ের প্রতি হৃদয় নিংড়ানো ভালোবাসা আর শ্রদ্ধা জানানোর মধ্য দিয়ে আজ গোটা বিশ্বেই পালিত হচ্ছে বিশ্ব মা দিবস। প্রতিবছর মে মাসের দ্বিতীয় রোববারকে বিশ্ব মা দিবস হিসেবেই পালন করা হয়ে থাকে।

মা দিবসের আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু ১৯০৭ সালে। ওই বছর এক রোববার যুক্তরাষ্ট্রে আনা মারিয়া নামে এক নারী স্কুলে নিজের এক বক্তব্যে মায়ের জন্য একটি দিবসের গুরুত্ব ব্যাখ্যা করেন। এভাবেই শুরু হয় মা দিবসের যাত্রা।

বাংলাদেশে এ দিবসটি ঘটা করে পালনের ইতিহাস খুব বেশি দিনের নয়। কিন্তু নাগরিক জীবনে দিনটি পালনের ক্ষেত্রে বেশি সাড়া মিলেছে কয়েক বছর ধরে। সন্তানের প্রতি মায়ের ভালোবাসা আর মায়ের প্রতি সন্তানের ভালোবাসার মেলবন্ধনেই পালিত হবে বিশ্ব মা দিবস ২০১৮।

ছোট্ট শিশুর প্রথম ভালবাসা হচ্ছে মা। নিরাপত্তা আর মমতায় গড়া সেই কোল, সেই উষ্ণতার পরশে সারাটা জীবন কাটিয়ে দিতে চায় মন। বড় হয়ে ওঠার সঙ্গে সঙ্গে মা’কে ঘিরে জমা হয় ভালবাসা, অভিমান আর দুষ্টুমির শত শত গল্প। সঙ্কটকালে কেবলই মনে হয় যদি সব কিছু ছেড়ে মা’র স্নেহমাখা কোলে মুখ লুকাতে পারতাম, তবে পৃথিবীর কোনো কষ্টই আমাকে স্পর্শ করতে পারতো না। দৃশ্যত মা কারো কাছে থাকে না, কারোবা দূরে- কিন্তু মা আছেন সবার হৃদয়ে।

পৃৃথিবীর সর্বশ্রেষ্ঠ নিয়ামত মা। প্রত্যেকটি মানুষের পৃথিবীতে আসা এবং বেড়ে ওঠার প্রধান ভূমিকা মায়ের।
কিছুই না বোঝা, ব্যক্ত করতে না পারা, কোনো শক্তি নেই কিছু বলার, ক্ষুধা পেলে শুধু কান্নাই যার ভাষা, এমন একটি শিশুকে হাজারো বাধা বিপত্তির পর্বতমালা পেরিয়ে, বহু ত্যাগ তিতিক্ষার সাগর পাড়ি দিয়ে আঁচলে বাঁধা সুখের পরশে স্বযত্নে লালন-পালন করে মানুষ হিসেবে গড়ে তোলা সেই মমতাময়ী নারীই হলেন মা।

বেঁচে থাকতে সেই মা-কে কতদিন, কতবার আদর করেছি আমরা? কতবার বলেছি ‘মা, তোমায় ভালোবাসি’? জীবন শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত? এরপর ছোটবেলা কাটিয়ে উঠে কৈশোর, যৌবন, প্রৌঢ়ত্ব, বার্ধক্য, আর সবশেষে অনিবার্য মৃত্যু৷ এই ধ্রুব সত্য শুধু আপনার-আমার নয়, সবার জন্য৷

পৃথিবীর সব মা-ই তাদের সন্তানদের কাছে মা হিসেবে শ্রেষ্ঠ। তবে আমি জানি না তাদের কজন মানুষ হিসেবেও সেরা। যে জীবন আমাদের এমন মহান বানিয়েছে, এমন কষ্ট সহিষ্ণু, উদার, নির্লোভ, সরলমনা ও বুদ্ধিমতী হিসেবে উপস্থাপন করেছে আমাদের সেই জীবনের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধায় নত হওয়ার ক্ষমতাটুকুই শুধু আমাদের আছে।

যতদিন ‘মা` বেঁচে আছেন, ততদিন, প্রতিটি দিন পালন করুন ‘মা দিবস’ হিসেবে৷পৃথিবীর সকল মা কে শ্রদ্ধা ও ভালবাসা।

ডেইলি বাংলাদেশ/ডিএম/এসআই

সর্বাধিক পঠিত