Exim Bank Ltd.
ঢাকা, শুক্রবার ১৬ নভেম্বর, ২০১৮, ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৫

মায়ের প্রতি ভালোবাসা তিন গুণ বেশি...

মাওলানা ওমর ফারুকডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম
মায়ের প্রতি ভালোবাসা তিন গুণ বেশি...
ফাইল ছবি

ইতোপূর্বে বাবা-মা উভয়ের প্রতি ভালোবাসা ও কর্তব্য পালনের বিষয়ে আলোচনা হয়েছে।

মহান আল্লাহ তায়ালা উভয়ের প্রতি সন্তানের কর্তব্য পালনের নির্দেশ দিয়েছেন। তবে মায়ের ক্ষেত্রে একটু বেশি সম্মান ও মর্যাদা দেখাতে বলা হয়েছে। সবকিছু থেকে মা’কেই বেশি প্রাধান্য দিতে হবে।

এ সম্পর্কে মহান রাব্বুল আলামিন আল্লাহ তায়ালা বলেন, وَوَصَّيْنَا الْإِنْسَانَ بِوَالِدَيْهِ إِحْسَانًا حَمَلَتْهُ أُمُّهُ كُرْهًا وَوَضَعَتْهُ كُرْهًا وَحَمْلُهُ وَفِصَالُهُ ثَلَاثُونَ شَهْرًا

‘আমি মানুষকে মা-বাবার সঙ্গে সুন্দর আচরণের তাগিদ দিয়েছি। তার মা অনেক কষ্টে তাকে গর্ভে ধারণ করেছে এবং বহু কষ্ট করে ভূমিষ্ঠ করেছে। গর্ভে ধারণ করা ও দুধ পান করানোর (কঠিন কাজের) সময়কাল হলো আড়াই বছর।’ (সূরা আহকাফ:১৫)

মহান আল্লাহ তায়ালা আরো বলেন, وَوَصَّيْنَا الْإِنْسَانَ بِوَالِدَيْهِ حَمَلَتْهُ أُمُّهُ وَهْنًا عَلَى وَهْنٍ وَفِصَالُهُ فِي عَامَيْنِ أَنِ اشْكُرْ لِي وَلِوَالِدَيْكَ إِلَيَّ الْمَصِيرُ

‘আমি মানুষকে তার মা-বাবার সঙ্গে সদ্ব্যবহার করার জোর নির্দেশ দিয়েছি। তার মা তাকে কষ্টের পর কষ্ট স্বীকার করে গর্ভে ধারণ করেছে। আর দুধ ছাড়ানো হয় দুই বছরের মধ্যে। এ নির্দেশ দিয়েছি যে, আমার প্রতি ও তোমার মা-বাবার প্রতি কৃতজ্ঞ হও ‘ (সূরা লুকমান: ১৪)

হজরত আবু হুরাইরা (রা.) বলেন, এক ব্যক্তি রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের দরবারে হাজির হয়ে জিজ্ঞেস করল, ইয়া রাসূলুল্লাহ! আমার উত্তম আচরণের সবচেয়ে বেশি হকদার কে? তিনি বললেন, তোমার মা। সাহাবি আবারও জিজ্ঞেস করলো, এরপর কে? তিনি বললেন, তোমার মা। সে আবার জিজ্ঞেস করলো তারপর কে? তিনি বললেন, তোমার মা। সে আবারও জিজ্ঞেস করলো এরপর কে? তিনি বললেন, তোমার পিতা। (সহিহ আল বুখারি)

মিকদাম ইবন মা’দিকারাব (রা.) থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ (সা.) বলেছেন, নিশ্চয় আল্লাহ তায়ালা তোমাদের মায়েদের সম্পর্কে তোমাদের উপদেশ দিচ্ছেন। অর্থাৎ তাদের সঙ্গে সদাচরণ করার আদেশ দিচ্ছেন। একথা তিনি তিনবার বললেন। নিশ্চয় আল্লাহ তোমাদের পিতাদের সম্পর্কে তোমাদের উপদেশ দিচ্ছেন। নিশ্চয় আল্লাহ পর্যায়ক্রমে নিকটবর্তীদের সম্পর্কে তোমাদের উপদেশ দিচ্ছেন। (ইবনে মাজাহ)

হজরত আবু হুরাইরা (রা.) থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, জনৈক ব্যক্তি নবী সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের কাছে এসে জিহাদে যাওয়ার অনুমতি চাইলে তিনি বললেন, তোমার মা-বাবা কি বেঁচে আছে? লোকটি বললো, হ্যাঁ, বেঁচে আছেন। তিনি বললেন, তাদের মাঝে জিহাদ করো। (অর্থাৎ তাদের সেবা-যত্ন ও খেদমতে আত্মনিয়োগ কর। এটাই জিহাদ।) (সহিহ মুসলিম, আবু দাউদ)

আয়েশা (রা.) থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, আমি রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামকে জিজ্ঞেস করেছি, হে আল্লাহর রাসূল! মহিলাদের ওপর সবচেয়ে বেশি অধিকার কার? তিনি জবাব দিলেন, তার স্বামীর। বললাম, পুরুষের ওপর সবচেয়ে বেশি অধিকার কার? তিনি বললেন, তার মায়ের। (আল মুসতাদরাক)

মায়ের ঋণ পরিশোধ করা:

বুরাইদা (রা.) থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, আমি রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের দরবারে বসা ছিলাম। তখন একজন মহিলা এসে বললেন, আমি আমার মাকে একটি দাসী দান করেছি। ইতোমধ্যে তিনি ইন্তিকাল করেছেন। রাসূলুল্লাহ (সা.) বললেন, দাসী দান করার প্রতিদান তুমি অবশ্যই পাবে এবং মীরাস হিসেবে দাসীটিও তুমি ফেরত পাবে। মহিলাটি আরো বলল, হে আল্লাহর রাসূল! এক মাসের রোজা তার অনাদায় রয়ে গেছে, আমি কি তার পক্ষ থেকে সে রোজা কাজা আদায় করবো? তিনি বললেন, তুমি তার কাজা রোজা আদায় করো। সে বলল, আমার মা কখনো হজ করেননি, আমি কি তার পক্ষ থেকে হজ করবো? তিনি বললেন, তুমি তার পক্ষ থেকে হজ করো। (সহিহ মুসলিম)

ইবন আব্বাস (রা.) থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, এক ব্যক্তি নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের দরবারে এসে বলল, হে আল্লাহর রাসূল! আমার মা এক মাসের রোজা অনাদায় রেখে মারা যান। আমি কি তার রোজাগুলো পালন করব? তিনি বললেন, তোমার মায়ের যদি কোনো ঋণ থাকতো, তুমি কি তা পরিশোধ করতে না? লোকটি বলল, হ্যাঁ, পরিশোধ করতাম। রাসূলুল্লাহ (সা.) বললেন, আল্লাহর ঋণ আগে পরিশোধ করে নাও।

প্রতিশ্রুতি রক্ষা:

আব্দুল্লাহ (রা.) বলেন, আস’আদ ইবন উবাদা (রা.) রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের নিকট জানতে চাইল, ইয়া রাসূলাল্লাহ! আমার মা মানত করেছিলেন, কিন্তু তা আদায় করার পূর্বেই তিনি ইন্তিকাল করেছেন। রাসূলুল্লাহ (সা.) বললেন, তুমি তার পক্ষ থেকে মানত পুরা করে দাও। (সহিহ বুখারি)

আব্দুল্লাহ ইবনে আব্বাস (রা.) বর্ণনা করেন। এক ব্যক্তি রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের নিকট জানতে চাইল, হে আল্লাহর রাসূল! আমার মা ইন্তিকাল করেছেন, তিনি কোনো অসিয়াত করে যাননি। আমি যদি তার পক্ষ থেকে সাদকাহ করি তাহলে কি তার কোনো উপকারে আসবে? তিনি বললেন, হ্যাঁ, উপকারে আসবে...। (আবু দাউদ)

মহান রাব্বুল আলামিন আল্লাহ তায়ালা আমাদেরকে মায়ের প্রতি সঠিকভাবে যত্নবান হওয়ার এবং সন্তান হিসেবে যথাযত হক আদায়ের তৌফিক দান করুন। আল্লাহুম্মা আমিন।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএজে

আরোও পড়ুন
সর্বাধিক পঠিত
পুলিশের গাড়ি ভাঙায় ছাত্রদল নেতা বহিষ্কার
পুলিশের গাড়ি ভাঙায় ছাত্রদল নেতা বহিষ্কার
মনোনয়ন ফরম কিনেছেন যে তারকারা
মনোনয়ন ফরম কিনেছেন যে তারকারা
প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে নির্মিত ছবি ‘হাসিনা- এ ডটারস টেল’ মুক্তি পাচ্ছে
প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে নির্মিত ছবি ‘হাসিনা- এ ডটারস টেল’ মুক্তি পাচ্ছে
বিএনপির কার্যালয়ে ছিনতাইয়ের কবলে ফটোসাংবাদিক
বিএনপির কার্যালয়ে ছিনতাইয়ের কবলে ফটোসাংবাদিক
কুমিল্লায় ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী প্রায় চুড়ান্ত !
কুমিল্লায় ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী প্রায় চুড়ান্ত !
বিয়ের পিঁড়িতে আবু হায়দার রনি
বিয়ের পিঁড়িতে আবু হায়দার রনি
ফরজ গোসলের সঠিক নিয়ম
ফরজ গোসলের সঠিক নিয়ম
প্রধানমন্ত্রীর আসনে প্রার্থী দেবে না ড. কামাল
প্রধানমন্ত্রীর আসনে প্রার্থী দেবে না ড. কামাল
উত্তাপ বাড়ছে নোয়াখালী-৫ আসনে
উত্তাপ বাড়ছে নোয়াখালী-৫ আসনে
নির্বাচন একমাস পেছানোর আশ্বাস দিয়েছে ইসি: ড. কামাল
নির্বাচন একমাস পেছানোর আশ্বাস দিয়েছে ইসি: ড. কামাল
স্বামীকে খুশির খবর দিলেন আনুশকা, জানেন কী?
স্বামীকে খুশির খবর দিলেন আনুশকা, জানেন কী?
প্রভার বিয়ের আয়োজন!
প্রভার বিয়ের আয়োজন!
মদেই ‘বেসামাল’ প্রিয়াঙ্কা!
মদেই ‘বেসামাল’ প্রিয়াঙ্কা!
ফারহানার স্বপ্নের মৃত্যু
ফারহানার স্বপ্নের মৃত্যু
কাজলকে ‘জোর করে’ চুমু, ছিল অশ্লীল আচরণ!
কাজলকে ‘জোর করে’ চুমু, ছিল অশ্লীল আচরণ!
পর্ন সাইটে হিনার ‘রগরগে’ ছবি!
পর্ন সাইটে হিনার ‘রগরগে’ ছবি!
‘বিছানায় তো হরহামেশাই যেতে হয়’
‘বিছানায় তো হরহামেশাই যেতে হয়’
অরুণ হাতের নখ কাটেনি ২৫ বছর!
অরুণ হাতের নখ কাটেনি ২৫ বছর!
অভিনেত্রীকেই শেখালেন অভিনেত্রী, কী জানেন?
অভিনেত্রীকেই শেখালেন অভিনেত্রী, কী জানেন?
যে তারকারা কিনেছেন বিএনপির মনোনয়ন ফরম
যে তারকারা কিনেছেন বিএনপির মনোনয়ন ফরম
শিরোনাম:
জনগণই ষড়যন্ত্র প্রতিহত করবে: প্রধানমন্ত্রী জনগণই ষড়যন্ত্র প্রতিহত করবে: প্রধানমন্ত্রী নারীর ক্ষমতায়নে বাংলাদেশের উল্লেখযোগ্য সাফল্য অর্জন: ইইউ নারীর ক্ষমতায়নে বাংলাদেশের উল্লেখযোগ্য সাফল্য অর্জন: ইইউ বিশ্ব ইজতেমা স্থগিত বিশ্ব ইজতেমা স্থগিত