Alexa মাল্টার সঙ্গে কূটনীতিক প্রশিক্ষণ বিষয়ে চুক্তি হতে পারে 

ঢাকা, বুধবার   ২১ আগস্ট ২০১৯,   ভাদ্র ৬ ১৪২৬,   ১৯ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০

Akash

মাল্টার সঙ্গে কূটনীতিক প্রশিক্ষণ বিষয়ে চুক্তি হতে পারে 

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৩:১৮ ২২ জুলাই ২০১৯   আপডেট: ১৩:২৪ ২২ জুলাই ২০১৯

ভূমধ্যসাগরীয় দ্বীপদেশ মাল্টার সঙ্গে কূটনীতিকদের প্রশিক্ষণ বিষয়ে চুক্তি করতে পারে বাংলাদেশ। সব কিছু ঠিক থাকলে আজ এ বিষয়ে দেশটির সঙ্গে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর করা হবে। এতে করে দক্ষিণ ইউরোপের এ দেশের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক আরো উন্নত হবে।  

এদিকে ঢাকার কূটনৈতিক সূত্রগুলো জানাচ্ছে, সোমবার দুই দেশের মধ্যে নিয়মিতভাবে বৈঠক বা ফরেন অফিস কনসালটেশন অনুষ্ঠান বিষয়ে আরেকটি চুক্তি বা সমঝোতা স্মারক সই হতে পারে। এটি হলে বাংলাদেশ ও মাল্টার আজ মোট দুটি চুক্তি সম্পাদন করবে।  

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন ২১ থেকে ২৩ জুলাই পর্যন্ত মাল্টায় দ্বিপাক্ষিক সফরে রয়েছেন। রোববার যুক্তরাজ্যের লন্ডনে দূত সম্মেলন শেষ করে স্থানীয় সময় বিকেলে ভাল্লেত্তা পৌঁছান পররাষ্ট্রমন্ত্রী। এ সফরে দুই দেশের মধ্যে চুক্তি স্বাক্ষর ছাড়াও মেরিটাইম খাতে মাল্টার সহযোগিতা চাইবে বাংলাদেশ।

এদিকে, আগামী ২০২৩-২৪ মেয়াদে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের অস্থায়ী সদস্যপদে বাংলাদেশের কাছে সমর্থন চাইবে মাল্টা। বাংলাদেশও দেশটির কাছে সমুদ্র খাতে সক্রিয় সহযোগিতা চায়। সমুদ্র বিদ্যায় সারাদুনিয়াতেই মাল্টার সুনাম রয়েছে। এজন্য মাল্টার সমুদ্র অভিজ্ঞতাকে বঙ্গোপসাগর জয়ে কাজে লাগাতে চায় বাংলাদেশ। 

মেরিটাইম খাত ও নিরাপত্তা পরিষদের অস্থায়ী সদস্য পদের ভোটকে কেন্দ্র করে ঢাকা-ভালেত্তা সম্পর্ক নতুন উচ্চতায় প্রবেশ করবে বলে আশা করছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সচিব (মেরিটাইম) মো. খোরশেদ আলম।

তিনি বলেন, মাল্টায় মেরিটাইম নিয়ে উন্নতমানের শিক্ষা ব্যবস্থা রয়েছে। দেশটিতে এ খাতের প্রশিক্ষত জনবলও আছে। মাল্টা মেরিটাইম খাতে খুব শক্তিশালী। তাই আমরা এ খাতে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক শক্তিশালী করতে চাইছি। সমুদ্র শাসনে মাল্টার অভিজ্ঞতার অংশীদার হতে পারলে উপকার হবে। বাংলাদেশের দক্ষিণ প্রান্তের বিশাল সমুদ্রসীমার পাশাপাশি আন্তর্জাতিক জলসীমাতেও সে অভিজ্ঞতা কাজে লাগাতে পারবো। 

গত বছরের ১৮ অক্টোবর ১২তম আসেম সম্মেলনের ফাকে ওই সময়ের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলীর সঙ্গে মাল্টার পররাষ্ট্রমন্ত্রী কারমেল আবেলার একটি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। 

ডেইলি বাংলাদেশ/টিএসআই/আরএইচ

Best Electronics
Best Electronics