Alexa তিতলির প্রভাবে প্লাবিত কমলনগর

ঢাকা, মঙ্গলবার   ১৬ জুলাই ২০১৯,   শ্রাবণ ২ ১৪২৬,   ১৩ জ্বিলকদ ১৪৪০

তিতলির প্রভাবে প্লাবিত কমলনগর

 প্রকাশিত: ১৭:২৫ ১৩ অক্টোবর ২০১৮   আপডেট: ১৭:২৫ ১৩ অক্টোবর ২০১৮

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট ঘূর্ণিঝড় তিতলির প্রভাবে মেঘনা নদীতে পানি বেড়েছে। এতে প্লাবিত হয়েছে মেঘনাতীরসহ লক্ষ্মীপুরের কমলনগরের গ্রামগুলো।

টানা চার দিনে বৃষ্টিতে উপজেলার চর মার্টিন, চর কালকিনি, চর লরেন্স, সাহেবেরহাট, চর ফলকন, পাটোয়ারী হাট ইউনিয়নসহ বিভিন্ন স্থানে জোয়ারের পানি প্রবেশ করেছে। এতে পানিবন্দী মানুষ পড়েছেন বেশ বিপাকে।

বেড়িবাঁধ না থাকায় অল্প বৃষ্টিতে জোয়ারের পানি খুব সহজেই ঢুকে পড়ে গ্রামগুলোতে। পানিবন্দী হয়ে জনসাধারণের চলাচল ব্যহত হচ্ছে। শিক্ষার্থীরা স্কুল, কলেজ, চাকরিজীবীরা অফিস আদালতে যেতে পারছে না। বন্যার পানিতে তলিয়ে গেছে রাস্তা-ঘাট, কালভার্ট, ব্রিজ।

সোমবার দুর্গার ষষ্ঠী শুরু। এর আগে ঘূর্ণিঝড় তিতলির কারণে পূজা উদযাপন কমিটি কর্মকর্তারা বেশ চিন্তিত।

মেঘনার উপকূলীয় অঞ্চলের মানুষ নদী নির্ভরশীল। নদীতে মাছ শিকার করে জীবীকা নির্বাহ করে। তিতলির প্রভাবে মেঘনার পাড়ের মানুষগুলো খুবই বিপর্যয়ের মধ্যে জীবনযাপন করছে।

ইলিশ মাছ ধরায় নিষেধাজ্ঞা থাকায় জেলে পাড়ার মানুষের আয়ের উৎস কমে গেছে। তাই দিন মজুরি করে জীবন চালালেও এখন কোন কাজই করতে পারেছেন না তারা।

বাংলাদেশে দক্ষিণ অঞ্চলে তিতলির কোন প্রভাব না পড়লেও টানা বৃষ্টির কারণে উপকূলীয় মানুষগুলো বেকার হয়ে পড়েছে।

আবহাওয়া অফিস সূত্রে জানা যায়, এরকম পরিস্থিতি আরও কয়েক দিন থাকতে পারে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এসকে/আরআর