মাদারীপুরে সড়ক ও জনপদের জমি দখলের অভিযোগ

ঢাকা, মঙ্গলবার   ১৮ জুন ২০১৯,   আষাঢ় ৫ ১৪২৬,   ১৪ শাওয়াল ১৪৪০

মাদারীপুরে সড়ক ও জনপদের জমি দখলের অভিযোগ

মাদারীপুর প্রতিনিধি

 প্রকাশিত: ২১:৩৫ ১৪ জানুয়ারি ২০১৯   আপডেট: ২১:৩৫ ১৪ জানুয়ারি ২০১৯

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

সড়ক ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের কোনো নির্দেশই কাজে আসছে না মাদারীপুরে। সম্প্রতি তিনি এক সপ্তাহের মধ্যে সড়কের পাশের অবৈধ স্থাপনা ভেঙে ফেলার নির্দেশ দিলেও মাদারীপুর শহরের পানিছত্র এলাকায় সড়ক ও জনপদ বিভাগের (সওজ) এর জমি দখলের অভিযোগ উঠেছে একই বিভাগের কর্মকর্তার বিরুদ্ধে।

মাদারীপুর- শরীয়তপুর আঞ্চলিক সড়কের পানিছত্র এলাকার এ.আর. ইসলামী ব্যাংক হাসপাতালের পাশে সড়ক ও জনপদ বিভাগের জমি দখল করে স্থাপনা নির্মাণ কাজ চলছে। এ দখলের সঙ্গে খোদ সড়ক ও জনপদ বিভাগের উপ-সহকারী প্রকৌশলী আমির হোসেনের জড়িত থাকার অভিযোগ উঠেছে।

সড়কের জমি দখল নিয়ে স্থানীয়দের মাঝে ক্ষোভ থাকলেও এই কর্মকর্তা জড়িত থাকায় দখল ঠেকাতে কোনো ধরনের ব্যবস্থা নেয়নি সড়ক বিভাগ। ওই সরকারি জমিটির বাজার মূল্য কোটি টাকা হবে বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা। সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, সড়ক বিভাগের জমি দখল করে পাকা স্থাপনা নির্মাণ কাজ করছে।

মাদারীপুর উন্নয়ন সংগ্রাম পরিষদের সভাপতি মাসুদ পারভেজ বলেন, ‘সরকারি জমি যদি সরকারি কর্মকর্তারাই দখল করে তাহলে তো রক্ষক হয়ে ভক্ষকের ভূমিকা পালন করছে। এ কর্মকর্তার দেখাদেখি শহরের অন্য জমিও তো প্রভাবশালীরা দখল করে নিবে। প্রশাসনের উচিত আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা।

এ বিষয়ে মাদারীপুর সড়ক বিভাগের উপ-সহকারী প্রকৌশলী আমির হোসেন বলেন, এ জমি আমি দখল করিনি, জমিটি আমার এক আত্মীয় ক্রয় করেছে। এটি সড়ক বিভাগের জমি নয়। সড়ক বিভাগের জমি মূলত রাস্তার উল্টো পাশে মসজিদের মধ্যে। রাস্তার এ পাশে ব্যক্তি মালিকানা জমির উপর দিয়ে রাস্তা করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে সড়ক ও জনপদ বিভাগের (সওজ) মাদারীপুর কার্যালয়ের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, সড়ক বিভাগের রাস্তা থেকে ১০ মিটারের মধ্যে কেউ কোনো ধরনের স্থাপনা নির্মাণ করতে পারবেনা। যদি করে থাকে তাহলে স্থাপনা উচ্ছেদ করার ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএইচ