.ঢাকা, শুক্রবার   ১৯ এপ্রিল ২০১৯,   বৈশাখ ৫ ১৪২৬,   ১৩ শা'বান ১৪৪০

মাদক ব্যবসায়ীর ভুয়া মামলা খারিজ, নির্দোষ এসি ইফতি

 প্রকাশিত: ১৬:১১ ৮ অক্টোবর ২০১৮   আপডেট: ১৬:১১ ৮ অক্টোবর ২০১৮

ফাইল ফটো

ফাইল ফটো

যাত্রাবাড়ীর ভুয়া ‘সাংবাদিক’ ও চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী ফরমান উল্লাহ খান ওরফে নিরবের ভুয়া মামলা শেষ পর্যন্ত টেকেনি।

পুলিশ কর্মকর্তা ইফতেখায়রুল ইসলামসহ ১৪ জনের বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলাটি ভিত্তিহীন প্রমাণ হওয়ায় খারিজ করে দিয়েছেন ঢাকা সিএমএম কোর্ট (৫ নং)। 

ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ আলী গতকাল (রোববার) মামলাটি খারিজ করে দেন।

উল্লেখ্য, নিজে একাধিক মাদক মামলার আসামি নিরব অনলাইন পত্রিকার সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে এলাকায় দাপটের সঙ্গে ইয়াবা, হেরোইন ও ফেনসিডিলের ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছিল। তার বিরুদ্ধে যাত্রাবাড়ী থানাতেই তিনটি মামলা আছে। কয়েকবার মাদকসহ ধরাও পড়ে পুলিশের হাতে।

ঢাকা মহানগর আদালত ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, কয়েকমাস আগে যাত্রাবাড়ী থানা পুলিশ সায়েদাবাদ রেললাইন এলাকা থেকে ফেনসিডিল, ইয়াবা, নেশা জাতীয় ইনজেকশন ও হেরোইনসহ নিরবকে গ্রেফতার করে।

                                          ছবিতে ইয়াবা সেবনরত নিরব

থানা সূত্রে জানা গেছে, এর আগে পুলিশের কেউ তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে গেলেই পুলিশ হেডকোয়ার্টার, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে অভিযোগ দিয়ে তাদের হয়রানি করতেন নিরব। এ কাজে তার কুটিলতা ও দক্ষতার কথা সবাই জানে।

তবে এবার সংশ্লিষ্টদের নিজের ইচ্ছামতো পটাতে না পেরে নয়া ফন্দি আঁটেন নিরব। তিনি স্ত্রী শাহানা আক্তারকে দিয়ে ডেমরা জোনের সহকারি কমিশনার (এসি) ইফতিখায়রুলসহ ১৪ জনের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা করান।

আদালত সূত্র জানায়, গত ১২ জুলাই ঢাকা সিএমএম কোর্টে পুলিশের যাত্রাবাড়ী জোনের এসি, দুই ওসিসহ ১৪ জনকে আসামি করে মামলাটি করেছেন মাদক মামলায় গ্রেফতার ফরমান উল্লাহ খানের স্ত্রী শাহানা আক্তার। এতে শাহানা অভিযোগ করেন, পুলিশ তার স্বামীর কাছে চাঁদা দাবি করেছিল, না পেয়ে অন্যায়ভাবে মারধর করেছে।

এ ব্যাপারে পুলিশের ডিসি (প্রসিকিউশন) আনিসুর রহমান তখন দাবি করেছিলেন, নিরব একজন চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী। মামলা থেকে বাঁচতেই স্ত্রীকে দিয়ে আদালতে মামলা করিয়েছেন তিনি।

নিরব বর্তমানে কারাগারে বলে জানা গেছে। এ ব্যাপারে তার স্ত্রী তথা খারিজ হওয়া মামলার বাদী শাহানার বক্তব্য জানা যায়নি।

ডেইলি বাংলাদেশ/ইএ/এমআরকে