মাত্রাতিরিক্ত ক্রোমিয়ামে বন্ধ হবে ট্যানারি

ঢাকা, রোববার   ০৫ এপ্রিল ২০২০,   চৈত্র ২২ ১৪২৬,   ১১ শা'বান ১৪৪১

Akash

মাত্রাতিরিক্ত ক্রোমিয়ামে বন্ধ হবে ট্যানারি

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৪:৪০ ১১ মার্চ ২০২০   আপডেট: ১৬:১০ ১১ মার্চ ২০২০

ফাইল ফটো

ফাইল ফটো

এলডব্লিউজি মানদণ্ডের বেশি ক্রোমিয়াম ছাড়লে সংশ্লিষ্ট ট্যানারিগুলোর বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। ক্রোমিয়ামের মাত্রা এলডব্লিউজি মানদণ্ড অর্জনে ব্যর্থ হলে সংশ্লিষ্ট ট্যানারিগুলো বন্ধের ব্যবস্থা নেয়া হবে।

বুধবার শিল্প মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে চামড়া শিল্প নগরী, ঢাকা (চতুর্থ সংশোধিত) শীর্ষক প্রকল্পের সিইটিপিসহ সার্বিক বাস্তবায়ন অগ্রগতি পর্যালোচনা সভায় এ সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।  

শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ুনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন- বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি, শিল্প প্রতিমন্ত্রী কামাল আহমেদ মজুমদার ও প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান। 

সভায় জানানো হয়, ফেব্রুয়ারি ২০২০’র রিপোর্ট অনুযায়ী সাভারে অবস্থিত চামড়া শিল্পনগরীতে চলমান ট্যানারিসমূহের মধ্যে ১৩০টি ট্যানারির ৭টি যথাযথভাবে ক্রোম নিঃসরণ করছে এবং ৯টি ধীরে ধীরে উন্নতি করছে। এসময় অবশিষ্ট ট্যানারিগুলোকে এ বিষয়ে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। 

শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন বলেন, এলডব্লিউজি'র শর্তসমূহ পূরণ চামড়া শিল্প নগরীর সিইটিপি পরিচালনায় গঠিত কোম্পানির বোর্ডকে সক্রিয় ভূমিকা রাখতে হবে। 

তিনি বলেন, এলডব্লিউজি সনদ অর্জনের পথে আমরা অনেক দূরে এগিয়েছি। অবশিষ্ট কাজগুলো দ্রুত সম্পাদন করতে হবে। 

প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান বলেন, চামড়া শিল্পনগরী সঠিকভাবে পরিচালনার লক্ষ্যে এরইমধ্যে গৃহীত সিদ্ধান্তসমূহ বাস্তবায়নে ব্যর্থ হলে কোম্পানির বোর্ডকে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে হবে। এসময় বাংলাদেশ ট্যানার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি শাহীন আহমেদ ট্যানারি পরিচালনার সঙ্গে জড়িতদের সচেতনতা বৃদ্ধির উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে বলে জানান। 

সভায় হাজারীবাগ চামড়া শিল্পনগরীতে ট্যানারি মালিকদের প্লটসমূহ নিয়ে আলোচনা করা হয়। রাজউকের সঙ্গে আলোচনা করে এ বিষয়ে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। সভায় সাভারে অবস্থিত চামড়া শিল্প নগরীর বিদ্যমান সমস্যাসমূহ থেকে উত্তরণের প্রস্তাবনাসমূহ কোম্পানির বোর্ড থেকে শিল্প মন্ত্রণালয়ে ১৮ মার্চের মধ্যে পাঠানোর জন্য নির্দেশনা দেয়া হয়। প্রস্তাবনাসমূহ আলোকে পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।  

এসময় উপস্থিত ছিলেন- শিল্প সচিব মো. আবদুল হালিম,  বাংলাদেশ ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প কর্পোরেশনের চেয়ারম্যান মো. মোস্তাক হাসান, পরিবেশ বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব আহমদ শামীম আল রাজী, পরিবেশ অধিদফতরের মহাপরিচালক ড. এ, কে, এম, রফিক আহাম্মদ, বাংলাদেশ ট্যানার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি শাহীন আহমেদ, বাংলাদেশ ফিনিশড লেদার, লেদার গুডস অ্যান্ড ফুটওয়্যার এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মহিউদ্দিন আহমেদ, বাংলাদেশ ব্যাংকের উপ-মহাব্যবস্থাপক দেবাশীষ চক্রবর্তী, বুয়েটের ড. মো. দেলোয়ার হোসেন, ড. মো. আব্দুল জলিল, সত্যন্দ্রনাথ পাল, প্রকল্প পরিচালক ইঞ্জিনিয়ার জিতেন্দ্রনাথ পাল প্রমুখ।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমআরকে