Alexa মহাসড়ক জুড়ে খানাখন্দ

ঢাকা, মঙ্গলবার   ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯,   আশ্বিন ২ ১৪২৬,   ১৭ মুহররম ১৪৪১

Akash

মহাসড়ক জুড়ে খানাখন্দ

 প্রকাশিত: ১৬:২০ ১ সেপ্টেম্বর ২০১৮   আপডেট: ২০:৪৬ ১ সেপ্টেম্বর ২০১৮

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

পটুয়াখালী-কুয়াকাটা মহাসড়কে বরগুনার আমতলী উপজেলার শাখারিয়া থেকে বান্দ্রা পর্যন্ত ৩৭ কিলোমিটার রাস্তা খানাখন্দে ভরে গেছে। এতে যানবাহন চলাচলে বিঘ্ন ঘটছে। ফলে প্রতিদিন দুর্ঘটনার শিকার হচ্ছে বিভিন্ন যানবাহন।

সরেজমিনে ঘুরে দেখা গেছে, শাখারিয়া থেকে বান্দ্রা সড়কের শাখারিয়া, ব্রিকস ফিল্ড, কেওয়াবুনিয়া, মহিষকাটা, চুনাখালী, আমড়াগাছিয়া, ঘটখালী, তুলাতলা, একে স্কুল, বাধঘাট চৌরাস্তা, হাসপাতাল, ছুরিকাটা, মানিকঝুড়ি, খুড়িয়ার খেয়াঘাট, আকনবাড়ী, ফকিরবাড়ী, খলিয়ান ও বান্দ্রা এলাকার রাস্তায় খানাখন্দে ভরে গেছে। প্রতি চার মিটার পরপর বড়বড় গর্ত রয়েছে। এসব গর্তের কারনে মহাসড়কে ঠিকমত যানবাহন চলাচল করতে পারছে না। এ সড়কে সহস্রাধীক গর্ত রয়েছে। প্রতিদিন এই সড়ক দিয়ে হাজার হাজার যানবাহন চলাচল করে। প্রায়ই গর্তে পরে গাড়ী দুর্ঘটনার খবর শোনা যায়। গুরুত্বপূর্ণ মহাসড়কটি খানাখন্দে ভরে থাকায় পর্যটনগামী ও পরিবহন কুয়াকাটা নির্দিষ্ট সময়ে পৌছতে পারছে না। গাজীপুর বন্দরের সোহেল রানা ও পথচারী মো. জাকির শিকদার জানান, মহাসড়কের বেহাল দশায় যানবাহনে চলাচল করা খুবই কষ্টসাধ্য। জীবনের ঝুঁকি নিয়ে এ সড়কে চলাচল করতে হয়। সোহেল রানা অভিযোগ করে বলেন, গত দু’মাস পূর্বে সড়ক ও জনপথ বিভাগ এ সড়কের খানাখন্দের বালু ও ইটের খোয়া দিয়ে সংস্কার করে। বৃষ্টিতে ধুয়ে আবার সেই খানাখন্দে হয়েছে। স্বর্ণা এন্টারপ্রাইজ বাসের চালক মজিবর রহমান ও মৃধা এন্টারপ্রাইজ বাস মালিক মো. হাসান মৃধা বলেন, পুরা মহাসড়কটি খানাখন্দে ভরে আছে। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ সড়কটি দ্রুত সংস্কার করা না হলে অল্প সময়ের মধ্যে যান চলাচলের অনুপোযোগী হয়ে পড়বে। পটুয়াখালী সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকেীশলী মীর নিজাম উদ্দিন আহম্মেদ জানান, এ সড়কের দরপত্র আহবান করা হয়েছে। শীঘ্রই কাজ শুরু হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরআর