মনোহরের বিরুদ্ধে ক্ষোভ ঝাড়লেন শ্রীনিবাসন
SELECT bn_content.*, bn_bas_category.*, DATE_FORMAT(bn_content.DateTimeInserted, '%H:%i %e %M %Y') AS fDateTimeInserted, DATE_FORMAT(bn_content.DateTimeUpdated, '%H:%i %e %M %Y') AS fDateTimeUpdated, bn_totalhit.TotalHit FROM bn_content INNER JOIN bn_bas_category ON bn_bas_category.CategoryID=bn_content.CategoryID INNER JOIN bn_totalhit ON bn_totalhit.ContentID=bn_content.ContentID WHERE bn_content.Deletable=1 AND bn_content.ShowContent=1 AND bn_content.ContentID=191655 LIMIT 1

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ০৬ আগস্ট ২০২০,   শ্রাবণ ২২ ১৪২৭,   ১৫ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

Beximco LPG Gas

মনোহরের বিরুদ্ধে ক্ষোভ ঝাড়লেন শ্রীনিবাসন

স্পোর্টস ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ০০:২২ ৩ জুলাই ২০২০  

মনোহরের বিরুদ্ধে ক্ষোভ ঝাড়লেন শ্রীনিবাসন

মনোহরের বিরুদ্ধে ক্ষোভ ঝাড়লেন শ্রীনিবাসন

টানা দুই মেয়াদে চার বছর দায়িত্ব পালনের পর হঠাৎ করেই ক্রিকেটের প্রধান সংস্থা ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিলের (আইসিসি) চেয়ারম্যানের পদ থেকে সড়ে দাঁড়ালেন ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিসিআই) সাবেক সভাপতি শশাঙ্ক মনোহর।

মনোহরের পদত্যাগে স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেললেন আইসিসির সাবেক সভাপতি এন শ্রীনিবাসন। ‘তিন মোড়ল’ প্রথা ভাঙার পর থেকেই মনোহরকে ভারতীয় ক্রিকেটের শত্রু  বলে আসছেন তিনি।

বিগ থ্রি ভেঙ্গে দেয়ায় মনোহরকে ‘ভারত-বিরোধী’ আখ্যাও দিয়েছিলেন শ্রীনিবাসন।  মনোহরের কারণে ভারতীয় ক্রিকেটের লাভের চেয়ে ক্ষতিই বেশি হয়েছে মনে করা শ্রীনি বলেন, ‘আমি ব্যক্তিগতভাবে মনে করি, সে ভারতীয় ক্রিকেটের অনেক ক্ষতি করেছে। আর্থিকভাবে ভারতকে আঘাত করেছে। আইসিসিতে ভারতের সুযোগ কমিয়ে দিয়েছে। সে একজন ভারত-বিরোধী ও বিশ্ব ক্রিকেটে ভারতের গুরুত্ব কমেছে তার জন্যই। সে এখন পালিয়ে যাচ্ছে, কারণ সে জানে যে ভারতীয় ক্রিকেটে তাকে কেউ সম্মান করে না’।

আইসিসি'র সভাপতি হিসেবে ৩০ জুন ছিল মনোহরের শেষ দিন। শেষ কর্মদিবসের পরদিনই নিজের পদ থেকে সরে দাঁড়ান মনোহর।

২০১৫ সালে বিতর্কিত ‘তিন মোড়ল’ নীতি প্রণয়ন করে বিশ্ব ক্রিকেট পরিচালনার ক্ষমতা দখলে নিয়েছিলো ভারত-অস্ট্রেলিয়া ও ইংল্যান্ড। ক্রিকেটে ‘বিগ থ্রি’ মডেল দাঁড় করিয়েছিলেন শ্রীনিবাসনই। কিন্তু মনোহর দায়িত্ব নিয়েই ‘বিগ থ্রি’ মডেল ভেঙ্গে দেন।

শ্রীনিবাসন আরো বলেন, ‘নিজের কথা চিন্তা করেই ভারতীয় ক্রিকেটের দুর্দিনে বিসিসিআই ছেড়ে ‘২০১৫ সালে আইসিসি’র দায়িত্ব গ্রহণ করেছিল মনোহর।  সে জানতো ভারতের ক্রিকেটের বড় পদ পাবে না। তাই সিঁড়ি হিসেবে ব্যবহার করে নিজের স্বার্থ হাসিলের জন্য সে পালিয়ে গিয়েছিল’।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএস