Alexa মদ্যপ স্বামীর কারণে প্রাণ হারালেন স্ত্রীসহ ৩ জন

ঢাকা, সোমবার   ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০,   ফাল্গুন ১১ ১৪২৬,   ২৯ জমাদিউস সানি ১৪৪১

Akash

মদ্যপ স্বামীর কারণে প্রাণ হারালেন স্ত্রীসহ ৩ জন

যশোর প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৭:১৯ ১৮ জানুয়ারি ২০২০   আপডেট: ১৭:২৪ ১৮ জানুয়ারি ২০২০

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

স্বামীর ঘরে যাওয়ার এক সপ্তাহ আগেই মৃত্যুকে আলিঙ্গন করলেন মেডিকেল শিক্ষার্থী তনিমা ইয়াসমিন পিয়াসা। মদ্যপ অবস্থায় প্রাইভেট কারের ড্রাইভিং সিটে ছিলেন পিয়াসার স্বামী ব্যবসায়ী শফিকুল ইসলাম। এ কারণে দুর্ঘটনাটি ঘটে বলে জানা যায়। আর এতে পিয়াসা ছাড়াও প্রাণ হারান তার বোন ও খালাত ভাইয়ের স্ত্রী। 

নিহতরা হলেন শহরের লোন অফিস পাড়ার শফিকুল ইসলামের স্ত্রী তনিমা ইয়াসমিন পিয়াশা, তার বোন শহরের রবীন্দ্রনাথ সড়কের বাসিন্দা সুমন ইসলামের স্ত্রী তানজিলা ইয়াসমিন ইয়াশা, একই এলাকার বাসিন্দা পিয়াশার খালাতো ভাই মনজুর হোসেনের স্ত্রী তিথী। 

আহতরা হলেন নিহত তিথীর শিশু সন্তান মাশিয়াব, নিহত পিয়াশার স্বামী প্রাইভেটকার চালক শফিকুল ইসলাম জ্যোতি ও নিকটাত্মীয় কালু। গুরুতর আহত মাশিয়াব ও কালুকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়েছে।

যশোর কোতোয়ালি থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) শেখ তাসমীম আলম বলেন, ‌শুক্রবার রাত একটার দিকে পুলিশ কন্ট্র্রোল রুম ও জাতীয় জরুরি সেবার ৯৯৯ নম্বর থেকে আমরা জানতে পারি, শহরের শহীদ মসিয়ূর রহমান সড়কে একটি প্রাইভেটকার দুর্ঘটনার শিকার হয়েছে। পুলিশের রাত্রিকালীন দুটি টহল টিম ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। ঘটনাস্থলে শহীদ মসিয়ূর রহমান সড়কের প্রাক্তন কাস্টমস সুপার জিএম কামালের বাড়ির প্রাচীর ও বিদ্যুতের খুঁটিতে সজোরে আঘাত করে প্রাইভেটকারটি। বেপরোয়া গতিতে গাড়ি চালানোর কারণেই এই দুর্ঘটনাটি ঘটে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ডিএসএবি) মোহাম্মদ তৌহিদুল ইসলাম বলেন, দুর্ঘটনায় আহত প্রাইভেটকার চালক শফিকুল ইসলাম জ্যোতিকে পুলিশ হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। তিনি মদ্যপ অবস্থায় গাড়ি চালাচ্ছিলেন বলে পুলিশের কাছে স্বীকার করেছেন। তার ডোপ টেস্ট করা হবে। জ্যোতিকে কোতোয়ালী থানায় সোপর্দ করেছে। তাকে আদালতে চালান দেয়া হবে।

নিহত তিথির স্বামী মঞ্জুর হোসেন বলেন, শুক্রবার রাতে শফিকুল ইসলাম জ্যোতি প্রাইভেটকার নিয়ে আমাদের বাসায় যান। শহরে ঘুরতে বের হওয়ার কথা বলে গাড়িতে আমার স্ত্রী ও সন্তানকে (মানিজুর) গাড়িতে তুলে নেন। ওই গাড়িতে জ্যোতির খালাতো দুই বোনও ছিল। তারা শহরের পালবাড়ি, আরবপুর এলাকায় আলোকসজ্জা দেখতে ও বিয়ে দাওতায় দিতে গিয়েছিল। সেখান থেকে ফেরার পথে দুর্ঘটনাটি ঘটে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমএইচ