Alexa ভেনেজুয়েলার বিরোধী নেতা গুইদো’র দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ০৫ ডিসেম্বর ২০১৯,   অগ্রহায়ণ ২১ ১৪২৬,   ০৮ রবিউস সানি ১৪৪১

ভেনেজুয়েলার বিরোধী নেতা গুইদো’র দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :: international-desk

 প্রকাশিত: ১০:৪৭ ৩০ জানুয়ারি ২০১৯   আপডেট: ১০:৪৭ ৩০ জানুয়ারি ২০১৯

ছবি; সংগৃহিত

ছবি; সংগৃহিত

ভেনেজুয়েলার প্রধান বিরোধী দলীয় নেতা হুয়ান গুইদোর দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে সরকার। একইসঙ্গে ক্রোক করা হয়েছে দেশে থাকা তার সব সম্পত্তি। গত বছরের মে মাসে অনুষ্ঠিত ভেনেজুয়েলার প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে কারচুপির অভিযোগ তুলে গুইদো নিজেকে অন্তর্বর্তীকালীন প্রেসিডেন্ট দাবি করেন। নতুন নির্বাচনের দাবিও করে বিরোধী পক্ষ।

মঙ্গলবার দেশটির অ্যাটর্নি জেনারেল কার্যালয় থেকে ওই নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়।
 
অ্যাটর্নি জেনারেল তারেক উইলিয়াম সাব এর অফিস থেকে জারি করা বিবৃতিতে বলা হয়, সংঘর্ষের ঘটনা এবং বিদেশি রাষ্ট্রের হস্তক্ষেপে এটা প্রতীয়মান হয় যে, দেশে সাংবিধানিক স্থিতিশীলতা নষ্ট করতে গুরুতর আঘাত হানা হয়েছে। আর এর জন্য হুয়ান গুইদোকে দায়ী করে বিবৃতিতে তার বিরুদ্ধে দেশত্যাগ ও সম্পত্তি জব্দের আদেশ দেয়া হয়।
 
গত মে মাসে সাধারণ নির্বাচনে জয়লাভের মাধ্যমে দ্বিতীয় মেয়াদে প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন মাদুরো। চলতি মাসের শুরুতে শপথ নেন বামপন্থী এ রাজনীতিক। তবে বিরোধীরা প্রথম থেকেই কারচুপির অভিযোগ তুলেন। এ অবস্থায় সরকারের পক্ষ থেকে অভিযোগ তোলা হয়, প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরোকে ক্ষমতাচ্যুত করার চেষ্টা করছেন হুয়ান গুইদো।
 
মাদুরোবিরোধী বিক্ষোভ তুঙ্গে ওঠার পর গত বুধবার নিজেকে অন্তর্বর্তীকালীন প্রেসিডেন্ট ঘোষণা করেন ৩৫ বছর বয়সী বিরোধী নেতা হুয়ান গুইদো। সঙ্গে সঙ্গে তাকে স্বীকৃতি দেয় যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা ও দক্ষিণ আমেরিকার কিছু দেশ। এর বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছে রাশিয়া, চীন, ইরান ও তুরস্কসহ আরো কিছু দেশ।
 
জাতিসংঘ এক প্রতিবেদনে বলেছে, ২১ জানুয়ারি থেকে শুরু হওয়া সরকার বিরোধী কর্মসূচিতে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সঙ্গে গুইদো সমর্থকদের সংঘর্ষে এখন পর্যন্ত ৪০ জন নিহত হয়েছেন। আটক হয়েছেন অন্তত দুই শতাধিক আন্দোলনকারী।

ডেইলি বাংলাদেশ/এলকে