Alexa ভাইকে পড়াতে গিয়ে বোনের সর্বনাশ করলেন শিক্ষক

ঢাকা, বুধবার   ১৩ নভেম্বর ২০১৯,   কার্তিক ২৮ ১৪২৬,   ১৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

Akash

ভাইকে পড়াতে গিয়ে বোনের সর্বনাশ করলেন শিক্ষক

খুলনা প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৭:১৮ ৩ নভেম্বর ২০১৯  

ছবি : ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি : ডেইলি বাংলাদেশ

ভাইকে পড়ানোর সুযোগে বাড়িতে অবাধ আসা যাওয়া ছিল শিক্ষকের। এই সুযোগে বাড়িতে একা পেয়ে ওই ভাইয়ের প্রতিবন্ধী কিশোরী বোনের সর্বনাশ করেন ওই লম্পট শিক্ষক।

আলোচিত এই ঘটনাটি ঘটেছে বাগেরহাট জেলার সদর থানার জয়গাছি গ্রামে। এই ঘটনায় অভিযুক্ত শিক্ষক রনি পাইককে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব।

রোববার দুপুরে খুলনা মহানগরীর লবনচরার র‌্যাব-৬ কার্যালয়ে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানান অধিনায়ক সৈয়দ মোহাম্মদ নূরুস সালেহীন ইউসুফ।

এর আগে শনিবার রাত ১০টার দিকে বাগেরহাট জেলার মোড়লগঞ্জের মহিষপুরা বাজার থেকে রনিকে গ্রেফতার করা হয়। 

সৈয়দ মোহাম্মদ নূরুস সালেহীন ইউসুফ জানান, গ্রেফতার রনি পাইক বাগেরহাট জেলার সদর থানাধীন জয়গাছি গ্রামের বাসিন্দা। সে একই গ্রামের ওই প্রতিবন্ধী কিশোরীর ভাইকে বাসায় গিয়ে পড়াত। এইসূত্রে কিশোরীদের বাড়িতে নিয়মিত যাতায়াত ছিল রনির। পরবর্তীতে তার আচার-আচরণ সন্দেহজনক হওয়ায় তাকে বাড়িতে আসতে বারণ করা হয়েছিল।

তিনি আরো জানান, গত ২৮ আগস্ট রনি পাইক তার প্রতিবেশীদের অনুপস্থিতির সুযোগে প্রতিবন্ধী কিশোরীকে বাড়িতে একা পেয়ে তার সর্বনাশ করে। এভাবে একাধিকবার রনি বিভিন্ন সময়ে ওই কিশোরীর সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক চালিয়ে যায়। কিশোরী বাক প্রতিবন্ধী হওয়ায় বিষয়টি তার বাবা মাকে ভালোভাবে বুঝাতে ব্যর্থ হয়। গত ৮ অক্টোবর মেয়েটি শারীরিকভাবে বেশি অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে বাগেরহাট মুক্তি ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসক তার শারীরিক অবস্থা পর্যবেক্ষণ করে বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে কিশোরীকে ছয়সপ্তাহের অন্তঃসত্ত্বা বলে জানান। 

এ বিষয়ে কিশোরীর মা ও বাবা তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে সে ইশারা ইঙ্গিতের মাধ্যমে রনি পাইকের কথা বলে। এরপর মা তাকে এলাকার অনেকের ছবি দেখালে সে রনি পাইককের ছবি দেখে শনাক্ত করে। পরে কিশোরীর মা রনি পাইককে আসামি করে বাগেরহাট সদর থানায় একটি মামলা করেন। মামলা হওয়ার পর থেকে রনি পলাতক ছিল। 

র‌্যাব-৬ এর গোয়েন্দা দল রনিকে গ্রেফতারের জন্য চেষ্টা করে। শনিবার রাত ১০টায় বাগেরহাট জেলার মোড়লগঞ্জের মহিষপুরা বাজার থেকে রনিকে গ্রেফতার করা হয়। 
 

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএইচ