Exim Bank Ltd.
ঢাকা, শনিবার ২০ অক্টোবর, ২০১৮, ৫ কার্তিক ১৪২৫

বয়স সত্তর পেরোনোর পর গর্ভধারণ!

মেহেদী হাসান শান্তডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম
বয়স সত্তর পেরোনোর পর গর্ভধারণ!
ছবি: সংগৃহীত

গর্ভধারণ এবং সন্তান জন্মদান ,সব বয়সীদের নারীদের স্বাস্থ্যেকেই বেশ ঝুঁকির মধ্যে ফেলে দেয়। কিন্তু ভারতের রাজ দেবী লোহানকে হয়তো অন্যসব মায়েদের থেকেও বেশি ঝুঁকি নিতে হয়েছে। ২০০৮ সালে লোহান যখন তাঁর একমাত্র সন্তানের জন্ম দেন, বয়স তখন ঠিক ৭০ ছুঁয়েছে। ওইসময়ের রেকর্ড অনুযায়ী তিনিই ছিলেন পৃথিবীর সবথেকে বেশী ব্যসে গর্ভধারণকারী মা।

বাচ্চা জন্মদানের পরপরই এই ভারতীয় মহিলাকে অনেকগুলো কেমোথেরাপি নিতে হয়েছে ক্যান্সারের চিকিৎসার জন্য। ক্ষতিগ্রস্ত জরায়ু ঠিক করতে এবং টিউমার অপসারণের জন্য তাকে তিন তিনবার অপারেশন করানো হয়। এখনো তিনি মাঝে মাঝেই পাকস্থলীর পীড়ায় ভুগে থাকেন।

এত বেশি ব্যসে এসে গর্ভ ধারণ প্রসঙ্গে রাজ দেবী বলেন, আমার ডাক্তার আমাকে কোন বিপদের কথা বলেননি, তাই আমিও জানতাম না সত্যিই আমার কোন ঝুঁকি রয়েছে। যদিও তার বর্তমান ডাক্তার মনে করেন রাজ দেবীর স্বাস্থ্যগত সমস্যাগুলোর পেছনে তার গর্ভধারণ এবং তার পরবর্তী জটিল অপারেশনগুলোই দায়ী।

বৃদ্ধ মহিলাদের সন্তান নেয়ার ঘটনা ভারতে এটিই নতুন নয়। মাঝেইমধ্যেই আন্তর্জাতিক পত্রিকাগুলোর হেডলাইনে জায়গা পায় এসব গল্প। ৭২ বছর ব্যসে সন্তান নিয়ে বিশ্বের সবচেয়ে বেশি বয়সী মায়ের রেকর্ডটিও এখন ভারতেরই এক মাইয়ের দখলে।

এসব মহিলাদের সাহায্যকারী ডাক্তারদের মতে, গর্ভধারণ যেকোনো ব্যসের নারীর জন্যই অধিকার স্বরূপ। কিন্তু এরকম গর্ভধারণের ঝুঁকির বিবেচনায় এর নীতিনৈতিকতা সম্পর্কে সারা বিশ্বেই তোলপাড় চলছে।

সমালোচকদের মতে এইসব ডাক্তাররা ব্যক্তিগত খ্যাতি এবং যশ লাভের আশাতেই এমন বয়স্ক নারীদের জীবনকে ঝুঁকির মুখে ফেলে দিচ্ছেন। শুধু এই বৃদ্ধা মায়েরাই নয়, যেসব তরণীরা তাদের ডিম্বাণু দান করে সাহায্য করেন এবং সদ্যজাত সন্তান; এদের জীবনও বিপন্ন হওয়ার সমূহ সম্ভাবনা থাকেএ ধরণের সার্জারিতে। ডিম্বাণু ডোনেট করতে গিয়ে এখন পর্যন্ত অন্তত দুইজন তরুণীর মৃত্যুর খবর পাওয়া যায়।

এই ধরণের সন্তান জন্মদান প্রক্রিয়াকে বলা হয় ইন-ভিট্রো ফারটিলাইজেসন বা আইভিএফ। ভারতে প্রথম আইভিএফ বেবির জন্ম হয় মোটামুটি ৪০ বছর আগে। তখন থেকে এ ধরণের চর্চা দেশটিতে ক্রমাগত বেড়েই যাচ্ছে। পৃথিবীর অন্যতম জনবহুল দেশটিতে এখন যেকোনো ব্যসের নিঃসন্তান দম্পতিরা আইভিএফের দিকে ঝুঁকছেন। এই ক্রমবর্ধমান আইভিএফ শিল্পকে আটকানোর জন্য কোন বিশেষ আইন বা বয়সসীমা বেঁধে দেয়া নেই।

উত্তর ভারতের শহর হিসার এ অবস্থিত জাতীয় টেস্ট টিউব বেবি সেন্টার এরকম অনেক বৃদ্ধাকে সন্তান ধারণে সাহায্য করে আসছে। রাজ দেবী লোহানের আট বছর বয়সী কন্যার মতো, গত এপ্রিলে বাহাত্তর বছর ব্যসে দিলজিত কৌড় নামের এক নারী একটি পুত্র সন্তান জন্ম দেন। দুজনেই এই প্রতিষ্ঠান থেকে সেবা নিয়েছিলেন।

দিলজিতের বিয়ে হয় ৪৬ বছর আগে। তিনি ও তার ৭৯ বছর বয়স্ক স্বামী তাদের পুত্র সন্তানের নাম রাখেন `আরমান`; যার অর্থ হচ্ছে আশা। দিলজিত বলেন, অনেক লোকই আমাকে অনেকবার সন্তান দত্তক নেয়ার পরামর্শ দিয়েছে, কিন্তু আমাই কখনোই অন্য কারো গর্ভে জন্ম নেয়া সন্তানের মা হতে চাইনি। এটা ভগবানের উপহার। তিনিই এই অসাধ্যকে সাধন করে আমাদের কৃতার্থ করেছেন।

দিলজিতের এই মিরাকলের পেছনে ছিলেন ড. অনুরাগ বিষ্ণু নামের একজন ভ্রূণ বিশেষজ্ঞ। তিনি পঞ্চাশ এর ঊর্ধ্ববয়সি ১০০ এর বেশি নারীকে সন্তান জন্মদানে সাহায্য করার দাবী করেন। ডঃ অনুরাগের প্রশ্ন, একজন পুরুষ যদি ৬০-৭০ বছর বয়সে এসেও বাবা হতে পারেন, তাহলে একজন নারী কেন মা হতে পারবেন না? তিনি একজন মধ্যবয়সী বা একজন বৃদ্ধার গর্ভধারণের ক্ষেত্রে খুব বেশি ঝুঁকি রয়েছে বলে মনে করেন না। যদিও অনেক ডাক্তারই মনে করেন, সন্তান জন্মদানের ক্ষেত্রে অবশ্যই মহিলাদের একটি নির্দিষ্ট বয়সসীমা মেনে চলা উচিৎ।

ভারতীয় এসিস্টেন্ট রিপ্রডাকশন সোসাইটির সভাপতি ডঃ নরেন্দ্র মালহোত্রার মতে, ৭২ কখনোই সন্তান নেয়ার জন্য সঠিক বয়স হতে পারে না। ৭২ বছর বয়সে এসে কাউকে সন্তান নিতে সাহায্য করার মানে হচ্ছে তাকে মৃত্যুর ঝুঁকিতে ফেলে দেয়া। বিজ্ঞান অবশ্যই বৃদ্ধ বয়সে সন্তান জন্মদানে সহায়তা করতে পারে, তবে সমাজেরই ঠিক করা উচিত বিজ্ঞানকে কতটুকু কিভাবে ব্যবহার করতে হবে।

শুধু বৃদ্ধ মায়েরাই এই খবরের শিরোনাম হলেও পরদার আড়ালেই থেকে যান কিছু তরুণি, যারা এই বৃদ্ধ মায়েদের ডিম্বাণু ডোনেট করে সহায়তা করে থাকেন। তাদের ছাড়া এই অসাধ্য কখনোই সাধন করা যেত না।

সুভাস চন্দ্র নামের এক এজেন্ট বলেন, ডোনার রিক্রুটমেন্ট করতে আসলে আমাদের কোন জটিলতা বা কোন পরীক্ষা নিরীক্ষার ভেতর দিয়ে যেতে হয় না। কারণ একজন তরুণী কোন ফ্যাক্টরিতে কাজ করে মাসে মাত্র ৭৫ ডলার আয় করতে পারেন যেখানে ডিম্বাণু ডোনেশন করে মাত্র ১০ দিনে ৫২৫ ডলার আয় করা সম্ভব। কিন্তু এই প্রক্রিয়ায় তাদের জীবনহানি হওয়ার সমূহ সম্ভাবনা রয়েছে। সত্যিই কি ৫২৫ ডলার এরকম একটি ঝুঁকিপূর্ণ কাজের জন্য যথেষ্ট?

২০১৭ সালে সুষমা পাণ্ডে নামক এক ডিম্বাণু ডোনারের মৃত্যু হয় মুম্বাইয়ের একটি হাসপাতালে। তার বয়স ছিলও মাত্র সতেরো। এরকম কমবয়সী মেয়েদের এই ঝুঁকিপূর্ণ অপারেশন করানোর পরেও হাসপাতালটির বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থাই নেয়া হয়নি।

চার বছর বাদে উমা শেরপা নামের একজন ২৪ বছর বয়সী তরুণী একই কারণে মৃত্যু বরণ করেন। তার সাথে মাত্র ৪৪৮ ডলারের চুকটি করা হয়েছিল। কিন্তু ডিম্বাণু বের করার ধকল সহয় করতে না পারায় মারা যান উমা। এই পশ্চিমবঙ্গের গৃহকরমীর স্বামী সঞ্জয় রানা বলেন, যখন আমি তাকে জাগাতে চাইছিলাম, বুঝতে পারছিলাম কিছু একটা ঠিক নেই। আমি চিৎকার করে ডাক্তারকে ডাকতে লাগলাম, কিন্তু তিনি এলেন আধা ঘণ্টা পরে। ততক্ষণে সব শেষ।

সত্যি কথা বলতে এই জীবন সায়াহ্নে এসেও যে সব বৃদ্ধারা একটি সন্তানের ইচ্ছায় মুখিয়ে থাকেন তাদের সেই অভিলাষের কাছে এসব ঝুঁকি কোন পাত্তাই পায় না। রাজ দেবী লোহানের মেয়ে নাভীনের বয়স এখন আট। সাজ এখন পাকস্থলীর জটিল সমস্যায় ভুগছেন। তার ডাক্তার ডঃ প্রবীণ শর্মা বলেন, আমার মনে হয় এত বেশি বয়সে সন্তান নেয়াই রাজ দেবীর স্বাস্থ্যগত সমস্যার প্রধান কারন। তার শরীরে হরমনাল ডিস্ফাংশন বেশ লক্ষণীয়। যদিও ডঃ বিষ্ণু এরকম সম্ভাবনাকে উড়িয়ে দেন।

দিলজিত কৌড় বলেন, আমি শারীরিকভাবে এখন খুব দুর্বল। খুব কঠিন সময়য় যাচ্ছে আমার জন্য। মাঝে মাঝেই আমার বাচ্চা চিৎকার করে কাঁদে। তখন তাকে সামলানো আমার জন্য বেশ মুশকিল হয়ে ওঠে।

তার এবং তার স্বামীর মৃত্যুর পর তাদের সন্তানের দেখ ভাল কে করবেন এমন প্রশ্নের জবাবে দিলজিত বলেন, আমাকে এগুলো বলবেন না। আমি এসব নিয়ে ভাবতে চাই না। ভগবানই আমার সন্তানের অভিভাবক। তিনিই আমার ছেলেকে দেখে রাখবেন।

ভারতের মতো অতিরিক্ত জনবহুল একটি দেশে এরকম ঝুঁকিপূর্ণ সন্তান উৎপাদন প্রক্রিয়া কতটা যুক্তিযুক্ত সেটি অবশ্যই ভাবনার বিষয়। নিঃসন্তান থাকার সামাজিক ও মানসিক যাতনাই এসব বৃদ্ধা নারীদের ঝুঁকিপূর্ণ এই প্রক্রিয়ার দিকে পা বাড়াতে উৎসাহী করে তুলছে। তাদের সন্তানদের জীবনও হয়ে পড়ছে অনিশ্চিত।

অন্যদিকে, ডিম্বাণু দানের কোন আইনি বয়সসীমা না থাকায় অনেক কম বয়সী দরিদ্র যুবতীরা নামমাত্র টাকার বিনিময়ে এই মৃত্যু ফাঁদে পা দিচ্ছে। এসব ঘটনা আমাদের তৃতীয় বিশ্বের আর্থ- সামাজিক দৈন্যতার অন্ধকার ফলাফল সমূহকে চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দেয়। রাজ দেবী লোহান এবং দিলজিত কৌড়ের মত নারীরা মা হবার আজন্ম বাসনা চরিতার্থ করতে গিয়ে নিজেদের ও তাদের নবজাতকদের যে হুমকির মুখে ফেলে দিচ্ছেন সেটা আসলে কতটা বিবেকের পরিচয়? সত্যিই কি মাতৃত্বের হাহাকার সব ঝুঁকির বাধ ভেঙ্গে দেবার ক্ষমতা রাখে?

আল জাজিরা অবলম্বনে

ডেইলি বাংলাদেশ/টিআরএইচ

আরোও পড়ুন
সর্বাধিক পঠিত
আজো হিমঘরে সন্তানের প্রতীক্ষায় ‘বাবা’!
আজো হিমঘরে সন্তানের প্রতীক্ষায় ‘বাবা’!
আইয়ুব বাচ্চু মারা গেছেন
আইয়ুব বাচ্চু মারা গেছেন
‘স্বামীকে ছেড়ে’ জোভানের সংসার করতে চান মিম!
‘স্বামীকে ছেড়ে’ জোভানের সংসার করতে চান মিম!
দুই স্বামীকে ‘ছেড়ে’ মন্ট্রিলে দেখা মিলল তিন্নির!
দুই স্বামীকে ‘ছেড়ে’ মন্ট্রিলে দেখা মিলল তিন্নির!
বিবাহবার্ষিকীতে স্বামীকে স্ত্রীর সেরা উপহার!
বিবাহবার্ষিকীতে স্বামীকে স্ত্রীর সেরা উপহার!
‘তিন ভাই’ একসঙ্গে আমাকে ধর্ষণ করেছিল’
‘তিন ভাই’ একসঙ্গে আমাকে ধর্ষণ করেছিল’
যেভাবে প্রথম বুবলীর ‘ভাই’
যেভাবে প্রথম বুবলীর ‘ভাই’
স্ত্রী ফিরে দেখে বাসায় অন্য নারী!
স্ত্রী ফিরে দেখে বাসায় অন্য নারী!
‘ওয়েব সিরিজে ভরপুর নগ্নতা’ দেখার কেউ নেই!
‘ওয়েব সিরিজে ভরপুর নগ্নতা’ দেখার কেউ নেই!
প্রেমিকের কবরে কনের সাজে প্রেমিকার কান্না
প্রেমিকের কবরে কনের সাজে প্রেমিকার কান্না
দাম শুনলে চমকে যাবেন যে কেউই!
দাম শুনলে চমকে যাবেন যে কেউই!
মৃত্যুর আগে কোথায় ছিলেন আইয়ুব বাচ্চু?
মৃত্যুর আগে কোথায় ছিলেন আইয়ুব বাচ্চু?
দুলাভাইয়ের কাছে শ্যালিকার আবদার!
দুলাভাইয়ের কাছে শ্যালিকার আবদার!
এক উঠোনে মসজিদ-মন্দির, প্রার্থনায় নেই বিবাদ
এক উঠোনে মসজিদ-মন্দির, প্রার্থনায় নেই বিবাদ
১ কোটি টাকা চেয়েছিলেন অনন্ত
১ কোটি টাকা চেয়েছিলেন অনন্ত
‘বেঁচে আছেন বাচ্চু?’ এ কী শোনালেন!
‘বেঁচে আছেন বাচ্চু?’ এ কী শোনালেন!
এবার মেয়েকে নিয়ে মারাত্মক কথা বললেন ঐশ্বরিয়া!
এবার মেয়েকে নিয়ে মারাত্মক কথা বললেন ঐশ্বরিয়া!
মিলনেই মৃত্যু, কারা ছিলো সেই ‘বিষকন্যা’?
মিলনেই মৃত্যু, কারা ছিলো সেই ‘বিষকন্যা’?
বন্ধুর ‘অকাল প্রয়াণে’ যা বললেন হাসান
বন্ধুর ‘অকাল প্রয়াণে’ যা বললেন হাসান
মাহি-মান্নার গোপন ফোনালাপ ফাঁস
মাহি-মান্নার গোপন ফোনালাপ ফাঁস
শিরোনাম:
প্রধানমন্ত্রী দেশে ফিরবেন আজ প্রধানমন্ত্রী দেশে ফিরবেন আজ প্রতিমা বিসর্জনে আজ শেষ হচ্ছে দুর্গোৎসব প্রতিমা বিসর্জনে আজ শেষ হচ্ছে দুর্গোৎসব