ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মাদরাসাছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যা, অধ্যক্ষসহ গ্রেফতার ৪

ঢাকা, বুধবার   ০৮ এপ্রিল ২০২০,   চৈত্র ২৫ ১৪২৬,   ১৪ শা'বান ১৪৪১

Akash

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মাদরাসাছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যা, অধ্যক্ষসহ গ্রেফতার ৪

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২০:৪৮ ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০   আপডেট: ২০:৪৯ ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০

মাদরাসাছাত্রীকে ধর্ষণ-হত্যার অভিযোগে গ্রেফতার অধ্যক্ষ

মাদরাসাছাত্রীকে ধর্ষণ-হত্যার অভিযোগে গ্রেফতার অধ্যক্ষ

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগরে এক কিশোরী মাদরাসাছাত্রীর রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। পরিবারের সদস্যদের ধারণা তাকে ধর্ষণের পর হত্যা করে ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে।

সোমবার রাতে ওই উপজেলার সলিমগঞ্জ জান্নাতুল ফেরদাউস মহিলা মাদরাসার হোস্টেলের সিঁড়িঘর থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় মাদরাসার অধ্যক্ষসহ চার শিক্ষককে আটক করেছে পুলিশ।

গ্রেফতাররা হলেন- ওই মাদরাসার অধ্যক্ষ মাওলানা মোস্তফা, শিক্ষক মাওলানা আনোয়ার হোসেন, মাওলানা আল আমীন, হাফেজ মো. ইউনুস মিয়া।

নিহত ছাত্রীর মা বলেন, সোমবার সন্ধ্যায় সেলিম মেম্বার আমার মেয়ের মৃত্যুর খবর দেন। দ্রুত মাদরাসায় গিয়ে দেখি চতুর্থ তলার চিলেকোঠায় মেয়ের মরদেহ ঝুলছে। তার শরীরে ওড়না পেঁচানো ও পা মাটিতে ভাঁজ করা।

তিনি আরো বলেন, আমার মেয়ের দিকে মাদরাসার অধ্যক্ষ মোস্তফা মাওলানার কুদৃষ্টি ছিল। তিনি অনেকবার মেয়েটাকে অনৈতিক সম্পর্কের প্রস্তাব দিয়েছিলেন। প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় আমার মেয়েকে ধর্ষণ করেন। পরে চিলিকোঠায় ঝুলিয়ে রাখেন।

নবীনগর থানার ওসি রনোজিত রায় বলেন, ওই ছাত্রীর মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় ধর্ষণ ও হত্যা মামলা হয়েছে। ওই রাতেই অধ্যক্ষসহ চার শিক্ষককে গ্রেফতার করা হয়েছে। ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন পেলে ধর্ষণের সত্যতা জানা যাবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর