ব্রাজিলের আমদানি শুল্ক সহনীয় পর্যায়ে আনার আহ্বান
SELECT bn_content.*, bn_bas_category.*, DATE_FORMAT(bn_content.DateTimeInserted, '%H:%i %e %M %Y') AS fDateTimeInserted, DATE_FORMAT(bn_content.DateTimeUpdated, '%H:%i %e %M %Y') AS fDateTimeUpdated, bn_totalhit.TotalHit FROM bn_content INNER JOIN bn_bas_category ON bn_bas_category.CategoryID=bn_content.CategoryID INNER JOIN bn_totalhit ON bn_totalhit.ContentID=bn_content.ContentID WHERE bn_content.Deletable=1 AND bn_content.ShowContent=1 AND bn_content.ContentID=128102 LIMIT 1

ঢাকা, শনিবার   ১৫ আগস্ট ২০২০,   শ্রাবণ ৩১ ১৪২৭,   ২৪ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

Beximco LPG Gas

ব্রাজিলের আমদানি শুল্ক সহনীয় পর্যায়ে আনার আহ্বান

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ০১:১৯ ২৩ আগস্ট ২০১৯   আপডেট: ০৮:০৭ ২৩ আগস্ট ২০১৯

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

বাণিজ্য ঘাটতি কমাতে ব্রাজিলের বিদ্যমান আমদানি শুল্ক ৩৫ শতাংশ থেকে কমিয়ে সহনীয় পর্যায়ে আনা কিংবা শূন্য শুল্ক করার জন্য সে দেশের সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি। তিনি বলেন, ব্রাজিলের আমদানি শুল্ক বেশি হবার কারণে প্রত্যাশা অনুযায়ী বাংলাদেশি পণ্য রফতানি সম্ভব হচ্ছে না। ফলে দু’দেশের মধ্যে বাণিজ্য ব্যবধান বেড়েই চলেছে।

বৃহস্পতিবার বাণিজ্য মন্ত্রণালয় থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা জানানো হয়।

এতে জানানো হয়, গত ২০ আগস্ট দক্ষিণ আমেরিকার বাণিজ্যিক জোট ( ব্রাজিল, আর্জেন্টিনা, প্যারাগুয়ে ও উরুগুয়ের সমন্বয়ে গঠিত বাণিজ্যিক জোট) মার্কোসার এ সফরের প্রথম পর্যায়ের দ্বিতীয় দিনে ব্রাজিলের বৃহত্তম ব্যবসায়ী সংগঠন ‘সাও পাওলো চেম্বার অব কমার্সের’ নেতাদের সঙ্গে বৈঠকে এ আহ্বান জানান।

এর আগের দিন গত ১৯ আগস্ট ব্রাজিলের বাণিজ্যমন্ত্রী এবং বৈদেশিক বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রীর সঙ্গে একান্ত বৈঠকেও তিনি ব্রাজিলে বাংলাদেশি পণ্যের শুল্কমুক্ত বা সহনীয় শুল্কে আমদানির কথা উল্লেখ করেন। ওই বৈঠকে টিপু মুনশি জানান, বাংলাদেশ গত অর্থ বছরে (২০১৮-১৯) ব্রাজিলে ১৭৬ দশমিক ৯০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার সমমূল্যের পণ্য রফতানি করেছে। একই সময়ে সে দেশ থেকে বাংলাদেশ আমদানি করেছে ১৫২০ দশমিক ৬০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার সমমূল্যের পণ্য।

একই দিন বাংলাদেশের বাণিজ্যমন্ত্রী ব্রাজিলের পররাষ্ট্রমন্ত্রী, অর্থ উপমন্ত্রী, ব্রাজিল কটন অ্যাসোসিয়েশন, ন্যাশনাল ফেডারেশন অফ ইন্ডাস্ট্রি’র নেতাদের সঙ্গেও বৈঠক করেন।

এসব বৈঠকে টিপু মুনশি উল্লেখ করেন, ব্রাজিলে বাংলাদেশের তৈরি পোশাক, ওষুধসহ বিভিন্ন পণ্যের বিপুল চাহিদা রয়েছে ব্রাজিলে। কিন্তু আমদানি শুল্ক বেশি হবার কারণে প্রত্যাশা অনুযায়ী বাংলাদেশি পণ্য রফতানি সম্ভব হচ্ছে না।

ব্রাজিলের বাণিজ্যমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে টিপু মুনশি বলেন, মার্কোসারের আসন্ন শীর্ষ সম্মেলনে বাংলাদেশের প্রস্তাবিত মুক্ত বাণিজ্য চুক্তি (এফটিএ) উপস্থাপন করা হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএইচ