Alexa বোল্ট যখন ফুটবলার

ঢাকা, বুধবার   ১৭ জুলাই ২০১৯,   শ্রাবণ ২ ১৪২৬,   ১৩ জ্বিলকদ ১৪৪০

বোল্ট যখন ফুটবলার

 প্রকাশিত: ১৯:১৭ ২২ মার্চ ২০১৮  

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

সর্বকালের দ্রুততম মানব উসাইন বোল্ট ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের অন্ধ সমর্থক। এক সময় সেই ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে খেলতো বলেই কিনা ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোর বড় সমর্থক বোল্ট। জ্যামাইকান বজ্রবিদ্যুৎ নিজেই বললেন, তিনি ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোর অনেক বড় সমর্থক।

রিয়াল মাদ্রিদের পর্তুগিজ তারকাকে খুব ভালো লাগে তার। তবে মজার ব্যাপার হলো, রোনালদো ভক্ত দাবি করলেও বোল্ট কিন্তু নিজেকে তুলনা করলেন লিওনেল মেসির সঙ্গে। বললেন, তিনিও মেসির মতোই প্রকৃতিপ্রদত্ত প্রতিভাবান!

গত বছর লন্ডন বিশ্ব অ্যাথলেটিকস চ্যাম্পিয়নশিপের মধ্যদিয়ে ট্র্যাক অ্যান্ড ফিল্ডকে বিদায় জানিয়েছেন বোল্ট। এরপর থেকেই শোনা যাচ্ছে, প্রিয় ক্লাব ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের হয়ে ফুটবল ক্যারিয়ার শুরু করবেন তিনি। সেই লক্ষ্যেই এগিয়ে যাচ্ছেন ৩১ বছর বয়সী বোল্ট। নিজের ফুটবল প্রতিভার প্রমাণ এরই মধ্যে দিয়েছেন। এবার শুরু করতে যাচ্ছেন পুরোদস্তুর ফুটবলার বনে যাওয়ার মিশন। জার্মান ক্লাব বরুসিয়া ডর্টমুন্ডের হয়ে নিতে যাচ্ছেন কোচিং দীক্ষা।

 

তার আগে বুধবার সুইজারল্যান্ডের বাসেলে একটা প্রীতি ম্যাচ খেললেন বোল্ট। যে ম্যাচে তার প্রতিপক্ষ ছিলেন আর্জেন্টাইন কিংবদন্তি ডিয়েগো ম্যারাডোনা। তবে খেলোয়াড়ের ভূমিকায় নয়, আর্জেন্টাইন ফুটবল ঈশ্বর ছিলেন বোল্টের প্রতিপক্ষ দলের কোচ। আর বোল্টের দলের কোচ ছিলেন হোসে মরিনহো। যিনি বোল্টের প্রিয় ক্লাব ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের কোচ।

ইউনাইটেডের হয়ে ফুটবল খেলতে চান, বললেই তো আর হয় না। তার আগে কোচকে পটাতে হবে না। বোল্ট কোচ মরিনহোর মনটা জয় করার চেষ্টা করেছেন মাঠে নিজের দ্রুতি ছড়ানো পারফরম্যান্স দিয়েই।

শুধু গতিই নয়, ৮টি অলিম্পিক ও ১১টি বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপের সোনাজয়ী সর্বকালের সেরা স্প্রিন্টার প্রমাণ করেছেন, ড্রিবলিং পাসিংয়েও তিনি দারুণ। কোচ মরিনহো চাইলে তার উপর ভরসা রাখতে পারেন।

ফ্রান্সের ১৯৯৮ বিশ্বকাপজয়ী দলের সদস্য মার্শেল দেশাই, ডাচ কিংবদন্তি প্যাট্রিক ক্লাইভার্টরাও নিজেদের ফুটবল কারিশমা দেখিযেছেন আরেকবার।

ম্যারাডোনা মরিনহোর কোচ এবং বোল্ট-ক্লাইভার্টের মতো খেলোয়াড় খেলেছেন যে ম্যাচে, সে ম্যাচে গোলের বন্যা বয়ে যাবে, সেটাই স্বাভাবিক। তবে গোলের ফোয়ারা ছুটলেও কোনো দলই জয় বা পরাজয়ের স্বাদ পাননি। ৫ বনাম ৫ খেলোয়াড়ের ম্যাচটা ড্র হয়েছে ১১-১১ গোলে।

ম্যাচ শেষে অমনিস্পোর্টসকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে বোল্ট বলেন, মেসি খুবই প্রতিভাবান। তবে এতো বছর ধরে যা শুনে আসছি, ক্রিস্তিয়ানোকে এ পর্যন্ত আসতে অনেক পরিশ্রম করতে হয়েছে। কিন্তু আমার গতিটা জন্মগত। এবং প্রতিভাও ছিল অনেক, ঠিক মেসির মতো।

এরপর বোল্ট আরও একবার জানিয়ে দিলেন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের হয়ে তার খেলার স্বপ্নের কথা। ডর্টমুন্ডের হয়ে দক্ষতা পরীক্ষার পর ইউনাইটেড কোচ মরিনহোর কাছে যাবে দাবি করে বলেছেন, আমি দলটির হয়ে (ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড) খেলতে চাই। অনুশীলনের পর অবশ্যই তাকে (মরিনহোকে) বলতে পারব আমি এটা পারি, ওটা পারি।

ডেইলি বাংলাদেশ/সালি