.ঢাকা, সোমবার   ২৫ মার্চ ২০১৯,   চৈত্র ১১ ১৪২৫,   ১৮ রজব ১৪৪০

বোতাম ফুল

মঞ্জুর মোর্শেদ রুমন ডেইলি-বাংলাদেশ

 প্রকাশিত: ১৩:৩১ ১৫ মে ২০১৮  

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

মধ্য আমেরিকার ব্রাজিল, পানাম এবং গুয়েতেমালা অঞ্চলের স্থানীয় হলেও বোতাম ফুল বর্তমানে বিশ্বব্যাপী জন্মায়। বৈজ্ঞানিক নাম Gompherena globosa। এ ফুল Amaranthaceae পরিবারের Gomphrena গণের একটি উদ্ভিদ। ইংরেজিতে এ ফুলকে বলা হয় `ব্যাচেলর বাটন` আর বাংলায় বলা হয় `বোতাম ফুল`। উলের কাপড়ের উপরে যে ছোট ছোট বোতামগুলো থাকে, বেগুনী, সাদা এই ফুলগুলো দেখতে অনেকটা সেই রকমই মনে হয় একে ইংরেজিতে বলা হয় `Bachelor Button` আর বাংলায় বলা হয় `বোতাম ফুল`।

গ্রীষ্ম এবং শরতের প্রারম্ভে ফুল ফোটে। ঝোপ আকৃতির এ ফুল গাছ ৫০-৬০ সেমি পর্যন্ত উঁচু হয়। পাতা সরু, ২ সেমি চওড়া। দেখতে অনেকটা মেহেদি পাতার মত। একাধিক রঙের ফুল ফোটে। বেগুনী, হালকা বেগুনী ও সাদা মিলিয়ে অসংখ্য রঙের বাহারি বোতাম ফুল দৃষ্টিনন্দন ও নয়নাভিরাম। ফুল ঘ্রাণহীন। পুষ্প মস্তকের মধ্যে সত্যিকারের ফুল আকারে ছোট এবং অস্পষ্ট হয়ে থাকে। ফুটন্ত ফুলের সৌন্দর্য বেশ কয়েকদিন স্থায়ী থাকে। তারপর ঝরে যায়। এই ফুলের বংশ বিস্তার হয় বীজের দ্বারা।

নানান ভেষজ ব্যবহারের মধ্যে- ব্যথা উপশম বা শল্যকরণের পূর্বে অবশ করায় এর ব্যাবহার সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য ও বহুল প্রচলিত। গ্রামাঞ্চলে মেয়েদের নাক ও কানফুটানোর আগে এই ফুল ডাটা সমেত বেটে নাকে ও কানে লাগানো হয়। এতে করে সুঁই ফুটানোর সময় ব্যাথা হয় না।

ভাঙ্গা হাড় জোড়া লাগাতেও এর ব্যাবহার হয়।

লেখক: শিক্ষার্থী, কবি নজরুল সরকারি কলেজ।