বৈরুতে জরুরি অবস্থা, কর্মকর্তাদের ঘিরে রেখেছে সেনাবাহিনী

ঢাকা, বুধবার   ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০,   আশ্বিন ১৫ ১৪২৭,   ১২ সফর ১৪৪২

বৈরুতে জরুরি অবস্থা, কর্মকর্তাদের ঘিরে রেখেছে সেনাবাহিনী

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২৩:৫১ ৫ আগস্ট ২০২০  

লেবাননের বৈরুতে বিস্ফোরণের পর ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা এক ব্যক্তিকে উদ্ধার করছে। ছবি সংগৃহীত

লেবাননের বৈরুতে বিস্ফোরণের পর ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা এক ব্যক্তিকে উদ্ধার করছে। ছবি সংগৃহীত

লেবাননের বৈরুতে দুই সপ্তাহের জন্য জরুরি অবস্থা ঘোষণা করা হয়েছে। রাজধানীর নিরাপত্তার দায়িত্ব দেয়া হয়েছে সেনাবাহিনীকে। বুধবার মন্ত্রিসভার জরুরি বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। অনুমোদ দেয়া হয়েছে ৬ কোটি ৬০ লাখ মার্কিন ডলারের জরুরি তহবিল। 

মঙ্গলবার বৈরুতের বন্দরের ১২ নম্বরে হ্যাঙ্গারে রাখা অ্যামোনিয়াম নাইট্রেটের ভয়াবহ বিস্ফোরণ হয়। এতে শতাধিক মানুষ নিহত হন। আহত হয়েছেন আরো চার হাজারের বেশি মানুষ। ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে অসংখ্য ঘরবাড়ি, স্থাপনা। বাস্তুচ্যুত হয়েছে কমপক্ষে তিন লাখ মানুষ। ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ ৫শ’ কোটির বেশি বলে জানিয়েছে শহর কর্তৃপক্ষ। 

ঘটনা অনুসন্ধানে এরইমধ্যে তদন্ত শুরু হয়েছে। ৫ দিনের মধ্যে তদন্ত কমিটিকে প্রতিবেদন দেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। বন্দরের হ্যাঙ্গারের দায়িত্বে থাকা কর্মকর্তাদের শিগগিরই গৃহবন্দি করা হবে জানানো হয়েছে। তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত তাদের গৃহবন্দি রাখার বিষয়টি দেখভালের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে সেনাবাহিনীকে। আইনমন্ত্রী, প্রধানমন্ত্রী এবং সশস্ত্র বাহিনীর প্রধানদের নিয়ে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

বিস্ফোরণের পর বন্দর কর্মকর্তারা প্রশ্নের মুখে পড়েছেন। বন্দরের মহাপরিচালক জানিয়েছেন আদালতের নির্দেশে তারা অ্যামোনিয়াম নাইট্রেট গুদামে রেখেছেন। বন্দর মহাপরিচালক হাসান কোরাইতেম জানান, কাস্টমস কর্তৃপক্ষ, জাতীয় নিরাপত্তা বিভাগ কর্তৃপক্ষকে নাইট্রেটগুলো সরিয়ে নেয়ার জন্য অনুরোধ জানিয়েছে। কিন্তু কর্তৃপক্ষ কোনো ব্যবস্থা নেয়নি।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএ