Alexa বেড়েই যাচ্ছে পেঁয়াজের ঝাঁজ

ঢাকা, সোমবার   ২১ অক্টোবর ২০১৯,   কার্তিক ৫ ১৪২৬,   ২১ সফর ১৪৪১

Akash

বেড়েই যাচ্ছে পেঁয়াজের ঝাঁজ

শাহজাদা এমরান, কুমিল্লা ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১০:১১ ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯   আপডেট: ১৫:১৫ ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

এক মাসের ব্যবধানে দ্বিগুণের বেশি দামে বিক্রি হচ্ছে পেঁয়াজ। একমাসে আগেও কুমিল্লার বাজারে কেজি প্রতি ৩০ টাকায় পেঁয়াজ বিক্রি হয়েছে। এক মাসের ব্যবধানে বাজারে এখন এই পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৬৫ টাকা কেজি দরে। 

খুচরা বাজারের বিক্রেতারা জানান, ভারত থেকে আবারো নতুন পেঁয়াজ আমদানি করা হবে। তাতে দুই সপ্তাহের মধ্যে দাম আরো বাড়তে পারে। 

সরেজমিনে কুমিল্লার রাজগঞ্জ, চকবাজার, বাদশা মিয়ার বাজার, রানীর বাজার, টমছমব্রিজ বাজারসহ নগরীর একাধিক খুচরা বাজারে ঘুরে ক্রেতা বিক্রেতাদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, অধিকাংশ খুচরা বিক্রেতা পেঁয়াজের দাম বাড়ার কারণ জানেন না। 

রাজগঞ্জ বাজারের মুদি দোকানী বেলায়েত জানান, আসলে পেঁয়াজের দাম কেন বাড়ছে তার সঠিক কারণ জানি না। এ বিষয়ে ভালো বলতে পারে চকবাজার পাইকারি ব্যবসায়ী ও আড়ৎদাররা।

কুমিল্লায় মুদি মালামালের পাইকার বাজার বলে খ্যাত চকবাজারের পাইকাররা জানান, প্রতিবেশী দেশ ভারতে যে পরিমাণ পেয়াজ উৎপাদন হয় এ বছর তার থেকে কম উৎপাদন হওয়ায় দেশটির নিজস্ব চাহিদা মিটিয়ে আর প্রতিবেশী দেশগুলোতে রফতানি করা সম্ভব হচ্ছে না। ফলে ভারত থেকে আমদানি কমে যাওয়ায় বাংলাদেশে পেঁয়াজের দাম বেড়েছে। এতে দেশের প্রতিটা খুচরা বাজারে প্রভাব পড়েছে।

চক বাজারের ব্যবসায়ী আমানত উল্লাহ বলেন, ভারতের কয়েকটি রাজ্যে বন্যার কারণে পেঁয়াজ উৎপাদন ক্ষতিগ্রস্থ হয়। নিজেদের বাজার স্থিতিশীল রাখতে পেঁয়াজের রফতানি মূল্য টন প্রতি ৩০০ ডলার থেকে বাড়িয়ে ৮৫২ ডলার নির্ধারণ করে দেশটি। এর প্রভাবে কয়েকদিনে হিলি বন্দর দিয়ে পেঁয়াজ আমদানি প্রায় বন্ধের পথে।

আমদানি ও পাইকারি পর্যায়ে দাম বৃদ্ধির প্রভাব ভালোভাবেই পড়েছে খুচরা বাজারে। কুমিল্লা নিউমাকের্টে পেঁয়াজ কিনতে আসা আবদুল ওয়াহিদ বলেন, পেঁয়াজ একটি নিত্যপণ্য। এমন নিত্যপণ্যর দাম যদি পনের দিন কিংবা মাসের ব্যবধানে দ্বিগুণের চেয়ে বেশি হয় তাহলে কম আয়ের মানুষকে খুব বিপদে পড়তে হয়। শুনেছি দুই সপ্তাহ পর দাম আরো বাড়বে।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএস