.ঢাকা, বুধবার   ২০ মার্চ ২০১৯,   চৈত্র ৫ ১৪২৫,   ১৩ রজব ১৪৪০

সুনামগঞ্জে সড়ক সংস্কারে বাধা

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি

 প্রকাশিত: ১৪:২৭ ৯ নভেম্বর ২০১৮   আপডেট: ১৪:২৭ ৯ নভেম্বর ২০১৮

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

সুনামগঞ্জের ধর্মপাশা-জয়শ্রী পর্যন্ত ১০কিলোমিটার সড়কের সংস্কার কাজ মামলা-সংক্রান্ত জটিলতার কারণে র্দীঘদিন ধরে আটকে আছে।  এতে জয়শ্রী,সুখাইড় রাজাপুর উত্তর ও সুখাইড় রাজাপুর দক্ষিণ ইউপিসহ তাহিরপুর,জামালগঞ্জ উপজেলার কয়েক লাখ মানুষকে চলাচলে চরম দুর্ভোগ পোহাচ্ছে। 

২০০৭ সালে বিশ্বব্যাংকের অর্থায়নে রুরাল ট্রান্সপোর্ট ইমপ্রুভমেন্ট প্রজেক্ট (আরটিআইপি) প্রকল্পের আওতায় এ সড়কের প্রায় ১০ কিলোমিটার সড়ক উন্নয়ন কাজ শুরু হয়।  প্রায় ২১ কোটি টাকার প্রকল্পটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান প্রজেক্ট বিল্ডার্স লিমিটেড নির্ধারিত সময়ের মধ্যে শেষ করতে না পারায় তাদের কার্যাদেশ বাতিল করা হয়। আবার দরপত্র আহবান করলে মঞ্জুরুল আহসান অ্যান্ড কোম্পানি নতুন ঠিকাদার মনোনীত হয়। ২০১০সালের ২৯ ডিসেম্বর ১৩ কোটি ২০ লাখ টাকা ব্যয়ে ৫.১ কিলোমিটার অংশের কাজ শুরু করে তারা। 

তবে প্রকল্প শেষ না করেই কাজ সমাপ্ত দেখিয়ে তৎকালীন উপজেলা ভারপ্রাপ্ত প্রকৌশলী নুরুল আলম চৌধুরী ও সুনামগঞ্জের সাবেক নির্বাহী প্রকৌশলী মো. তামজিদ সরওয়ার যাচাই-বাছাই ছাড়াই কাজ সম্পন্ন হয়েছে মর্মে প্রত্যয়ন করেন। 

এ ঘটনায় মো. তামজিদ সরওয়ারসহ অভিযুক্তরা ১কোটি ২লাখ ৪২হাজার ৩৩৪টাকা আত্মসাৎ করেছেন মর্মে দুদকের উপপরিচালক সুভাষ চন্দ্র দত্ত ২০১৬ সালের ৪ অক্টোবর ধর্মপাশা থানায় একটি মামলা করেন।

এই সড়ক পাশে বসবাসকারী শফিক মিয়া,সাজিদুল ইসলামসহ স্থানীয় জনসাধারণ বিক্ষুব্ধ হয়ে বলেন,এ সড়কের সংস্কার না হওয়ায় কান্দাপাড়া গ্রামের সামনে থেকে জয়শ্রী বাজার পর্যন্ত তিন কিলোমিটারের বেশি সড়ক চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। আমরা এই বিষয়ে সমাধানের দাবি জানানোর পরও কোনো সুফল পাচ্ছি না। আমরা প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।

জয়শ্রী ইউপি চেয়ারম্যান সঞ্জয় রায় চৌধুরী বলেন, বর্ষায় সড়কটির বিভিন্ন জায়গা পানিতে ডুবে যায় আবার শুকনো মৌসুমেও এটি ব্যবহার করা যায় না। জনসাধারণ চরম দুভোর্গের মাঝে আছে।

ধর্মপাশা এলজিইডির প্রকৌশলী শাহ আবদুল ওয়াদুদ বলেন, আগামী বছর সড়কটির সংস্কার কাজ শুরু হতে পারে। 

সুনামগঞ্জ এলজিইডির নির্বাহী প্রকৌশলী সিদ্দিকুর রহমান বলেন,মামলা-সংক্রান্ত জটিলতার কারণে এ সড়কের সংস্কার কাজে দেরি হচ্ছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডএম