বেরইল হাইস্কুলে বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় মুক্তিযুদ্ধের ডিসপ্লে

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ০৯ এপ্রিল ২০২০,   চৈত্র ২৬ ১৪২৬,   ১৫ শা'বান ১৪৪১

Akash

বেরইল হাইস্কুলে বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় মুক্তিযুদ্ধের ডিসপ্লে

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১১:২৯ ১৪ মার্চ ২০২০  

বেরইল হাইস্কুলে বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় মুক্তিযুদ্ধের ডিসপ্লে

বেরইল হাইস্কুলে বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় মুক্তিযুদ্ধের ডিসপ্লে

মাগুরা সদর উপজেলার বেরইল পলিতা আলহাজ্ব কাজী ওয়াহেদ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ৩ দিনব্যাপী বার্ষিক ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার ক্ষুদে শিক্ষার্থীরা মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক একটি ডিসপ্লে প্রদর্শন করে মঞ্চে।  মঙ্গলবার অনুষ্ঠিত হয় ক্রীড়া প্রতিযোগিতা। বুধবার ও বৃহস্পতিবার সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতায় কবিতা, নাচ, গান, কৌতুক পরিবেশনের মধ্যে দিয়ে এক ভিন্ন মাত্রা যোগ করে শিক্ষার্থীরা। 

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন  যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা কাজী আরিফ বিল্লাহ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রীর জনসংযোগ কর্মকর্তা কাজী আরিফ বিল্লাহ বলেন,বর্তমান সরকার শিক্ষাবান্ধব সরকার। ক্রীড়াবান্ধব সরকার। প্রধানমন্ত্রী নিজেও ক্রীড়া অনুরাগী। তিনি সবসময় খেলাধুলাকে উৎসাহ দিয়ে থাকেন। সুযোগ পেলেই খেলার মাঠে ছুটে যান।  যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী মো. জাহিদ আহসান রাসেল ক্রীড়া অন্তঃপ্রান ব্যাক্তিত্ব। তাঁর সফল নেতৃত্বে আমরা অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন হওয়ার অনন্য গৌরব অর্জন করেছি। শুধু তাই নয়, নেপালে অনুষ্ঠিত এস এ গেমসে আমরা ১৯ টি গোল্ড মেডেলসহ ১৪২ টি মেডেল অর্জন করে ইতিহাস সৃষ্টি করেছি। 

বেরইল পলিতা আলহাজ্ব কাজী ওয়াহেদ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে বার্ষিক ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন  যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা কাজী আরিফ বিল্লাহ

খেলাধূলাকে দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে ছড়িয়ে দিতে ক্রীড়া  প্রতিমন্ত্রীর তত্ত্বাবধানে  দেশের প্রত্যেকটি উপজেলায় শেখ রাসেল মিনি স্টেডিয়াম নির্মাণ কাজ চলছে।  এছাড়া প্রত্যকটি ইউনিয়নেও স্টেডিয়াম নির্মাণের পরিকল্পনা রয়েছে সরকারের।

তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশ এখন আর পিছিয়ে পড়া কোনো দেশ নয়। গণতন্ত্র ও উন্নয়নের রোল মডেল। শুধু অর্থনৈতিক মানদন্ডেই নয়, সামাজিক সূচকেও বাংলাদেশ এখন অনেক এগিয়ে।  দারিদ্র্য বিমোচন, কর্মসংস্থান সৃষ্টি, ক্ষুদ্রঋণ, শিশু ও মাতৃ-মৃত্যুহার হ্রাস, নারী শিক্ষা, নারীর ক্ষমতায়ন ও বিশ্ব ক্রীড়াঙ্গনে বাংলাদেশ এখন বিশ্বের এক বিস্ময়।  গনতন্ত্রের  মানস কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বলিষ্ঠ নেতৃত্বে বাংলাদেশ এখন উন্নয়নের মহাসড়কে । অপ্রতিরোধ্য অগ্রযাত্রায় বাংলাদেশ। 

আজকের শিক্ষার্থীরাই আগামীর উন্নত ও সমৃদ্ধ বাংলাদেশের নেতৃত্ব দিবে উল্লেখ করে তিনি  বলেন, অধ্যবসায় ও কঠোর পরিশ্রমের মাধ্যমে ভবিষ্যৎ চ্যালেন্জ মোকাবেলায় ছাত্র ছাত্রীদের প্রস্তুত হতে হবে। তাদের জাতির পিতার স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মানে অগ্রনী ভূমিকা পালন করতে হবে। 

করোনাভাইরাসকে বৈশ্বিক সমস্যা উল্লেখ করে তিনি বলেন,  সরকার করোনা মোকাবেলায় সব ধরনের প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে। আতঙ্কিত হবার কিছু নেই।  তবে সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে।  তিনি শিক্ষার্থীদের বারবার সাবান পানি দিয়ে হাত ধোওয়া ও পরিস্কার পরিচ্ছন্ন থাকতে পরামর্শ দেন।   

বিশেষ অতিথি হিসেবে মাগুরা জেলা আওয়ামীলীগের সমাজ কল্যাণ ও ত্রাণ বিষয়ক সম্পাদক মো. আমীর ওসমান রানা, মাগুরা সদর উপজেলা পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান এনামুল হক রাজা, মাগুরা যুব উন্নয়নের উপপরিচালক মো. রিয়াজুল আলম খান, বেরইল পলিতা ইউনিয়ন আ.লীগে সভাপতি তৌহিদুজ্জামান বাবু ও সাধারণ সম্পাদক মোঃ নুর আলম সহ এলাকার বীর মুক্তিযোদ্ধাগণ উপস্থিত ছিলেন।

উক্ত বিদ্যালয়ের পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি মো.তাজেনুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. সিরাজুল ইসলাম।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএস