Alexa বুয়েটে দ্বিতীয় ধাপের ভর্তি পরীক্ষা শেষ

ঢাকা, শুক্রবার   ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯,   অগ্রহায়ণ ২৯ ১৪২৬,   ১৬ রবিউস সানি ১৪৪১

বুয়েটে দ্বিতীয় ধাপের ভর্তি পরীক্ষা শেষ

ঢাবি প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৬:৪২ ১৪ অক্টোবর ২০১৯   আপডেট: ১৬:৪৪ ১৪ অক্টোবর ২০১৯

ডেইলি বাংলাদেশ

ডেইলি বাংলাদেশ

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বুয়েট) ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষে প্রথম ধাপের পর এবার দ্বিতীয় ধাপের পরীক্ষাও শেষ হয়েছে।

এর আগে সোমবার সকাল ৯টা থেকে প্রথম ধাপে ইঞ্জিনিয়ারিং ও আর্কিটেকচার বিভাগসমূহের পরীক্ষা শুরু হয়। পরীক্ষা চলে দুপুর ১২ পর্যন্ত। দুপুর দুইটা থেকে শুরু হয় আর্কিটেকচারের অঙ্কন পরীক্ষা। পরীক্ষা চলে বিকেল চারটা পর্যন্ত।

এ বছর ১২টি বিভাগে ১ হাজার ৬০টি আসনের জন্য আবেদন করেছেন আবেদন করেছেন ১২ হাজার ১৬১ প্রার্থী। সকালে পরীক্ষা শুরুর ঘণ্টা দুয়েক আগে থেকেই ক্যাম্পাসে আসতে থাকেন ভর্তিচ্ছুরা।

এদিকে সোমবার বেলা পৌনে ১১টায় ভর্তি পরীক্ষার কেন্দ্র পরিদর্শন শেষে বুয়েট ভিসি অধ্যাপক সাইফুল ইসলাম বলেন, শিক্ষার্থীদের দাবি পূরণে আমরা কাজ করছি। চলমান সঙ্কট নিরসনে কয়েকটি কমিটি গঠন করা হয়েছে৷ তবে আন্দোলনের কারণে পরীক্ষার্থীদের মধ্যে কোনো প্রভাব পড়েনি। ৯০ ভাগ শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ নিয়েছে।

তিনি আরো বলেন, শিক্ষার্থীরা যেকোনো প্রয়োজনে আমার সঙ্গে আলোচনা করতে পারেন। আশা করি, তারা আমাদের সহযোগিতা করবেন। কারণ তাদের দাবির বিষয়ে আমরা একমত।

এ সময় উপাচার্যের কাছে অভিভাবকরা আবরার হত্যার বিচার চান। জবাবে তিনি বলেন, এই হত্যাকাণ্ডের বিচারে আমরা আন্তরিক। সরকারও বিচারের বিষয়ে দ্রুত ব্যবস্থা নিয়েছে। তাই আশা করি, সুষ্ঠু বিচার হবে।

রোববার নিজ কার্যালয়ে ভিসি অধ্যাপক সাইফুল ইসলাম বলেন, এতো বাধার মধ্যেও আমরা ভর্তি পরীক্ষার যে কাজগুলো ছিল সেগুলো শেষ করতে পেরেছি। আমাদের পরীক্ষা নেয়ার কথা ছিল ৫ অক্টোবর। কিন্তু ভর্তিচ্ছুদের অভিযোগের প্রেক্ষিতে আমরা পূজার শেষে নেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম। পর্যাপ্ত নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়েছে। আমাদের শিক্ষার্থীরাও আমাদের সহায়তা করবেন।

জানা গেছে, যানজট এড়াতে সকল পরীক্ষার্থীকে সকাল ৮টার মধ্যে পরীক্ষা কেন্দ্রে উপস্থিত থাকার জন্য নির্দেশ দেয়া হয়। ক্যাম্পাসের মূল গেইটের সামনেই ভর্তি পরীক্ষার সিট প্ল্যান বড় ব্যানারে টাঙিয়ে দেয়া হয়েছে।

এছাড়াও ক্যাম্পাসের প্রতিটি স্থানেই সিট প্ল্যান টাঙানো হয়েছে। ভবনগুলোতেও প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে।

৬ অক্টোবর রাতে বুয়েটের শের-ই-বাংলা হলে তড়িৎ কৌশল বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র আবরার ফাহাদকে পিটিয়ে হত্যা করে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। এ ঘটনায় বুয়েট শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদকসহ ১৯ জনকে আসামি করে মামলা করেন আবরারের বাবা।

আবরার ফাহাদ হত্যাকাণ্ডের বিচার দাবিতে ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন করে আন্দোলনে নামে শিক্ষার্থীরা। পরে ভর্তি পরীক্ষার কথা বিবেচনা করে দুদিনের জন্য আন্দোলন শিথিল করা হয়।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডএম