বুদ্ধি কমিয়ে দেয় যা

.ঢাকা, বুধবার   ২৪ এপ্রিল ২০১৯,   বৈশাখ ১০ ১৪২৬,   ১৮ শা'বান ১৪৪০

বুদ্ধি কমিয়ে দেয় যা

 প্রকাশিত: ০৯:৩৫ ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮   আপডেট: ০৯:৩৫ ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮

প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

আমাদের শরীর আর মনকে পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণ করে আমাদের মস্তিষ্ক। আর তাই মস্তিষ্ক ঠিক না থাকলে শরীর মন দুটোই বিগড়ে যেতে পারে। কিন্তু এই মস্তিষ্কের সুরক্ষা নিয়ে আমরা খুব একটা ভাবি না। শরীরকে ঠিক রাখতে যেমন ব্যায়াম, সঠিক খাদ্যাভাসের প্রয়োজন তেমনি মস্তিষ্ককে ঠিক রাখতেও কিছু বিষয় মেনে চলা উচিৎ। তা না হলে মস্তিষ্ক স্বাভাবিক কর্মক্ষমতা হারিয়ে ফেলতে পারে।  

মানুষের বুদ্ধি মাপার একটা পদ্ধতি আছে। ইংরেজিতে যাকে বলে আইকিউ (ইন্টেলিজেন্স কিউওটিএন্ট) বাংলায় যার নাম বুদ্ধিমত্তা। আন্তর্জাতিক এক জরিপে বিশ্বের মোট জনগণের মাত্র ২ শতাংশ মানুষ আইকিউ ওয়ার্ল্ড টেস্টে ১৩০-র উপরে নম্বর পান। বিশেষজ্ঞদের মতে, আইকিউ এর মাত্রা কমানোর জন্য মানুষ নিজেই দায়ী। কারণ তারা প্রতিদিন এমন সব কাজ করে যা বুদ্ধিমত্তা কমাতে ভূমিকা রাখে। এমন কিছু অতিসাধারণ কাজ হলো- 

একসঙ্গে অনেকগুলো কাজ করা

আমাদের দৈনন্দিন জীবনে কাজের কোনো শেষ নেই। তাই এক কাজের মধ্যে  অনেক সময়েই অনেকগুলো কাজ করতে হয়। অনেকে ভাবে যে একসঙ্গে দুই বা তার বেশি কাজ করতে পারা একটা বিশেষ গুণ। কিন্তু এটা ঠিক নয়। যুক্তরাষ্ট্রের স্ট্যানফোর্ড ইউনিভার্সিটির গবেষণায়মতে, যারা একই সময়ে একটি কাজই করেন, তাদের চিন্তা করার ক্ষমতা যারা একসঙ্গে অনেক কাজ করতে যান তাদের তুলনায় বেশি হয়।

পরোক্ষভাবে ধূমপান করা

অনেকে ধূমপান না করেও ধূমপানের ক্ষতিকর প্রভাবের কারণে বুদ্ধিমত্তা হারাতে থাকেন। যুক্তরাষ্ট্রের সেন্ট্রাল মিশিগান ইউনিভার্সিটির গবেষণামতে, যেই শিশুরা পরোক্ষভাবে ধূমপান করছে তাদের চেয়ে অন্য শিশুদের আইকিউ বেশি থাকে।

অতিরিক্ত চিনি খেলে

চিনি যে শুধু মেদই বাড়ায়, তা নয়। চিনি মস্তিষ্কের উপরও প্রভাব ফেলতে পারে। গবেষণায় দেখা গেছে, টানা প্রায় ৬ সপ্তাহ চিনি জাতীয় খাবার খাওয়া হলে মস্তিষ্কের কর্মক্ষমতা হ্রাস পায় । সেই সঙ্গে কোনো কিছু শেখার ক্ষমতা নষ্ট হয়ে যায়, স্মৃতিশক্তি দুর্বল হয়ে পড়ে আস্তে আস্তে। এমনকি অনেক বিষয়ে মনোযোগ কমেও যায়।  

মানসিক চাপ

এখনকার দিনে মানসিক চাপ একটি বড় ধরনের সমস্যা। অতিরিক্ত মানসিক চাপ থাকলে তা শুধু মানসিক শান্তিই কেড়ে নেয় না, মস্তিষ্কের উপরও ব্যাপক প্রভাব ফেলতে পারে। অতিরিক্ত মানসিক চাপের ফলে তৈরি হতে পারে আলঝেইমার বা স্মৃতিশক্তি লোপের মতো অসুখ। এছাড়া মস্তিষ্কের ক্ষতিও করতে পারে। ফলে আমাদের স্বাভাবিক বুদ্ধিমত্তাও ধীরে ধীরে লোপ পায়।  

স্থূলতা

ওজন বেশি বাড়তে বাড়তে একসময় স্থূলতার মতো রোগের আবির্ভাব ঘটে। এই স্থূলতা শুধু শারীরিক সমস্যায়ই বাড়ায় না, মস্তিষ্কের উপরও প্রভাব ফেলে। গবেষণায় দেখা গেছে, মধ্য বয়সের পর যারা মোটা হয়ে যান তাদের চিন্তা করার ক্ষমতা কমে যায় এবং স্মৃতিভ্রষ্ট হওয়ার আশঙ্কা বাড়ে। 

সূত্র: জি নিউজ

ডেইলি বাংলাদেশ/এসআই