বিষখালীর গর্ভে হারিয়ে যাচ্ছে বাদুরতলা স্কুল
SELECT bn_content.*, bn_bas_category.*, DATE_FORMAT(bn_content.DateTimeInserted, '%H:%i %e %M %Y') AS fDateTimeInserted, DATE_FORMAT(bn_content.DateTimeUpdated, '%H:%i %e %M %Y') AS fDateTimeUpdated, bn_totalhit.TotalHit FROM bn_content INNER JOIN bn_bas_category ON bn_bas_category.CategoryID=bn_content.CategoryID INNER JOIN bn_totalhit ON bn_totalhit.ContentID=bn_content.ContentID WHERE bn_content.Deletable=1 AND bn_content.ShowContent=1 AND bn_content.ContentID=192041 LIMIT 1

ঢাকা, শনিবার   ০৮ আগস্ট ২০২০,   শ্রাবণ ২৪ ১৪২৭,   ১৭ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

Beximco LPG Gas

বিষখালীর গর্ভে হারিয়ে যাচ্ছে বাদুরতলা স্কুল

ঝালকাঠি প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ০১:৩৬ ৫ জুলাই ২০২০  

ভাঙন কবলিত বাদুরতলা মাধ্যমিক বিদ্যালয়

ভাঙন কবলিত বাদুরতলা মাধ্যমিক বিদ্যালয়

ঘূর্ণিঝড় ফণি ও আম্ফানের প্রভাবে বিষখালী নদীতে ভাঙন অব্যাহত রয়েছে। আর ভাঙনের কারণে নদীগর্ভে হারিয়ে যাচ্ছে ঝালকাঠির রাজাপুরের ঐতিহ্যবাহী বাদুরতলা মাধ্যমিক বিদ্যালয়।

ফণির প্রভাবে পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় বিদ্যালয়ের পূর্ব পাশের অংশটি মালামালসহ নদীগর্ভে বিলীন হয়ে যায়। এরপর আমফান, জোয়ারের পানি বৃদ্ধি, অব্যাহত ভাঙনে ধীরে ধীরে স্কুলটিকে গিলে খাচ্ছে সর্বনাশা বিষখালী।

সরেজমিনে দেখা গেছে, এরইমধ্যে স্কুলের পূর্ব পাশের বারান্দা ও কয়েকটি রুম বিলীন হয়ে গেছে। যেকোনো সময় পুরো বিদ্যালয়টি নদীগর্ভে হারিয়ে যাবে। একইসঙ্গে ভাঙনের কবলে পড়বে বিদ্যালয় সংলগ্ন মসজিদ, বাদুরতলা বাজারের অর্ধশত দোকান, বসতঘর।

জানা গেছে, ক্লাসরুম ভেঙে যাওয়ায় বিদ্যালয়ের ওই ভবনে অনেকদিন ধরেই শিক্ষা কার্যক্রম বন্ধ করে দিয়েছে কর্তৃপক্ষ। এ কারণে তিন শতাধিক শিক্ষার্থীর পড়াশোনা ব্যাহত হচ্ছে।

বাদুরতলা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আইয়ুব আলী জানান, বিদ্যালয়টি রক্ষার জন্য একাধিকবার মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার, ইউএনওসহ ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে। কার্যকর উদ্যোগ না নেয়ায় বিদ্যালয়টি রক্ষা করা সম্ভব হয়নি।

ইউপি মেম্বার দেলোয়ার খলিফা জানান, জরুরি ভিত্তিতে বিষখালী নদীর ভাঙন রোধ করা না গেলে অচিরেই পুরো বিদ্যালয় নদীগর্ভে বিলীন হয়ে যাবে।

রাজাপুরের ইউএনও সোহাগ হাওলাদার জানান, প্রকৌশলীরা ভাঙন কবলিত বিদ্যালয়টি পরিদর্শন করেছেন। ম্যানেজিং কমিটিকে ভাঙনের মুখে পড়া ভবনটি নিলাম দেয়ার জন্য বলা হয়েছে। বিদ্যালয়ের জন্য নতুন জায়গা খোঁজা হচ্ছে। জায়গা পেলেই বিদ্যালয় স্থানান্তরের কাজ শুরু হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর