বিশ্বকাপজয়ী জুনিয়র সাকিব সংবর্ধনা পেল শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ে

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ০২ এপ্রিল ২০২০,   চৈত্র ২০ ১৪২৬,   ০৯ শা'বান ১৪৪১

Akash

বিশ্বকাপজয়ী জুনিয়র সাকিব সংবর্ধনা পেল শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ে

শাবি প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১১:০১ ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০   আপডেট: ১১:০২ ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০

ছবিঃ ডেইলি বাংলাদেশ

ছবিঃ ডেইলি বাংলাদেশ

ব্রাজিলের ফুটবলার পেলেকে নিয়ে মুভিটা দেখেছিলাম, ১৭ বছর বয়সে দেশের হয়ে বিশ্বকাপ নিয়ে এসেছিল। আমারও ইচ্ছে সিনিয়র ক্রিকেটেও যেনো এরকম একটা বিশ্বকাপ নিয়ে আসতে পারি। আমাদের জন্য সবাই দোয়া করবেন। কথাগুলো বলছিলেন, বিশ্বকাপজয়ী বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দলের ক্রিকেটার তানজিম হাসান সাকিব।

বুধবার বিকেলে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যায়ের শাখা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা অনূর্ধ্ব-১৯ দলের এ পেসারকে অভ্যর্থনা দেয়। অভ্যর্থনা অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। 

অনুষ্ঠানে শাবি ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মো. রুহুল আমিনের সভাপতিত্বে অতিথি ছিলেন শাবি কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. মো. আনোয়ারুল ইসলাম এবং ছাত্র উপদেশ ও নির্দেশনা পরিচালক অধ্যাপক ড. মো. রাশেদ তালুকদার। 

শাবি ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ইমরান খানের সঞ্চালনায় জুনিয়র সাকিব বলেন, এরআগেও আমরা ভারতের সঙ্গে দুবার হেরেছিলাম। একটা ইংল্যান্ডের মাটিতে আর একটা শ্রীলংঙ্কার মাটিতে। শ্রীলংঙ্কাতে হেরেছিলাম ৫ রানে। আর ঐ জায়গা থেকে আমরা একটা শিক্ষা নিয়েছিলাম। ওদের (ভারত) সঙ্গে এগ্রেসিভ ক্রিকেট খেলবো। আমরা জানতাম, ওদের থেকে আমরা বেটার। সেটা প্রমাণ করতে হবে মাঠের মধ্যে। সবাই কনফিডেন্ট ছিলাম। আমরা জানতাম, ভারতের সঙ্গে আমাদের ফাইনালে দেখা হবে। আমরা অনেক প্রস্তুত ছিলাম। 

তবে বিশ্বকাপ জয়ের এ পরিকল্পনাটা জুনিয়দের রাতারাতি ছিল না। ছিল ২ বছরের সুনির্দিষ্ট পরিকল্পনা। 

সে বিষয়ে বলেন, ২ বছর ধরে অর্থাৎ ২০১৮ সাল থেকে শুরু আমাদের এ প্রস্তুতি। দুই বছরের একটা প্ল্যানকে  সামনে রেখে আমরা নিউজল্যান্ড, ইংল্যান্ড, শ্রীলঙ্কাসহ বিভিন্ন দেশে সিরিজ খেলতে যাই। মানে সবগুলো সিরিজের মূল উদ্দেশ্য ছিল, যাতে বিশ্বকাপে যেয়ে আমরা ভালো কিছু করতে পারি। ঐভাবেই আমরা প্রস্তুতি নিয়েছিলাম।

অনুষ্ঠানে শাবি কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. মো. আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, এ জয়ের তোমারা অব্যাহত রেখে বাংলাদেশকে জাতীয় দলকেও বিশ্বকাপ এনে দিবে এ কামনা করি। তোমাদের দ্বারাই বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা নতুন ইতিহাসে পদার্পণ করুক।

ছাত্র উপদেশ ও নির্দেশনা পরিচালক অধ্যাপক ড. রাশেদ তালুকদার বলেন, তোমাদের এ জয়ে আমরা গর্বিত। তোমাদের এ জয়ের ধারা অব্যাহত থাকুক এ কামনা রইল।

শাবি ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মো. রুহুল আমিন বলেন, বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকীতে তোমাদের এ অর্জনে আমরা আনন্দিত। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সবসময় ক্রীড়াপ্রেমী ছিলেন। জাতির জনকের কন্যাও খেলাধুলাকে উৎসাহিত করেন। তোমরা এ জয়ের ধারা অব্যাহত রেখে দেশ ও জাতির মুখ উজ্জ্বল করবে এ কামনা করি।

অনুষ্ঠানে শাবি ছাত্রলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মৃন্ময় দাশ ঝুটন, মুশফিকুর রহমান ভূইয়াসহ ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডএম