বিমান দুর্ঘটনায় নিহত বিপাশার স্মরণসভা

ঢাকা, মঙ্গলবার   ২১ মে ২০১৯,   জ্যৈষ্ঠ ৭ ১৪২৬,   ১৫ রমজান ১৪৪০

Best Electronics

বিমান দুর্ঘটনায় নিহত বিপাশার স্মরণসভা

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৭:৪৯ ১২ মার্চ ২০১৯  

ছবি- ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি- ডেইলি বাংলাদেশ

নেপালে বিমান দুর্ঘটনায় নিহত সুজন কর্মকর্তা সানজিদা হক বিপাশার প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে এক স্মরণসভার আয়োজন করা হয়েছে। 

মঙ্গলবার বিকেলে জাতীয় প্রেসক্লাবের তফাজ্জল হোসেন মানিক মিয়া হলে এ স্মরণ সভার আয়োজন করে সুজন (সুশাসনের জন্য নাগরিক) ও দি হাঙ্গার প্রজেক্ট ।

স্মরণ সভায় সভাপতিত্ব করেন বিপাশা স্মৃতি সংরক্ষণ কমিটির আহ্বায়ক ও নির্বাহী সদস্য ও লেখক কলামিস্ট সৈয়দ আবুল মকসুদ। বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ দি হাঙ্গার প্রজেক্টের উপ-পরিচালক নাসিমা আক্তার জলি, সুজনের কেন্দ্রীয় সমন্বয়কারী দিলীপ কুমার সরকার, সুজনের ঢাকা মহানগর সাধারণ সম্পাদক জুবাইরুল হক ভুইয়া নাহিদ।

সানজিদা হক বিপাশার স্মৃতিচারণ করে পরিবারের পক্ষ থেকে বক্তব্য রাখেন, বিপাশার ছোট ভাই শাহনেওয়াজ সাবির উইন, ননদ রেফায়েত আরা ঋতু, বড় ভাই ফজল মাহমুদ রবি।

সহকর্মীদের মধ্যে স্মৃতিচারণ করেন স্লোগান ৭১-এর কাজী সুজন মিয়া, ফিল্ম সোসাইটির সাবেক নেতা বিপাশার বন্ধু রোদেলা নিরুপমা, সাইফুল সারওয়ার, তনুজা কামাল, মুর্শিকুল ইসলাম শিমুল প্রমুখ। এ সময় স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে অনেকই চোখের পানি ধরে রাখতে পারেন না।

পারিবারিক কাজকর্মে তার প্রশংসা করে বিপাশার ননদ রেফায়েত বলেন, তার জন্য আমাদের বড় পরিবার একীভূত ছিল। তিনি সব সময় হাসিমুখে কথা বলতেন। পরিবারের সবার খোঁজ-খবর রাখতেন। তিনি অফিসেও ছিলেন খুব পাংচুয়াল। যার ফলে বিপাশার প্রথম সন্তান মারা যাবার পর অফিসের সবাই তাকে আগলে রাখতেন শান্তনার বেড়াজালে।

এর আগে ওই দুর্ঘটনায় নিহত সানজিদা হক বিপাশা, স্বামী রফিক জামান রিমু ও সন্তান অনিরুদ্ধ জামানসহ সবার প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করে এক মিনিট দাঁড়িয়ে নীরবতা পালন করা হয়।

স্মরণ সভায় একটি স্মারকগ্রন্থ ও স্মৃতি পুরস্কার প্রবর্তনের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।

ডেইলি বাংলাদেশ/সেতু/আরএইচ

Best Electronics