বিপিএলের পরই ডিপিএল, থাকছে ‘প্লেয়ার্স বাই চয়েজ’

ঢাকা, মঙ্গলবার   ১৮ জুন ২০১৯,   আষাঢ় ৫ ১৪২৬,   ১৪ শাওয়াল ১৪৪০

বিপিএলের পরই ডিপিএল, থাকছে ‘প্লেয়ার্স বাই চয়েজ’

ক্রীড়া প্রতিবেদক

 প্রকাশিত: ১৭:৫৪ ১৪ জানুয়ারি ২০১৯   আপডেট: ১৭:৫৪ ১৪ জানুয়ারি ২০১৯

ফাইল ফটো

ফাইল ফটো

বাংলাদেশের ঘরোয়া ক্রিকেটের অন্যতম জনপ্রিয় প্রতিযোগিতা ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশনাল ক্রিকেট লিগ (ডিপিএল)। ৫০ ওভারের এ ক্রিকেট প্রতিযোগিতার পরবর্তী আসর শুরু হবে বিপিএল শেষে। এবারের ডিপিএলেও ক্রিকেটারদের স্কোয়াডে ভেড়ানোর জন্য থাকছে ‘প্লেয়ার্স বাই চয়েজ’ পদ্ধতি।

বিপিএল শেষে ২০ ফেব্রুয়ারি থেকে ডিপিএল মাঠে গড়ানোর সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানিয়েছে সিসিডিএম। 

গতকাল রোববার এক সভা শেষে আসন্ন ডিপিএল সম্পর্কে একাধিক সিদ্ধান্তের কথা জানানো হয়। আসন্ন ডিপিএলকে সামনে রেখে বেশ কিছু নিয়মে রদবদল আনার সিদ্ধান্ত নিয়েছে প্রতিযোগিতাটির আয়োজক সংস্থা।

প্লেয়ার্স বাই চয়েজ পদ্ধতি:

ক্রিকেটারদের অনিচ্ছাসত্ত্বেও বিগত আসরের মতো এবারও থাকছে প্লেয়ার্স বাই চয়েজ পদ্ধতি। প্রতিযোগিতা শুরুর আগে দল সাজানোর জন্য চলতি মাসের শেষ কিংবা আগামী (ফেব্রুয়ারি) মাসের শুরুর দিকে সম্পন্ন করা হবে পদ্ধতিটি।

সিসিডিএমের সভায় গৃহীত সিদ্ধান্ত:

আসন্ন ডিপিএলকে সামনে রেখে বেশকিছু সিদ্ধান্তে পরিবর্তন এনেছে সিসিডিএম। তার মধ্যে অন্যতম হচ্ছে ৩জন ক্রিকেটারকে দলে ধরে রাখতে পারার বিষয়টি। গত আসরে পূর্ববর্তি মৌসুম থেকে দলগুলো ৫জন করে ক্রিকেটারকে দলে রাখতে পারলেও, এবার ৩জন ক্রিকেটারকে দলে রাখতে পারবে দলগুলো।

প্লেয়ার্স বাই চয়েজ পদ্ধতি শেষে সর্বোচ্চ ৩জন ক্রিকেটারকে ছেড়ে দেয়ার সুযোগ থাকবে দলগুলোর কাছে। তাছাড়া পারস্পারিক আলোচনার মাধ্যমে আটজন ক্রিকেটারকে রদবদল করতে পারবে দলগুলো।

বিদেশি ক্রিকেটারদের দলে অন্তর্ভুক্তি: 

যত খুশি ততজন বিদেশি ক্রিকেটারকে আসন্ন ডিপিএলের জন্য স্কোয়াডে অন্তর্ভুক্ত করার সুযোগ পাবে প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারী দলগুলো। তবে সর্বোচ্চ একজন ক্রিকেটারকেই একাদশে রাখা যাবে।

বিপিএল শেষে নিউজিল্যান্ড সফরে ব্যস্ত হয়ে পড়বে জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা। তবুও জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের আসন্ন প্রতিযোগিতায় পাওয়ার ব্যাপারে আশাবাদী সিসিডিএম। তাছাড়া এবারের আসরের কিছু ম্যাচ টেলিভিশনের পর্দায় দর্শকদের জন্য সরাসরি সম্প্রচারের ব্যবস্থা করা হবে বলেও জানানো হয়।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমআরকে