বিদ্যালয়ের জরাজীর্ণ ভবন, আতঙ্ক

.ঢাকা, শুক্রবার   ২৬ এপ্রিল ২০১৯,   বৈশাখ ১২ ১৪২৬,   ২০ শা'বান ১৪৪০

বিদ্যালয়ের জরাজীর্ণ ভবন, আতঙ্ক

আবদুল্লাহ জুয়েল, মনপুরা (ভোলা)  ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১১:৩১ ১৫ এপ্রিল ২০১৯   আপডেট: ১১:৫৭ ১৫ এপ্রিল ২০১৯

ভোলার মনপুরা উপজেলার বিচ্ছিন্ন চরনিজাম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নতুন ভবনে স্থাপন করা হয়েছে অস্থায়ী পুলিশ ক্যাম্প আর পুরানো ঝুঁকিপূর্ণ ভবনে আতঙ্ক নিয়ে ক্লাস করছে কোমলমতি শিক্ষার্থীরা। 

পুরোনো ভবনে ছাদে রয়েছে ফাটল ও পিলারগুলো পলেস্তার খসে পড়ে দুর্বল হয়ে গেছে। যেকোনো সময় ভেঙে পড়ে বড় দুঘর্টনা ঘটতে পারে এমন আতঙ্ক নিয়ে দিন কাটছে ছাত্র-শিক্ষক ও অভিভাবকদের।

স্থানীয় প্রশাসন জানিয়েছেন, অস্থায়ী পুলিশ ক্যাম্পের ভবনটি জরাজীর্ণ হওয়ায় ও নির্বাচন কালীন অস্থায়ীভাবে স্কুলের নতুন ভবনে এই ক্যাম্প স্থাপন করা হয়েছে। তারপরও চলে গেছে চার মাস কিন্তু ক্যাম্প স্থানান্তরের কোনো উদ্যোগ নেয়নি কর্তৃপক্ষ।

বঙ্গোপসাগরের বুক চিরে জেগে ওঠা ছোট্ট এক জনপদ চরনিজাম। ১৯৮৬ সালে প্রতিষ্ঠা করা হয় এই প্রাথমিক বিদ্যালয়টি। চরের একমাত্র বিদ্যালয়টিতে দুই শ’ ৪৬ জন শিক্ষার্থী লেখাপড়া করছে। পুরানো ভবনটি ঝুঁকিপূর্ণ হওয়ায় স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদফতর বিশ্ব ব্যাংকের অর্থায়নে গত বছর এখানে চার কোটি টাকা ব্যয়ে একটি আধুনিক তিনতলা পাকা ভবন নির্মাণ করে। 

শিক্ষার্থীদের জন্য ভবনটি নির্মিত হলেও নতুন ভবনে ক্লাস করার সুযোগ পাচ্ছেনা। ১৫ ডিসেম্বর ভবনটিতে স্থাপন করা হয়েছে পুলিশ ক্যাম্প। পুলিশের জন্য ব্যবহৃত আগের ভবটি ঝুঁকিপূর্ণ হওয়ায় ও নির্বাচনকালীন সময়ে ভবনটি ব্যবহারের অনুমতি দেয় স্থানীয় প্রশাসন। নতুন তিনতলা ভবনে আনন্দ উল্লাসের মধ্য দিয়ে ক্লাস শুরুর মাত্র তিন দিনের মাথায় শিক্ষার্থীদেরকে আবার পুরানো ভবনে ক্লাস করতে বাধ্য করায় হতাশ হয়ে পড়েছে ছাত্র-শিক্ষক থেকে শুরু করে অভিভাবকরা।

প্রধান শিক্ষক রেজাউল করিম বলেন, বৃহস্পতিবার পর্যন্ত নতুন ভবনে অবস্থান রয়েছে অস্থায়ী পুলিশ ক্যাম্প। নতুন ভবনে উঠেছিলাম। কিন্তু ইউএনও ও ওসি এসে নতুন ভবনে পুলিশ ক্যাম্প স্থাপন করেন।

মনপুরা শিক্ষা অফিসার মিজানুর রহমান বলেন, নির্বাচনের জন্য স্কুলের নতুন ভবনে ক্যাম্প স্থাপনের জন্য অনুমতি দেয়া হয়েছে। দুই এক দিনের মধ্যে অন্যত্র ক্যাম্পটি সরিয়ে নেয়া হবে।

চরনিজাম পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ হারুন অর রশিদ বলেন, ক্যাম্পের পুরানো ভবনটি ঝুঁকিপূর্ণ হওয়ায় স্কুল ভননে স্থানান্তর করা হয়েছে। তবে আমরা সন্তুষ্টচিত্তে ভবনটি ব্যবহার করতে পারছিনা। একদিনে পুলিশের হাতিয়ারগুলোর নিরাপত্তা থাকেনা অন্যদিকে স্কুলের ছেলে মেয়েদের পড়া লেখার বিঘ্ন ঘটে।

মনপুরার ইউএনও বশির আহমেদ বলেন, চরনিজাম পুলিশ ক্যাম্পটির পুরানো ভবন জরাজীর্ণ হওয়ায় ও নির্বাচনকালীন সময়ে অস্থায়ী ভাবে পুলিশ ক্যাম্পটি বিদ্যালয়ের নতুন ভবনে স্থাপন করা হয়। তবে তিন দিনের মধ্যে অস্থায়ী পুলিশ ক্যাম্পটি স্থানান্তর করা হচ্ছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকে