Alexa বিএনপির মহাসচিব ভণ্ড: নাসিম 

ঢাকা, শনিবার   ২০ জুলাই ২০১৯,   শ্রাবণ ৫ ১৪২৬,   ১৬ জ্বিলকদ ১৪৪০

বিএনপির মহাসচিব ভণ্ড: নাসিম 

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৪:৪৪ ৪ জুলাই ২০১৯  

ফাইল ফটো

ফাইল ফটো

আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলির সদস্য ও ১৪ দলের মুখপাত্র মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, কতবড় ভণ্ড হলে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এমন মিথ্যা কথা বলতে পারেন। পাবনায় শেখ হাসিনার উপর সন্ত্রাসী হামলার মামলাকে মির্জা ফখরুল মিথ্যা বলায় এমন মন্তব্য করেন তিনি।

তিনি বলেন, সেদিন সমস্ত পথ সন্ত্রাসীরা ঘিরে রেখে ছিল। সেই কথা মনে হলে আজও গা শিউরে ওঠে। সব বাধা পেরিয়ে শেখ হাসিনা সমনে গিয়েছিল জনগণের জন্য। পাবনায় প্রকাশ্যে শেখ হাসিনার উপর হামলা করে বিএনপি। তারা আবার রাজনীতির কথা বলে কীভাবে?

বৃহস্পতিবার রাজধানীর কাকরাইলের ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে বঙ্গবন্ধু একাডেমি আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।

নাসিম বলেন, কতবড় ভণ্ড হলে প্রকাশ্যে হামলার কথা অস্বীকার করে। পঁচিশ বছর পরে হলেও বিচার হয়েছে। ওই দিন শেখ হাসিনা না বাঁচলে বাংলাদেশ আজ এই অবস্থায় আসতো না। তারা পরেও বিএনপির নেতারা বলছে মিথ্যা মামলা, তারা কি ভণ্ড দেখেন। সব অন্যায়ের বিচার হবে। আদালত স্বচ্ছ বিধায় রিফাত ও নুসরাতের বিচার হচ্ছে।  

হরতাল প্রত্যাহারের আহ্বান জানিয়ে বলেন, যারাই গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধির জন্য হরতাল ডেকেছেন লাভ হবে না। এই হরতাল এখন ভোতা হয়ে গেছে। কিন্তু হরতালের নামে নৈরাজ্য করলে মেনে নেয়া  হবে না বলে হুশিয়ারী দেন তিনি। 

তিনি বলেন, হরতালের নামে ঘোলা পানিতে মাছ স্বীকার করার চেষ্টা করবেন না। আমরা আপনাদের বলেছিলাম সংসদে যান আমাদের কথা রেখেছেন, সংসদে গিয়েছেন এখন কথা বলেতে পারেন। মানুষকে কষ্ট দেয়ার নাম রাজনীতি নয়। সংসদে কথা বলেন সমাধান হবে। সব কিছুই সংসদে সমাধান করা সম্ভব। যারাই হরতাল ডাকছেন, হরতাল প্রত্যাহার করেন। সাধারণ মানুষকে কষ্টের লাগব থেকে মুক্তি দেন। হরতালে সারা দেবে না জনগণ। আপনাদের সময় কি করেছেন,গ্যাস রফতানি করতে চেয়েছেন। গ্যাসকে ইস্যু বানিয়ে নৈরাজ্য করে লাভ হবে না।

গ্যাসের দাম সহনীয় রাখতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়ে নাসিম বলেন, সাধারণ জনগণের কথা ভেবে গ্যাসের দাম সহনীয় রাখতে সরকারকে বিবোচনা রাখতে বলবো। এই সরকার জনবান্ধব সরকার। জনগণের কথা ভেবেই দেশের সব উন্নয়ন করে যাচ্ছেন। তাই জনগণের শান্তি আমাদের কাম্য।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমআরকে