Alexa বাবার হাত-পা ভেঙে দিল সন্তানরা

ঢাকা, মঙ্গলবার   ১২ নভেম্বর ২০১৯,   কার্তিক ২৭ ১৪২৬,   ১৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

Akash

বাবার হাত-পা ভেঙে দিল সন্তানরা

সিংগাইর (মানিকগঞ্জ) প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৪:১৭ ২৩ অক্টোবর ২০১৯   আপডেট: ১৪:২৩ ২৩ অক্টোবর ২০১৯

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

জমি লিখে না দেয়ায় বাবা এখলাছ উদ্দিনের হা-পা বেঁধে মারধর করে তিন সন্তান। তাৎক্ষণিক আহত এখলাছকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন স্থানীয়রা। সেখানেই ১০ দিন ধরে হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন তিনি। এদিকে মারধরের কারণে হাত-পা ভেঙে গেছে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসক।

ন্যাক্কারজনক ঘটনাটি ঘটেছে মানিকগঞ্জের সিংগাইরের বায়রা ইউপির চর নয়াবাড়ি গ্রামে। অভিযুক্তরা হলেন- এখলাছ উদ্দিনের ছেলে জহিরুল শিকদার ও আজাদ শিকদার ও মেয়ে নিপা।

ভুক্তভোগী বাবা এখলাছ উদ্দিন বুধবার স্থানীয় সাংবাদিকদের কাছে অভিযোগ করে বলেন, দুই বছর আগে স্ত্রীর মৃত্যুর পর দুই ছেলে ও এক মেয়ে বিভিন্ন সময় সাড়ে ১৬ শতাংশ বাড়ি তাদের নামে লিখে দিতে চাপ দেয়। এ নিয়ে তাদের সঙ্গে কলহের সৃষ্টি হয়। ১৩ অক্টোবর রাত ১১ টায় তিনজন মিলে আমার হাত পা বেঁধে বেধড়ক মারধর করে। এতে আমার হাত ও পায়ের হাড় ভেঙে যায়। এ সময় আমার চিৎকারে প্রতিবেশীরা উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। সেই থেকে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছি।

তিনি আরো বলেন, স্থানীয় ইউপি সদস্য শাজাহান মিমাংসার দায়িত্ব নেয়ায় থানায় অভিযোগ করিনি। তবে ওদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করি। 
অভিযুক্ত ছোট ছেলে আজাদ শিকদার তিন ভাই বোন মিলে বাবাকে মারধরের কথা স্বীকার করে বলেন, পারিবারিক দ্বন্দ্বের কারণে আমাদের বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দিতে চাইলে এ ঘটনা ঘটে। 

স্থানীয় ইউপি মেম্বার শাজাহান বলেন, উভয়ের দোষ আছে। শুনেছি টাকা চাওয়াকে কেন্দ্র করে ঘটনা ঘটেছে। তাদের মধ্যে মিমাংসার চেষ্টা চলছে।

এ ব্যাপারে সিংগাইর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ইমারজেন্সি ডিউটি অফিসার ডা. সোহেল বাবু বলেন, এ পৈশাচিক ঘটনায় এখলাছ উদ্দিনের হাত ও পায়ের তিনটি স্থানের হাড় ভেঙে গেছে। সুস্থ হতে সময় লাগবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকেএ