বাইরে যাওয়ার অনুরোধ সামলাতে হিমসিম খাচ্ছে স্বেচ্ছাসেবীরা
SELECT bn_content.*, bn_bas_category.*, DATE_FORMAT(bn_content.DateTimeInserted, '%H:%i %e %M %Y') AS fDateTimeInserted, DATE_FORMAT(bn_content.DateTimeUpdated, '%H:%i %e %M %Y') AS fDateTimeUpdated, bn_totalhit.TotalHit FROM bn_content INNER JOIN bn_bas_category ON bn_bas_category.CategoryID=bn_content.CategoryID INNER JOIN bn_totalhit ON bn_totalhit.ContentID=bn_content.ContentID WHERE bn_content.Deletable=1 AND bn_content.ShowContent=1 AND bn_content.ContentID=191915 LIMIT 1

ঢাকা, বুধবার   ১২ আগস্ট ২০২০,   শ্রাবণ ২৮ ১৪২৭,   ২১ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

Beximco LPG Gas

ওয়ারী লকডাউনের প্রথম দিন

বাইরে যাওয়ার অনুরোধ সামলাতে হিমসিম খাচ্ছে স্বেচ্ছাসেবীরা

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৪:৪৩ ৪ জুলাই ২০২০  

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

রেড জোন ঘোষিত রাজধানীর ওয়ারীতে লকডাউনের প্রথম দিন আজ (শনিবার)। এলাকার বাইরে যেতে চাওয়া মানুষের অনুরোধ সামলাতে গলদঘর্ম হতে হচ্ছে দায়িত্বরতদের। বেশিরভাগ অনুরোধই আসছে চিকিৎসা ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে যাওয়ার জন্য। শক্ত হাতে সেইসব অনুরোধ প্রত্যাখ্যান করছেন সংশ্লিষ্টরা। 

বেলা সোয়া ১২টারর দিকে সায়েম খন্দকার নামে এক যুবককে দেখা যায় তিনি বাইরে যাওয়ার জন্য অনুরোধ করছেন স্বেচ্ছাসেবকদের। জানালেন গত ৫দিন ধরে পেট ব্যথা। তিনি হাসপাতালে যেতে চান। কিন্তু স্বেচ্ছাসেবকরা তাকে যেতে দিতে চান না। এক পর্যায়ে সেখানে উপস্থিত হন স্থানীয় ৩৮ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর আহমেদ ইমতিয়াজ। তিনি সায়েমকে ওয়ারীতে থাকা ক্লিনিকে ভর্তি হওয়ার পরামর্শ দেন। কিন্তু সায়েমের যুক্তি এই হাসপাতারের উপর তার ভরসা নেই। তাকে বাইরে যেতে দিতেই হবে। একপর্যায়ে ক্ষুব্ধ হয়ে উঠেন কাউন্সিলর। 

তিনি বলেন, তাকে বাইরে হাসপাতালে যেতে দেবেন এক শর্তে, যদি তিনি ২১ দিন কোয়ারেন্টাইনে থাকতে রাজি থাকেন। কিন্তু সায়েম রাজি না সেই শর্তে। এর কিছুক্ষণ পর রাকিব উদ্দিন নামে আরেক ব্যক্তি আসেন একই অনুরোধ নিয়ে স্বেচ্ছাসেবকদের কাছে। স্বেচ্ছাসেবকরা তার কাছে চিকিৎসকের প্রেসক্রিপশন দেখতে চান। দেখাতে না পারায় তার অনুরোধও প্রত্যাখ্যান করা হয়। এভাবে কেউ ইসলামপুরে কেউ নবাবপুরে, কেউবা আবার বেসরকারি চাকরি করেন- অফিসে জরুরি প্রয়োজনে যেতে হবে এরকম অনুরোধ নিয়ে আসতে থাকেন। 

ওয়ার্ড কাউন্সিলর আহমেদ ইমতিয়াজ জানান, সকাল থেকে এরকম শতাধিক বিব্রতকর অনুরোধের মুখোমুখি হতে হয়েছে তাদের। এরমধ্যে কাউকে সহজে বুঝানো গেছে, কারো প্রতি রূঢ় হতে হয়েছে। অনুরোধকারীদের মধ্যে অনেকে আবার এলাকার বয়স্ক ব্যক্তি। তাদের বোঝাতে বেশ বেগ পেতে হচ্ছে। তবে যাদের সত্যিকার অর্থেই বাইরে চিকিৎসকের কাছে যাওয়ার প্রয়োজন প্রেসক্রিপশন দেখার পর নাম এন্ট্রি করে তাদের যেতে দেয়া হয়েছে। 

তিনি আরো বলেন, এক লাখ মানুষকে এভাবে মোকাবিলা করাটা খুবই কষ্টসাধ্য কাজ। তবে এলাকার সবার স্বার্থে যে করেই হোক এই লকডাউন কার্যকর করতে সব কিছুই তারা করবেন বলে জানান তিনি।

ডেইলি বাংলাদেশ/এসসি/এমআরকে