Exim Bank Ltd.
ঢাকা, বৃহস্পতিবার ১৯ জুলাই, ২০১৮, ৪ শ্রাবণ ১৪২৫

বাংলা নাটকের স্বর্ণযুগ

নুসরাত মোহনাডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম
ফাইল ছবি

ভারতীয় চ্যানেল দেখতে হলে দিতে হবে কর বলেছেন অর্থমন্ত্রী।

বাংলার ঘরে ঘরে এখন ভারতীয় চ্যানেলই চলে বেশি। স্টার প্লাস, জি টিভি, জি বাংলা, স্টার জলসা প্রভৃতি চ্যানেলের নাটক দেখেন না এরকম গৃহবধূ খুঁজে পাওয়া দুষ্করই হবে। এই দেশের বয়স্ক বা মধ্যবয়স্কদের মাঝে এই ভারতীয় চ্যানেলের নাটক গুলো বেশ জনপ্রিয়। বকুলকথা, জয়ী, আমলকী, কুসুমদোলা, সীমারেখা, ইয়ে রিশতা ক্যায়া কেহলাতা হ্যায়, ইয়ে হ্যায় মোহাব্বাতে ইত্যাদি নাটকের নাম শুনেন নি এমন লোক পাওয়া যাবেনা।

আবার কিশোর-কিশোরী আর যুবক-যুবতীদের মাঝে বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে ইংরেজী সিরিজ গুলো।এইচবিও, সিডাব্লিও, নেটফ্লিক্স, সিবিএস প্রভৃতি নেটওয়ার্কের টিভি সিরিজ গুলো এদেশের ছেলেমেয়েদের কাছে বেশ প্রিয়। ফ্রেন্ডস, গেইম অফ থ্রোন্স, স্ট্রেঞ্জার থিংস, শার্লক, প্রিজন ব্রেক, ব্রেকিং ব্যাড, ওয়েস্ট ওয়ার্ল্ড, দ্যা বিগ ব্যাং থিওরি, লুসিফার, সিলিকন ভ্যালি, হাউ আই মেট ইউর মাদার, ফ্ল্যাশ ইত্যাদি নিয়ে মেতে থাকে এই দেশের বর্তমান ইয়াং জেনারেশন।

হিন্দী আর ইংরেজী সিরিয়ালের ভীড়ে আজকাল বাংলাদেশি ধারাবাহিক নাটকগুলো কোথায় যেন হারিয়েই ফেলেছে তার জনপ্রিয়তা। কিন্তু একসময় এদেশের বিনোদন মাধ্যমের চিত্র এমন ছিল না। অসাধারণ কিছু ধারাবাহিক নাটক মাতিয়ে রাখত আমাদের দিন। সেইধরণের কিছু নাটকের স্মরণ করেই এই লেখা।

আজ রবিবার :আজ রবিবার বাংলাদেশের সবচেয়ে বেশি জনপ্রিয় ধারাবাহিক গুলোর মধ্যে অন্যতম। হাস্যরসের মাধ্যমে বাস্তব জীবনের অসাধারণ প্রতিচ্ছবি ফুটে উঠে এই নাটকে।

হুমায়ূন আহমেদের লেখা মনির হোসেন জীবনের পরিচালনায় এই নাটকে অভিনয় করেছেন আবুল হায়াত, জাহিদ হাসান, শাওন , সুবর্ণা মোস্তফা , আলী জাকের সহ আরও অনেক গুণী শিল্পী। ১৯৯৯ সালে বাংলাদেশ টেলিভিশনে এটি প্রচারিত হয়। অদূর ভবিষ্যতে ভারতের স্টার প্লাস চ্যানেলে এর হিন্দি ডাবিং প্রচার হওয়ার কথাও আছে।

রমিজের আয়না : এনটিভিতে প্রচারিত শিহাব শাহীনের পরিচালিত রমিজের আয়না নাটকটি বোধহয় বাংলাদেশ নাটকের ক্ষেত্রে বিশাল টার্নিং পয়েন্ট ছিল।

অপূর্ব, প্রাণ রায়, তিন্নি, লারা লোটাস, জেনি প্রমুখ অভিনয়শিল্পীদের অভিনয়, সেই সময়ের জন্য পারিবারিক কাহিনী থেকে বের হয়ে ভিন্ন ধারার একটি গল্প, সাথে হাবিব ওয়াহিদের মনোমুগ্ধকর সঙ্গীতায়োজনে এই নাটকটি মান এবং জনপ্রিয়তার দিক থেকে সর্বোচ্চ আসনেই থাকবে।

বন্ধন : একুশে টিভির অত্যন্ত জনপ্রিয় নাটক ছিল বন্ধন, যদিও ২০০২ সালে একুশে টিভির সম্প্রচার বন্ধ হয়ে যাওয়ায় নাটকটির প্রচার বন্ধ হয়ে গিয়েছিল। আবুল হায়াত, শর্মিলী আহমেদ, পীযূষ বন্দোপাধ্যায়, চিত্রলেখা গূহ, তুষার খান ছিলেন নাটকের অভিনয় শিল্পী হিসেবে। বন্ধন নাটকের গান ব্যস্ত শহরে এখনও অর্ণবের সবচাইতে জনপ্রিয় গানগুলোর মধ্যে অন্যতম।

একান্নবর্তী : মোস্তফা সরওয়ার ফারুকীর পরিচালিত প্রথম দিকের নাটক একান্নবর্তী ঘরে ঘরে অসাধারণ আলোড়ন তুলেছিল। একান্নবর্তী নাটকের ভক্ত ছিলেন না বাংলার ঘরে এমন নারী পাওয়া দুঃসাধ্যই হবে।

শুধু নারী নয় বরং বাবা-মা, ছেলে মেয়ে সহ নিজেদের একান্নবর্তী পরিবার নিয়েই এই নাটকটি দেখতে বসে যেতেন সবাই।মাহফুজ, অপি, মৌটুসী, তিন্নি সহ আরও অনেকে অভিনয় করেছেন এই নাটকে।

হাউজফুল : হাউজফুল হচ্ছে বাংলাদেশের আধুনিক দিনের জনপ্রিয় ধারাবাহিক নাটক । এটি পরিচালনা করেছেন রেদোয়ান রনি এবং ইফতিখার আহমেদ ফাহমি । এই নাটকে অভিনয় করেছেন মোশাররফ করিম, সুমাইয়া শিমু, মিথিলা, হাসান মাসুদ, মিশু সাব্বির, আবুল হায়াত এবং আরো অনেকে। হাস্যরসাত্মক এই নাটক মোশাররফ করিম এর ক্যারিয়রের অন্যতম মাইলফলক ছিল।

এফএনএফ : এনটিভির জনপ্রিয় এ ধারাবাহিক নাটকটিরও রচনা ও পরিচালনা করেছেন রেদওয়ান রনি।

এই নাটকটিতে অভিনয় করেছেন আবুল হায়াত, পার্থ বড়ুয়া, মোশাররফ করিম, অপি করিম, সুমাইয়া শিমু, শখ, আহমেদ রুবেল, ফারুক আহমেদ, ম. ম. মোর্শেদ, সাজু, নূপুর, নাজমা, পিদিম; দিহান, মিলন ভট্টাচার্য, সুম্মর শরীফ, আনোয়ারসহ আরো অনেকে। মোশাররফ করিমের হাস্যরসের পাশাপাশি পার্থ আর অপির কেমিস্ট্রি সহ সব মিলিয়ে নাটকটি অসাধারণ।

রঙের মানুষ : বাংলা কমেডি ধারাবাহিক নাটকের একটি মাইলফলক `রঙের মানুষ`।

নাটকটির পরিচালনায় ছিলেন সালাউদ্দিন লাভলু, অভিনয়ে ছিলেন বন্যা মির্জা, তানিয়া আহমেদ, মুক্তা, এটিএম শামসুজ্জামান, ওয়াহিদা মল্লিক জলি, সালাউদ্দিন লাভলু, আহমেদ রুবেল, ফজলুর রহমান বাবু, সমু চৌধুরী, রহমত আলী, আ খ ম হাসান, প্রাণ রায়, পরেশ আচার্য্য, রশীদ হারুন, আনিসুর রহমান মিলন, মোস্তাগিসুর রহমান বাবু সহ অনেকে। এই নাটকটি প্রচারিত হত এনটিভিতে।

কোথাও কেউ নেই : এটিও ৯০ দশকের হুমায়ূন আহমেদ এর লেখা একটি যুগান্তকারী নাটক যা পরিচালনা করেন বরকত উল্লাহ।

এই নাটকের প্রধান চরিত্র বাকের ভাই এখন পর্যন্ত দর্শকদের মনে গেঁথে আছে। একটি ধারাবাহিকের চরিত্রের জন্য সাধারণ জনগণের আন্দোলন করার নজির একমাত্র এই নাটকের ক্ষেত্রেই দেখা গেছে।

এই নাটকের প্রধান চরিত্রে ছিলেন আসাদুজ্জামান নূর। এছাড়াও সুবর্ণা মোস্তফা, আবদুল কাদের, মাহফুজ আহমেদ, আফসানা মিমি, হুমায়ূন ফরিদী, মোজাম্মেল হোসেন, সালেহ আহমেদ, আবুল খায়ের, নাজমা আনোয়ার, শহীদুজ্জামান সেলিম সহ আরও অনেক জনপ্রিয় শিল্পী। এই নাটকের “তুই রাজাকার” সংলাপটি এত বছর পরও মানুষের মুখে মুখে শোনা যায়।

অয়োময় : ৯০ দশকের আরো একটি অসাধারণ নাটক হুমায়ূন স্যারের অয়োময়।

অভিনয়ে রয়েছেন আসাদুজ্জামান নূর, সুবর্না মুস্তফা, আবুল হায়াৎ, আবুল খায়ের, সারা জাকের, বিপাশা হায়াৎ, তারানা হালিম, ডঃ ইনামুল হক, দিলারা জামান এবং আরো অনেকে।

ময়মনসিংহের শশীলজ ভবনে নাটকটি চিত্রায়িত হয়। সেই থেকে এখনও ভবনটি জমিদার বাড়ি হিসেবেই পরিচিত। বর্তমানে বাংলাদেশি চ্যানেলগুলোতে এ ধরণের ভালো নাটকের অভাব ফুটে উঠছে বিশেষ ভাবে। এতে ভালো লেখকের অভাব যেমন দেখা যায় তেমনি নেই উচ্চ মানের অভিনেতা, অভিনেত্রী বা পরিচালক।

স্বল্প পরিমাণে ভালো নাটক নির্মাণ হলেও বিজ্ঞাপনের অতি প্রাচুর্যের কারণে দর্শক হারিয়ে ফেলছে দেশি বিনোদন মাধ্যমগুলো।

আর তাই বিদেশি নাটক গুলোর প্রতি ঝুঁকে পড়েছে দেশের মানুষ।

কারণ ইন্টারনেট আর টরেন্টের যুগে বিজ্ঞাপন ছাড়াই উচ্চমানের নাটক দেখতে পাচ্ছে তারা সহজেই আর ভারতীয় নাটকগুলোর মান দেশি নাটক থেকে খুব একটা ভালো না হলেও দেশি চ্যানেল গুলোর মত বিজ্ঞাপনের মাত্রা ছাড়িয়ে যায়না।

দেশি নাটকের স্বর্ণযুগ ফিরিয়ে আনতে তাই নাটকের মান বাড়াতে হবে। মানসম্পন্ন লেখক, পরিচালক, অভিনেতা অভিনেত্রী নিয়ে আসতে হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএজে

আরও পড়ুন
সর্বাধিক পঠিত
বিশ্বের সবচেয়ে বড় ভিসা সেন্টার এখন ঢাকায়
শাকিবের সঙ্গে বিয়ে, যা বললেন নায়িকা বুবলী
ক্যামেরায় সম্পূর্ণ নগ্ন হয়েছেন এই অভিনেত্রীরা, কারা এরা?
বিদ্যুৎ বিল কমিয়ে নেয়ার কিছু টিপস
ব্যর্থ হলো মার্কিন ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র বিধ্বংসী পরীক্ষা
বিশ্বকাপের সব গোল্ডেন বল জয়ীরা
চীনের মধ্যস্থতায় তথ্য আদান-প্রদানে সম্মত পাকিস্তান-আফগানিস্তান
ধর্ষণের কবলে মৌসুমী হামিদ, ধর্ষক গাড়িচালক!
গৌরিকে নিয়ে ভক্তের প্রশ্ন, উত্তর দিলেন শাহরুখ!
এইচএসসি'র ফল জানা যাবে যেভাবে
যেসব দেশে কোনো নদী নেই
নিখোঁজের ৩৭ বছর পর ফিরে এসেছিলো যে বিমান
মীর জাফর ও তার সঙ্গীদের শেষ পরিণতি
কাতার বিশ্বকাপ নিয়ে কিছু ভবিষ্যতবাণী!
৭ মুসলিম, ১৫ আফ্রিকান নিয়ে ফাইনালে ফ্রান্স!
এখনই নাকের লোম তোলা বন্ধ করুন!
রহস্যময় ইনকা জাতির বিস্ময়কর কিছু দিক
আবারো হচ্ছে ‘কুছ কুছ হোতা হ্যায়’!
মারিয়ানা ট্রেঞ্চ: বিশ্বের গভীরতম স্থানের অজানা রহস্য
একাধিকবার বিয়ের পিঁড়িতে বসেছেন টয়া?
ব্রেকিং নিউজ:
প্রধানমন্ত্রীর কাছে এইচএসসি’র ফল হস্তান্তর; পাসের হার ৬৬.৬৪%, জিপিএ ৫ পেয়েছে ২৯ হাজার ২৬২ শিক্ষার্থী, কারিগরি শিক্ষা বোর্ডে পাসের হার ৭৫.৫০% এবং মাদ্রাসায় ৭৮.৬৭%