Alexa ক্যান্সার আক্রান্তদের জন্য চুল দান করলেন আরজে

ঢাকা, শনিবার   ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯,   আশ্বিন ৬ ১৪২৬,   ২১ মুহররম ১৪৪১

Akash

ক্যান্সার আক্রান্তদের জন্য চুল দান করলেন আরজে

বিনোদন ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১২:২৩ ৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯   আপডেট: ১৪:৪৯ ৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯

লাবণ্য দত্ত

লাবণ্য দত্ত

লম্বা ঘন চুল কোন মেয়েরই না পছন্দের! কথায় বলে, মেয়েদের সৌন্দর্যের আসল রহস্যই নাকি এই চুল। সেই চুল কেউ স্বেচ্ছায় কেটে অন্যকে দান করতে পারেন এমনটা কোনো মেয়ের পক্ষেই ভাবাটা কঠিন। তবে পেশায় রেডিও জকি (আরজে) লাবণ্য দত্ত সে কাজটিই করে দেখালেন। ক্যান্সার রোগীদের জন্য অবলীলায় নিজের লম্বা চুল দান করলেন তিনি।

লাবণ্যর এই পদক্ষেপ যে সত্যিই সাহসী সে কথা স্বীকার না করে উপায় নেই। কীভাবে এমন একটা ভাবনা লাবণ্যর মাথায় এলো? 

ভারতীয় গণমাধ্যমকে তিনি বলেন, সোনালি বেন্দ্রে যখন ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়েছিলেন, তখন সোশ্যাল মিডিয়াতে তার পোস্ট থেকে প্রথম রিয়েল হেয়ার উইগ বিষয়টি জানতে পারি। তিনি লিখেছিলেন, তার পরিচিত একজন হেয়ার স্টাইলিস্ট তাকে এই রিয়েল হেয়ার উইগ উপহার দিয়েছেন, তাতে ওনার আত্মবিশ্বাস বেড়েছে, ভালোলাগা তৈরি হয়েছে। 

এরপরেই আমি খোঁজ খবর নিয়ে বিষয়টা জানতে পারি। এদেশে মন্দিরে চুল দান করার বিষয়টা বহু পুরোনো, তবে সেগুলো কোনোটাই সেসব মানুষগুলোর কাছে পৌঁছোয় না যাদের এটা সত্যিই দরকার। বিদেশে ইন্ডিয়ান চুলের প্রচুর দাম। তবে অনেকেই এই রিয়েল হেয়ার উইগ কিনতে পারেন না, কারণ এটা হয়ত তাদের সামর্থ্যের বাইরে। সেখান থেকেই এই চুল দান করার বিষয়টা মাথায় আসে।

এমন একটা পদক্ষেপ কীভাবে সফল হল? একথা জানতে চাওয়া হলে লাবণ্য বলেন, আমি ক্যান্সার আক্রান্ত নিয়ে কাজ করে এ ধরনের বেশকিছু সংস্থার সঙ্গে কথা বলি। এভাবেই খোঁজ করতে গিয়ে মুম্বাইয়ের ‘কোপ উইথ ক্যান্সার’ বলে একটা সংস্থার সঙ্গে আমার কথা হয়, ওরা এগিয়ে আসে। আমার একটা রোমিং পার্টনার নামে গ্রুপ আছে। তারা আমাকে এ ধরনের পদক্ষেপের জন্য উৎসাহিত করে তোলে। 

রোমিং পার্টনারের বন্ধুরাই প্রথম চেয়েছিল এ বিষয়টা সবার কাছে পৌঁছাতে। শেষ পর্যন্ত কিছুদিন আগে আমি আমার লম্বা চুল কেটে মুম্বাইতে ‘কোপ উইথ ক্যান্সার’ সংস্থার কাছে পাঠিয়ে দেই।

তবে লাবণ্যর কথায়, শুধু রোমিং পার্টনারের বন্ধুরাই নন, তার এই পদক্ষেপে তিনি পাশে পেয়েছেন তার বাবা-মাকেও। কলকাতায় ক্যান্সার রোগীদের জন্য চুল দান করার এই পদক্ষেপ লাবণ্যই প্রথম করলেন বলে মনে করছেন অনেকেই। 

ডেইলি বাংলাদেশ/টিএএস