Alexa বাংলাদেশি পণ্যের রফতানি বাড়বে কলকাতায়: এফবিসিসিআই

ঢাকা, রোববার   ১৮ আগস্ট ২০১৯,   ভাদ্র ৩ ১৪২৬,   ১৬ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০

Akash

বাংলাদেশি পণ্যের রফতানি বাড়বে কলকাতায়: এফবিসিসিআই

 নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ০২:০৯ ১৭ জুলাই ২০১৯  

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

কোলকাতায় দু’দিনের সিডব্লিউবিটিএ ইস্টার্ন ইন্ডিয়া ট্রেড সামিট-২০১৯ শেষ হয়েছে। এর মাধ্যমে ভারতের রাজ্যগুলোতে বাংলাদেশি পণ্যের রফতানি আরো বাড়বে বলে আশা করছে দেশের ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআই। সংগঠনটির সভাপতি শেখ ফজলে ফাহিম বলেন, এই বাণিজ্য সম্মেলনের মাধ্যমে দু’দেশের ব্যবসায়ীদের আরো গভীর বন্ধুত্বের দিকে নিয়ে গেছে।

গত সোমবার (১৫ জুলাই) কলকাতার মেয়র ও মন্ত্রী ফরহাদ হাকিম প্রধান অতিথি হিসেবে দু’দিনের এ সম্মেলনের উদ্বোধন করেন। উদ্বোধন শেষে এফবিসিসিআই সভাপতি তার প্রবন্ধে উপস্থাপন করেন।

কনফেডারেশন অব ওয়েস্ট বেঙ্গল ট্রেড অ্যাসিয়েশনস আয়োজিত সম্মেলনে থাইল্যান্ড, বাংলাদেশ, নেপাল, ভূটান এবং ভারতের ঊর্ধ্বতন সরকারি কর্মকর্তা এবং ব্যবসায়ী নেতারা অংশ নেয়।

এফবিসিসিআই সভাপতি তার প্রবন্ধে উল্লেখ করেন, ২০১৭-১৮ অর্থবছরে ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য ছিল ৯.৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। সিডব্লিউবিটিএ’র যেহেতু ১০ লাখেরও বেশি ব্যবসায়ী সদস্য রয়েছেন, তাই এ সম্মেলনের মাধ্যমে ভারতের পশ্চিমবঙ্গে এবং সার্ক, বিবিআাইএন এবং বিমসটেক সদস্যভূক্ত দেশগুলোতে বাংলাদেশি  পণ্যের রফতানি বৃদ্ধির নতুন দিগন্ত উন্মোচিত হবে।

বাণিজ্য বহুমুখীকরণে এফবিসিসিআই সভাপতি বাংলাদেশের চামড়াজাত পণ্য, ওষুধ, জাহাজ নির্মাণ শিল্প, হিমায়িত সামুদ্রিক খাদ্য, সিরামিক, পাটপণ্য, তথ্য প্রযুক্তি, মৎস্য এবং হোম অ্যাপ্লায়েন্স উল্লেখ করেন।

সিডব্লিউবিটিএ সম্মেলন উদ্বোধনের পাশাপাশি দেশের ব্যবসায়ী নেতা ফজলে ফাহিম ভারতের শীর্ষস্থানীয় গণমাধ্যমগুলোর সঙ্গেও তার অভিজ্ঞতা বিনিময় করেন।

ভারতকে বাংলাদেশের অন্যতম কৌশলগত উন্নয়ন অংশীদার ও বৃহৎ বিনিয়োগকারী দেশ হিসেবে উল্লেখ করে শেখ ফাহিম জানান, বাংলাদেশের বিদ্যুৎ, রেল যোগাযোগ, সড়ক ও পরিবহণ, বস্ত্র শিল্প, ব্যাংক এবং টেলিযোগাযোগ খাতে ভারতের উল্লেখযোগ্য বিনিয়োগ রয়েছে। 

এছাড়া এফবিসিসিআই সভাপতি বলেন, বাংলাদেশ যেহেতু উন্নততর অর্থনৈতিক কাঠামোতে উন্নীত হচ্ছে তাই হালকা, মাঝারি ও ভারি শিল্পের জন্য যৌথ উদ্যোগে উচ্চ প্রযুক্তির গবেষণা, উন্নয়ন ও উদ্ভাবন খাতগুলোতে একসঙ্গে কাজ করার সুযোগ রয়েছে। তথ্য প্রযুক্তি, ন্যানো টেকনোলজি, রোবোটিক্স, সাইবার নিরাপত্তা, কৃত্তিম বুদ্ধিমত্তা ইত্যাদি খাতে সহযোগিতা বাড়াতেও ভারতকে তাগিত দেন ফজলে ফাহিম।

বাংলাদেশে ব্যবসা পরিচালনা সহজীকরণে প্রধানমন্ত্রীর দফতর, সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় এবং বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে এফবিসিসিআই নিবিড়ভাবে কাজ করে যাচ্ছে। এ বছরের শেষে এবং ২০২০ সাল নাগাদ এক্ষেত্রে লক্ষণীয় সাফল্য চোখে পড়বে বলেও উল্লেখ করেন তিনি। 

এছাড়াও এফবিসিসিআই সভাপতি বাংলাদেশ সরকারের দেয়া আকর্ষণীয় বিনিয়োগ সুবিধা গ্রহণ করে ভারতীয় বিনিয়োগকারীদেরকে ‘বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চলে’এবং অন্যান্য খাতে বিনিয়োগের আহ্বান জানান। 

ডেইলি বাংলাদেশ/টিএসআই/আরএইচ

Best Electronics
Best Electronics