বলাৎকারের পর এবার স্বাক্ষর জাল করলেন সেই শিক্ষক!

ঢাকা, রোববার   ০৫ এপ্রিল ২০২০,   চৈত্র ২২ ১৪২৬,   ১১ শা'বান ১৪৪১

Akash

বলাৎকারের পর এবার স্বাক্ষর জাল করলেন সেই শিক্ষক!

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২২:০২ ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০  

অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক আহসান হাবিব

অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক আহসান হাবিব

নারায়ণগঞ্জে অফিস সহায়ক বৃদ্ধকে বলাৎকারের পর এবার স্বাক্ষর জালের অভিযোগ উঠেছে শিক্ষক আহসান হাবিবের বিরুদ্ধে। তিনি সদর উপজেলার দাপা আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক।

সম্প্রতি জেলা শিক্ষা অফিসারের স্বাক্ষর জাল করে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড থেকে চার সদস্যের এডহক কমিটির অনুমোদন করিয়ে নেন ওই শিক্ষক। এ ঘটনা নিয়ে মঙ্গলবার স্কুলের অন্যান্য শিক্ষক ও অভিভাবকদের মধ্যে সমালোচনার ঝড় ওঠে।

এদিকে স্বাক্ষর জালিয়াতি করায় ওই শিক্ষকের এমপিও বন্ধের সুপারিশ না করার ব্যাখ্যা চেয়েছেন মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের বিদ্যালয় পরিদর্শক মোহাম্মদ আবুল মনছুর ভূঁইয়া।

প্রধান শিক্ষক আহসান হাবিব বলেন, সোমবার দুপুরে নিজ কার্যালয়ে ডেকে নিয়ে বোর্ড থেকে পাঠানো নোটিশটি জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা দিয়েছেন। লিখিতভাবে ব্যাখ্যা দেব। তবে কারো স্বাক্ষর জাল করিনি।

জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা শরিফুল ইসলাম বলেন, আহসান হাবিবের বিরুদ্ধে অভিযোগের শেষ নেই। তিনি এখন আমার স্বাক্ষর জাল করে এডহক কমিটির অনুমোদন নিয়েছেন। বিষয়টি বোর্ড জানতে পেরে তাকে এর ব্যাখ্যা চেয়ে নোটিশ দিয়েছে। যদি এ নোটিশ মিথ্যা হয় তাহলে তিনি বোর্ডে যাচাই করতে পারেন।

২০১৯ সালের জানুয়ারি ও ফেব্রুয়ারিতে একাধিকবার প্রধান শিক্ষক আহসান হাবিব বিদ্যালয়ের অফিস সহায়ককে বলাৎকার করেন বলে অভিযোগ ওঠে। এ ঘটনায় ওই বছরের ৫ ফেব্রুয়ারি একটি মামলা হয়। মামলায় তদন্ত করতে গিয়ে প্রধান শিক্ষকের অফিস কক্ষ থেকে সিসি ক্যামেরা ও বলাৎকারের সময়ে সিসিটিভির ফুটেজ উদ্ধার করে পুলিশ। এরপর পুলিশ ওই প্রধান শিক্ষককে গ্রেফতার করলে দীর্ঘদিন জেল খেটে জামিনে মুক্তি পান।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমআর