বরাদ্দ বাড়ছে বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতে

ঢাকা, মঙ্গলবার   ১৮ জুন ২০১৯,   আষাঢ় ৪ ১৪২৬,   ১৩ শাওয়াল ১৪৪০

বরাদ্দ বাড়ছে বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতে

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৬:৩০ ১৩ জুন ২০১৯  

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

২০১৯-২০ অর্থবছরের  প্রস্তাবিত বাজেটে বিদ্যুৎ এবং জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগের জন্য ২৮ হাজার ৫১ কোটি টাকা বরাদ্দের প্রস্তাব করা হয়েছে। যা বর্তমান ২০১৮-১৯ অর্থবছরে ছিল ২৬ হাজার ৫০২ কোটি টাকা।

‘সমৃদ্ধ আগামীর পথযাত্রায় বাংলাদেশ: সময় এখন আমাদের, সময় এখন বাংলাদেশের’ শিরোনামে দেশের ৪৮তম এবং বর্তমান সরকারের তৃতীয় মেয়াদের প্রথম বাজেট (২০১৯-২০) অর্থবছরের বাজেট উপস্থাপন চলছে। প্রস্তাবিত বাজেটের আকার ধরা হয়েছে পাঁচ লাখ ২৩ হাজার ১৯০ কোটি টাকা। দেশের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় বাজেট এটি।

বেলা ৩টা ৭ মিনিটে বাজেট বক্তৃতা শুরু করেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। কোরআন তেলাওয়াতের মধ্য দিয়ে বেলা ৩টায় স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে সংসদের বৈঠক শুরু হয়। এরপর স্পিকার অর্থমন্ত্রীকে বাজেট উপস্থাপনের জন্য আহ্বান জানান। এসময় প্রধানমন্ত্রী ও সংসদ নেতা শেখ হাসিনাসহ সরকারি এবং বিরোধী দলের প্রায় সব এমপি সংসদে উপস্থিত রয়েছেন। উপস্থিত রয়েছেন বিএনপির এমপিরাও।

বাজেট উপস্থাপন করার শুরুতে একটি প্রামাণ্যচিত্র তুলে ধরেন। ১৮ মিনিটের প্রামাণ্যচিত্রে বাংলাদেশের ইতিহাস, পাকিস্তান আমলের অর্থনৈতিক বৈষম্য, দেশের স্বাধীনতা, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যাসহ বিভিন্ন বিষয়ে তুলে ধরা হয়। ৩টা ২৬ মিনিটে তিনি মূল বাজেট বক্তৃতা শুরু করেন। শুরুতে বসে বক্তব্য দেন।

বাজেট পেশের আগে বেলা পৌনে ১টা থেকে শুরু হওয়া সংসদ ভবনের কেবিনেট কক্ষে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিপরিষদের বৈঠকে ২০১৯-২০ অর্থবছরের বাজেট অনুমোদন দেওয়া হয়। সাধারণত প্রতিবছরই বাজেট পেশের দিনে সংসদ ভবনে মন্ত্রিসভার সংক্ষিপ্ত বৈঠক বসে সেখানে বাজেট অনুমোদন দেয়া হয়। ওই বৈঠক শেষ হয় দুপুর আড়াইটায়।

প্রস্তাবিত নতুন ২০১৯-২০ অর্থবছরের বাজেটের আকার চলতি ২০১৮-১৯ অর্থবছরের মূল বাজেটের তুলনায় ৫৮ হাজার ৬১৭ কোটি টাকা বেশি। চলতি অর্থবছরের মূল বাজেটের আকার ছিল ৪ লাখ ৬৪ হাজার ৫৭৩ কোটি টাকা।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএম