বঙ্গবন্ধুর কলকাতার জীবন নিয়ে উপন্যাস 

ঢাকা, শুক্রবার   ২৯ মে ২০২০,   জ্যৈষ্ঠ ১৫ ১৪২৭,   ০৫ শাওয়াল ১৪৪১

Beximco LPG Gas

বঙ্গবন্ধুর কলকাতার জীবন নিয়ে উপন্যাস 

সাহিত্য ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৫:১২ ৭ ডিসেম্বর ২০১৯  

ছবি: লেখকের সৌজন্যে

ছবি: লেখকের সৌজন্যে

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বাল্যকাল থেকে কলকাতার ছাত্রজীবনের কাহিনী অবলম্বনে প্রকাশিত হতে চলেছে উপন্যাস ‘মহানির্মাণ’। উপন্যাসটি লিখেছেন অমিত গোস্বামী। প্রকাশক অন্বেষা প্রকাশ। প্রচ্ছদ ধ্রুব এষ। 

উপন্যাসের প্রাককথন লিখেছেন ‘জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটি, বাংলাদেশ’ এর প্রধান সমন্বয়ক কবি কামাল চৌধুরী। তিনি বলেছেন ‘এ উপন্যাস যদিও বঙ্গবন্ধুর ঘটনাবহুল জীবনের সামান্য অংশ ঘিরে আবর্তিত, কিন্তু এখানে সময়ের উত্তাপ দোলাচল বাজনৈতিক নাটকীয়তার পাশাপাশি বঙ্গবন্ধুর নেতা হয়ে ওঠার চিত্র খুঁজে পাওয়া যাবে। জীবন উপন্যাস স্মৃতিকথা বা ইতিহাস নয়, তবে ইতিহাস ও স্মতিকথাই এর মূল উপাদান। এখানে কল্পনার আশ্রয় নিতে হয়। অমিতও তাই করেছেন।

বঙ্গবন্ধুর কলকাতার জীবনকে অবলম্বন করে অমিতও কাল্পনিক কথোপকথনের বিন্যাস ঘটিয়েছেন। অমিতের ভাষা সাবলীলও আকর্ষণীয়। এ গ্রন্থ পাঠে পাঠক আনন্দ পাবেন, সেই সঙ্গে বঙ্গবন্ধুর কলকাতা জীবনের নানা দিক সম্পর্কে অবহিত হওয়ার সুযোগ পাবেন। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপনের প্রাক্কালে অমিত এ উপন্যাস রচনা করেছেন। এটি জাতির পিতার প্রতি তার শ্রদ্ধার বহিঃপ্রকাশ।। বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীতে অনেক গ্রন্থ প্রকাশিত হবে, আমার বিশ্বাস, সে তালিকায় এটি উল্লেখযোগ্য সংযোজন হবে। 
বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবের জীবন কাহিনী রচনা তাই দূরুহ এক কাজ। এই কাজে সামিল হয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের বিশিষ্টকবি, কথাশিল্পী অমিত গোস্বামী- তিনি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব-এর কলকাতার জীবন নিয়ে এ উপন্যাস রচনা করেছেন। অমিত বহুপ্রজ, সব্যসাচী লেখক। কবিতা গল্প উপন্যাসে তার সমান দক্ষতা। বাংলাদেশ, বাংলাদেশের মুিক্তযুদ্ধ- বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবের প্রতি অকৃত্রিম শ্রদ্ধা ও ভালোবাসা তিনি হৃদয়ে লালন করেন। এরইমধ্যে শহীদ আলতাফ মাহমুদ ও হুমায়ূন আহমেদকে নিয়ে তিনি ২টি উপন্যাস রচনা করেছেন বাংলাদেশের বেদে সমাজ নিয়ে বেবাইজান নামে তার একটি নৃতাত্তিক উপন্যাসও প্রকাশিত হয়েছে। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবকে নিয়ে একটি অখণ্ড জীবন- উপন্যাস লেখার চ্যালেঞ্জ সম্পর্কে অমিত অবহিত। সে জন্য তিনি তার কলকাতার জীবনকে বেছে নিয়েছেন।‘ 

লেখক অমিত গোস্বামী জানান ‘ আমি বাংলাদেশকে হৃদয়ে ধারন করি। আমার প্রকাশিত মৌলিক তিনটে উপন্যাস ‘যখন বৃষ্টি নামল’, ‘রজন আলির গজব গল্প’ ও ‘বেবাইজান’-এ বাংলাদেশ খুব গুরুত্বপূর্ণ চরিত্র। কিন্তু বাংলাদেশের নায়কদের নিয়ে লেখার শুরু শহিদ আলতাফ মাহামুদের জীবন নিয়ে ‘আলতাফ’ এবং সাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদের জীবন নিয়ে ‘হুমায়ূন’। কিন্তু বঙ্গবন্ধুর জীবনকাহিনী নিয়ে লেখার সাহস আমার ছিল না। প্রায় দুই বছর আগে আমাকে এই বিষয়টি বেছে নিতে বলেন আমার অগ্রজ কবি কামাল চৌধুরী। তিনি প্রথম দিন প্রায় তিন ঘণ্টা এই বিষয় নিয়ে তার বাসাতে বসে কথা বলেন আমার সঙ্গে। এরপরে তার তত্ত¡াবধানে আমি তথ্য সংগ্রহ করি। বঙ্গবন্ধু রচিত ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’ আমাকে একটা ধারনা দেয়। সেসময়ের পারিপার্শ্বিকতা, রাজনীতি, বঙ্গবন্ধুর ব্যবহারিক পরিবর্তন, নিজেকে একটা উচ্চতায় নিয়ে যাওয়া, দেশ নিয়ে তার স্বপ্নÑ এসবের জন্যে আমাকে পড়তে হয় বঙ্গবন্ধুর সে সময়ের ঘনিষ্ঠ মানুষজনের স্মৃতিচারন এবং স্বাধীনতাপূর্ব ভারতের স্বরাষ্ট্র দপ্তরের বিভিন্ন তথ্যাবলী। সময় লাগল প্রায় দু’বছর। তারপরে খসড়া পান্ডুলিপি লিখে পাঠাতে হয়েছে। পরিবর্তন করতে হয়েছে। পাঁচজন বিশিষ্ট লেখক পড়েছেন। উপদেশ দিয়েছেন। তারপরে চূড়ান্ত লেখাটি লিখতে পেরেছি। তবে জীবনভিত্তিক উপন্যাস এটাই শেষ। কারন শ্রেষ্ঠতম মানুষকে নিয়ে লেখার পরে আর কাউকে নিয়ে লেখাটা ঠিক নয়। আমি খুশি কারন বাংলাদেশের অন্যতম প্রধান প্রকাশনা থেকে এই উপন্যাস প্রকাশিত হতে চলেছে এবং প্রচ্ছদ করেছেন আমার প্রিয় শিল্পী ধ্রুব এষ।’

উপন্যাস প্রকাশ নিয়ে কথা হলো প্রকাশক শাহাদাৎ হোসেনের সঙ্গে। তিনি জানালেন যে উপন্যাসটি প্রকাশিত হবে জানুয়ারির প্রথম সপ্তাহে। কাজও প্রায় শেষ পর্বে। তবে যেহেতু জাতির পিতাকে নিয়ে এই বই। সে কারনে আমরা একটু সাবধানী। তাড়াহুড়ো করতে রাজী নই। বিশিষ্ট ব্যক্তিদের উপস্থিতিতে বইটির মোড়ক উন্মোচন হবে এবং লেখক যেহেতু সংবাদমাধ্যমের মানুষ সকল সংবাদমাধ্যমকে আমরা গুরুত্ব দিয়ে ডেকে একটি সার্থক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে বইটি প্রকাশ করব।  

ডেইলি বাংলাদেশ/আরআর