Alexa ফেসবুকে প্রতারণা, কঠোর অবস্থানে ডিএসই

ঢাকা, মঙ্গলবার   ২৩ জুলাই ২০১৯,   শ্রাবণ ৯ ১৪২৬,   ২০ জ্বিলকদ ১৪৪০

ফেসবুকে প্রতারণা, কঠোর অবস্থানে ডিএসই

মীর সাখাওয়াত সোহেল ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২১:৩১ ২৪ জুন ২০১৯   আপডেট: ২১:৪৪ ২৪ জুন ২০১৯

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক খুললেই দেখা যায় বেশ কিছু গ্রুপে চলছে পুঁজিবাজার নিয়ে আইটেম বিক্রির আলোচনা। যার বেশিরভাগ থাকে আগামী সপ্তাহে বা আগামীকাল কোন আইটেম (শেয়ার) কিনলে লাভ হবে বা কোন আইটেমের দাম দ্রুত কমবে। এতে বিভ্রান্ত হয়ে অনেক বিনিয়োগকারী প্রতারণার শিকার হচ্ছেন।

ফেসবুকে ডিএসই শেয়ার নিউজ ডেটা, বাংলাদেশ শেয়ার বাজার পূর্বাভাষ, প্রিন্স সিএসই ডিএসই, এমডি মাসুদুর রহমান, আকিজ আলীসহ আরো কয়েকটি নামে সক্রিয় রয়েছে চক্রটি। কয়েকজন ভুক্তভোগী জানান, প্রতিটি ‘আইটেমের’ জন্য প্রতারকরা পাঁচ থেকে সাত হাজার টাকা পর্যন্ত নিয়ে থাকে। সেই সঙ্গে কোন আইটেম (শেয়ার) কতদিনে কত শতাংশ বাড়বে তাও বলে দেয় তারা। বিষয়টি নজর এসেছে ডিএসই কর্তৃপক্ষের।

তাই এসব প্রতারক চক্রের বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ নেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) কর্তৃপক্ষ। সোমবার ডিএসইর প্রকাশনা ও জনসংযোগ বিভাগের উপমহাব্যবস্থাপক মো. শফিকুর রহমান এ তথ্য জানিয়েছেন।

ডিএসই’র  উপ-মহাব্যবস্থাপক মো. শফিকুর রহমান ডেইলি বাংলাদেশকে বলেন, ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ প্রতারকদের বিষয়ে সচেতন রয়েছে। কেউ যেন ফেসবুকের মাধ্যমে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের সঙ্গে প্রতারণা করতে না পারে, সে বিষয়ে ডিএসই শক্ত অবস্থানে রয়েছে। যারা এ ধরনের কাজের সঙ্গে জড়িত তাদের বিষয়ে খোঁজ খবর নেয়া হচ্ছে। পাশাপাশি জনসাধারণকে সচেতন করতে নানা ধরনের পদক্ষেপ নেয়ার কথাও জানান তিনি।

এর আগে ২০১৫ সালের ৩ আগস্ট ফেসবুকে পুঁজিবাজার নিয়ে প্রতারণার দায়ে মাহবুব সারোয়ার নামে এক ব্যক্তিকে ২ বছরের কারাদণ্ড দেয় পুঁজিবাজার নিয়ে গঠিত বিশেষ ট্রাইব্যুনালের বিচারক হুমায়ুন কবীর। এরপরও ফেসবুকের মাধ্যমে বিনিয়োগকারীদের ফাঁদে ফেলে টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে প্রতারক চক্রগুলো।

পুঁজিবাজারে মিথ্যা তথ্য দিয়ে টাকা তুলে নেয়ার কৌশল বেশ পুরনো। তবে সময়ের সঙ্গে প্রতারক চক্রও নিজেদের অ্যানালগ থেকে ডিজিটালে বদলে নিয়েছে। প্রতারণার ধরনও পাল্টিয়েছে তারা। এজন্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমকেই বেছে নিয়েছে চক্রটি।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, এমডি মাসুদুর রহমান নামক ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকেও টাকার বিনিময়ে আইটেম দেয়া হয়। ২টি আইটেমের জন্য ৭ হাজার টাকা নেন তিনি। আর একটির জন্য নেন ৫ হাজার টাকা। এই আইটেমগুলো পেতে হলে টাকা অগ্রিম বিকাশ করতে হয়। তবে ওইসব আইটেমে মুনাফা করতে না পারলে তারা টাকা ফেরত দেয়ারও নিশ্চয়তা দেন বলে জানা গেছে।

এ বিষয়ে ডিএসই ব্রোকার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি শাকিল রিজভী বলেন, ফেসবুক গ্রুপে দেয়া তথ্যের কোনো ভিত্তি নেই। বাজারে কোন না কোন ব্যক্তি বা গ্রুপ বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে অর্থ লুটে নেয়ার ধান্দায় থাকে। তিনি বিনিয়োগকারীদের সচেতন হওয়ার আহ্বান জানান।

ডেইলি বাংলাদেশ/এসএস/এমআরকে/এস