Alexa ফেনীতে পরিত্যক্ত ভবনে ঝুঁকি নিয়ে পাঠদান

ঢাকা, রোববার   ২৫ আগস্ট ২০১৯,   ভাদ্র ১১ ১৪২৬,   ২৪ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০

Akash

ফেনীতে পরিত্যক্ত ভবনে ঝুঁকি নিয়ে পাঠদান

 প্রকাশিত: ২১:৫৩ ৯ নভেম্বর ২০১৮   আপডেট: ২১:৫৩ ৯ নভেম্বর ২০১৮

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ফেনী সদর উপজেলার মোটবী ইউপির লস্করহাট প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ঝুঁকিপূর্ণ ভবনে চলছে পাঠদান। ভয় আতঙ্ক নিয়ে শ্রেণি কার্যক্রম করছে শিক্ষার্থীরা। ফলে যে কোনো সময় ঘটতে পারে মারাত্মক দুর্ঘটনা। বিভিন্ন সময় ছাদের পলেস্তারা পড়ে, পিলার খসে আহত হয়েছে অন্তত ১২ শিক্ষার্থী।

স্কুল ভবনে অন্ধকার, স্যাঁতস্যাঁতে পরিবেশ। মেঝেতে উঁচু-নিচু গর্ত, ছাদের প্লাস্টার খসে লোহার রড বের হয়ে মরিচা পরে সরু হয়ে গেছে। জানালা-দরজা ভাঙা, পিলার দেয়ালে বড় বড় ফাটল, বৃষ্টি হলে ছাদ ছুঁয়ে পানি পড়ে। ভয় আতঙ্কে ক্লাস করছে শিক্ষার্থীরা। ঝুঁকিপূর্ণ ভবনের কারণে অভিভাববকরা স্কুলে তাদের সন্তানদের ভর্তি করাতে চান না।

ভবনটি কর্তৃপক্ষ পরিত্যক্ত ঘোষণা করেছেন প্রায় ১০ বছর আগে। নতুন ভবন না থাকায় নিরূপায় হয়ে ক্লাস নিচ্ছেন শিক্ষকরা। নতুন ভবনের দাবি জানিয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয় জেলা শিক্ষা অফিসে আবেদন করেও কোনো কাজ হয় নি। এতে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের জীবন ঝুঁকির মুখে পড়ছে। বিভিন্ন সময়ে পরিত্যক্ত ভবনের ছাদের প্লাস্টার খসে পড়ে কয়েকজন ছাত্র-ছাত্রী আহত হয়েছে। বর্তমানে ভয়ে অনেক ছাত্র-ছাত্রী বিদ্যালয়ে আসতে চায় না। বৃষ্টির সময় ছাদ চুঁয়ে পানি পড়ার কারণে ক্লাস নেয়া সম্ভব হয় না। বিদ্যালয়টির ফলাফল ভালো হলেও শ্রেণিকক্ষ সংকটে পাঠদান ব্যাহত হচ্ছে।

বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা শাহানা আক্তার কাহিনী বলেন, আমরা ভয় নিয়ে শ্রেণি কার্যক্রম চালাতে হয়। যেকোনো সময় দুর্ঘটনা ঘটলে এর দায়িত্ব কে নিবে? ঝুঁকিপূর্ণ ভবনের কারণে বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী কমে যাচ্ছে।

অভিভাবক মতিউর রহমান বলেন, সন্তানদের স্কুলে পাঠিয়ে আমাদের দুশ্চিন্তায় থাকতে হয়। তাদের অন্য স্কুলে ভর্তির সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা কানিজ সানজিদা বলেন, জরাজীর্ণ ভবনে শ্রেণি অফিস কার্যক্রম চালাতে হচ্ছে। ভবনের পাশাপাশি স্কুলে মানসম্মত টয়লেট নেই। আশেপাশে সব স্কুলে শৌচাগার থাকলেও বিদ্যালয় সুবিধা থেকে বঞ্চিত।

মোটবী ইউপি চেয়ারম্যান হারুনুর রশিদ বলেন, নিজাম উদ্দিন হাজারী এমপিকে অবহিত করে শীঘ্রই নতুন ভবন নির্মাণে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া হবে।

ফেনী সদরের ইউএনও মো. মামুন বলেন, বিষয়টি খোঁজ নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএইচ

Best Electronics
Best Electronics