Alexa ফরিদপুরে প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে একটিতে

ঢাকা, সোমবার   ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯,   আশ্বিন ৮ ১৪২৬,   ২৩ মুহররম ১৪৪১

Akash

ফরিদপুরে প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে একটিতে

হারুন আনসারী|ফরিদপুর

 প্রকাশিত: ২০:১৭ ১৯ ডিসেম্বর ২০১৮   আপডেট: ২০:১৭ ১৯ ডিসেম্বর ২০১৮

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

৯টি উপজেলা নিয়ে গঠিত ফরিদপুর জেলার সংসদীয় আসন রয়েছে ৪টি। প্রতিক বরাদ্দের পর শুরু হয়েছে একাদশ সংসদ নির্বাচনের প্রচারণা। ক্ষমতাসীন দলের প্রার্থীর কর্মী-সমর্থকরা মাঠ দাপিয়ে বেড়ালেও হেভিওয়েট প্রার্থীর অভাবে নির্বাচনী মাঠে ততপর নেই বিএনপি।

তবে ফরিদপুরে প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে ফরিদপুর-২ আসনের প্রার্থী সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী ও বিএনপির শামা ওবায়েদ ইসলামের মধ্যে।

ফরিদপুর-১ মধুখালী, বোয়ালমারী ও আলফাডাঙ্গা উপজেলা নিয়ে গঠিত এই আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী সাবেক সচিব মঞ্জুর হোসেন বুলবুল, বিএনপির শাহ মো. আবু জাফর, ইসলামী আন্দোলনের ওয়ালিউর রহমান ও এনপিপির মো. জাকারিয়া এবারের নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এ আসনটি আওয়ামী লীগের দূর্গ।

এখানে মনোনয়ন লাভকে কেন্দ্র করে সৃষ্টি হওয়া আওয়ামী লীগের বিভেদ এখন আর নেই। তবে আওয়ামী লীগ থেকে জাতিয় পার্টি ও পরবর্তীতে বিএনপিতে যোগদানকারী নেতা বীর মুক্তিযোদ্ধা শাহ মো. আবু জাফর এখানে বিএনপিকে সংগঠিত করে তুলেছেন।

তবে সব মিলিয়ে এই আসনে নৌকা প্রতিকের বিজয় হবে বলে মনে করা হচ্ছে।

ফরিদপুর-২ নগরকান্দা ও সালথা উপজেলা এবং সদরপুর উপজেলার কৃষ্ণপুর ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত এই আসনে আওয়ামী লীগের সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী, বিএনপির শামা ওবায়েদ ইসলাম, ইসলামী আন্দোলনের কেএম সরোয়ার এবং বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের মো. জয়নুল আবেদীন ওরফে বকুল মিয়া প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

এখানে হাড্ডা হাড্ডি লড়াইয়ের সম্ভাবনা রয়েছে। ধানের শীষের প্রার্থীর সঙ্গে নৌকার প্রার্থীর বিজয়ী হওয়ার সম্ভাবনা।

ফরিদপুর-৩ সদর উপজেলা নিয়ে গঠিত গুরুত্বপূর্ণ এ আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী এলজিআরডি মন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেন, বিএনপির প্রার্থী চৌধুরী কামাল ইবনে ইউসুফ, সিপিবির রফিকুজ্জামান মিয়া ও ইসলামী শাসনতন্ত্র আন্দোলনের এম এম নুরুল ইসলাম প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

বর্তমানে এই আসনে নির্বাচনে মাঠে একক আধিপত্য বজায় রেখেছেন নৌকার প্রার্থী। ফরিদপুরে ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফের আমলে ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে এবং তার প্রভাব থাকবে নির্বাচনে।

ফরিদপুর-৪ ভাঙ্গা, সদরপুর ও চরভদ্রাসন উপজেলা নিয়ে গঠিত ফরিদপুর-৪ আসনটি আওয়ামী লীগের ঘাঁটি। তবে এখানে বিএনপির সমর্থন বেড়েছে। এই আসনে নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজী জাফরুল্লাহ ও স্বতন্ত্র প্রার্থী মজিবুর রহমান নিক্সন চৌধুরী ছাড়াও বিএনপির খন্দকার ইকবাল হোসেন সেলিম প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

২০১৪ সালের নির্বাচনে বিএনপির অনুপস্থিতিতে এখানে বিএনপির ভোট ও আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী ভোটের সুবাদে এমপি নির্বাচিত হন আওয়ামী পরিবারের সন্তান মজিবুর রহমান নিক্সন চৌধুরী। এবারের নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজী জাফরুল্লাহ ও স্বতন্ত্র প্রার্থী মজিবুর রহমান নিক্সন চৌধুরী মধ্যে প্রতিযোগিতা হলেও এখানে নৌকা প্রতিক বিজয়ী হওয়ারই সম্ভাবনা রয়েছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এসআর/আরআর