প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখান করায় ২১ দিন ধরে স্কুলছাত্রী নিখোঁজ!

ঢাকা, সোমবার   ০১ জুন ২০২০,   জ্যৈষ্ঠ ১৮ ১৪২৭,   ০৮ শাওয়াল ১৪৪১

Beximco LPG Gas

প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখান করায় ২১ দিন ধরে স্কুলছাত্রী নিখোঁজ!

হরিপুর (ঠাকুরগাঁও) প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২১:০৮ ৫ মে ২০২০  

অপহরণকারী ও নিখোঁজ স্কুলছাত্রী

অপহরণকারী ও নিখোঁজ স্কুলছাত্রী

প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যখান করায় ঠাকুরগাঁওয়ের হরিপুরে আজিজা আক্তার উর্মি নামে এক স্কুলছাত্রীকে অপহরণ করা হয়েছে।

এ ঘটনায় হরিপুর থানায় মামলা একটি অভিযোগ করেছেন স্কুলছাত্রীর বাবা আমিরুল ইসলাম।

অপহরণের ২১দিন পেরিয়ে গেলেও অপহরণকারী মো. গোলাপসহ তার সহযোগীদের গ্রেফতার করতে পারেনি থানা পুলিশ। 

এদিকে স্কুলছাত্রী বেঁচে আছে, না তাকে মেরে ফেলা হয়েছে, এ আশঙ্কায় চরম উৎকণ্ঠায় আছে আজিজা আক্তার উর্মির পরিবার। 

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, ঠাকুরগাঁওয়ের রানীশংকৈল উপজেলার রাউতনগর (পুলপাড়) গ্রামের দুলালে ছেলে মো. গোলাপ পার্শ্ববর্তী হরিপুর উপজেলার ভাতুরিয়া গ্রামের আমিরুল ইসলামের স্কুল পড়ুয়া মেয়ে আজিজা আক্তার উর্মিকে দীর্ঘ এক বছর ধরে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে প্রেমের সম্পর্ক গড়ার চেষ্টা করে। কিন্তু গোলাপের প্রস্তাব স্কুলছাত্রী প্রত্যখান করে তার নিজ পরিবারকে বিষয়টি অবহিত করে। 

পরে স্কুলছাত্রীর বাবা আমিরুল ইসলাম তার মেয়েকে উত্যক্ত করার বিষয়টি  গোলাপের পরিবারকে অবগত করেন। এতে গোলাপ ক্ষিপ্ত হয়ে গত ১৬ এপ্রিল স্কুলছাত্রীকে রাস্তা থেকে অপহরণ করে মাইক্রোবাসে করে নিয়ে পালিয়ে যায়। 

ঘটনার দিনই ওই ছাত্রীর বাবা আমিরুল ইসলাম হরিপুর থানায় অপহরণের বিষয়ে একটি লিখিত অভিযোগ করেন। ২৫ এপ্রিল হরিপুর থানা পুলিশ অভিযোগটি আমলে নিয়ে ২০০০ সালের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন (সংশোধন ২০০৩) এর ৭/৩০ ধারায় মামলা করে। 

স্কুলছাত্রীর বাবা আমিরুল ইসলাম বলেন, আমার মেয়েকে অপহরণের দায়ে থানায় মামলা করার পর থেকেই গোলাপের পরিবার ও তার আত্মীয় স্বজনরা বিভিন্নভাবে আমাকে ও আমার পরিবারকে মামলা তুলে নেয়ার জন্য হুমকি দিয়ে আসছে। বিষয়টি থানা পুলিশকে অবহিত করা হলেও কার্যত কোনো ব্যবস্থা নিচ্ছে না। 

তিনি আরো বলেন, আমি আমার মেয়েকে দ্রুত জীবিত অবস্থায় ফিরে পেতে কর্তৃপক্ষের কাছে আকুল আবেদন করছি।

অপহরণ মামলার তদন্ত কর্মকর্তা হরিপুর থানার এসআই তাজরুল ইসলাস জানান, আজিজা আক্তার উর্মি নামে এক স্কুলছাত্রীকে অপহরণের অভিযোগে ২৫ এপ্রিল হরিপুর থানায় একটি মামলা হয়েছে। মামলার আসামিদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

তিনি আরো বলেন, হুমকির বিষয়টি আমি স্কুলছাত্রীর বাবার মুখে শুনেছি। তবে অপরাধ যেই করুক কাউকে ছাড় দেয়া হবে না।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএইচ