Alexa প্রেমিকাকে ফাঁসাতে গিয়ে ফেঁসে গেলেন প্রেমিক নিজেই

ঢাকা, শুক্রবার   ১৫ নভেম্বর ২০১৯,   কার্তিক ৩০ ১৪২৬,   ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

Akash

প্রেমিকাকে ফাঁসাতে গিয়ে ফেঁসে গেলেন প্রেমিক নিজেই

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২১:৪১ ৪ নভেম্বর ২০১৯  

ছবি : সংগৃহীত

ছবি : সংগৃহীত

প্রেমিকাকে ইয়াবা দিয়ে ফাঁসাতে গিয়ে প্রেমিক নিজেই ফেঁসে গেলেন। ধূর্ত এই প্রেমিক এখন পুলিশের কব্জায়। রোববার রাতে চট্টগ্রাম নগরীর বাকলিয়া থানার শাহ আমানত সোসাইটিতে এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় আটক নয়ন ভট্টাচার্য ওরফে মাসুদ রানার বাড়ি রাউজান উপজেলার নোয়াপাড়ার পথেরহাটে।

বাকলিয়া থানার ওসি (তদন্ত) মো. মঈন উদ্দিন বলেন, নয়ন স্বামী পরিত্যাক্তা এক নারীর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তুলেছিলেন। নিজের পরিচয় গোপন করে ওই নারীকে বিয়ের কথা বলে শাহ আমানত সোসাইটির এমএস টাওয়ার নামে একটি ভবনে বাসা ভাড়া নিয়ে স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে থাকতেন।

নয়নের পরিবার নগরীর বাকলিয়া সৈয়দ শাহ রোডের সৈয়দ শাহ ভবনে থাকে।

মঈন উদ্দিন বলেন, নয়ন বিভিন্ন সময় মাল্টিপারপাস ব্যবসায় বিনিয়োগের কথা বলে ওই নারীর কাছ থেকে প্রায় সাড়ে নয় লাখ টাকা ও ১০ ভরি স্বর্ণালংকার হাতিয়ে নিয়েছে। সম্প্রতি সম্পর্কের অবনতি হওয়ায় ওই নারী টাকা ফেরত দিতে চাপ দেয়। টাকা যাতে পরিশোধ করতে না হয় সেজন্য নয়ন সম্প্রতি ওই নারীকে মাদক মামলায় ফাঁসানোর ষড়যন্ত্র করতে থাকেন।

বাকলিয়ার থানার ওসি নেজাম উদ্দিন বলেন, নয়ন যে বিবাহিত সেটা জানতে পেরে ওই নারী তাকে টাকা পরিশোধে চাপ দিতে থাকে। চাপে পড়ে নয়ন রোববার রাতে ৫০ হাজার টাকা পরিশোধের আশ্বাস দেয়। কিন্তু টাকা না দিয়ে সে বাসার ওয়ার্ডরোবে ছোট দুইটি প্যাকেটে ৯১০টি ইয়াবা রেখে পুলিশকে খবর দেয়।

ওসি আরো বলেন, এরপর ওই বাসাটির পাশাপাশি পুলিশ নয়নকেও নজরদারিতে রাখে। রাতে অভিযানে গিয়ে ইয়াবার সন্ধান না পেয়ে তার কাছ থেকে আরো তথ্য জানতে চাওয়া হয়, তখন সে ইয়াবা রাখার সঠিক স্থান দেখিয়ে দেয়ায় পুলিশের সন্দেহ হয়।

ওসি বলেন, পরে জিজ্ঞাসাবাদের একপর্যায়ে নয়ন জানায়, টাকা পরিশোধ না করতে নিজেই বাসায় ইয়াবা রেখেছিল।

নয়নের বিরুদ্ধে ওই নারী ধর্ষণ ও প্রতারণা এবং পুলিশ মাদক আইনে আলাদা আলাদা মামলা করেছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএইচ