Alexa প্রায় সময় প্রস্তাব আসে...?

ঢাকা, মঙ্গলবার   ১৫ অক্টোবর ২০১৯,   আশ্বিন ৩০ ১৪২৬,   ১৫ সফর ১৪৪১

Akash

প্রায় সময় প্রস্তাব আসে...?

 প্রকাশিত: ১১:৩০ ১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৮   আপডেট: ১১:৩৩ ১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

কুসুম শিকদার

কুসুম শিকদার

জনপ্রিয় অভিনেত্রী কুসুম শিকদার। এই অভিনেত্রীকে বরাবরই সমসাময়িক অন্যদের চেয়ে অভিনয়ে কম দেখা যায়। তবে ছোট পর্দা ও চলচ্চিত্র দুটোতেই বেশ প্রশংসিত তিনি। তাছাড়া কুসুমের অভিনীত ‘গহীনের শব্দ’, ‘লালটিপ’ ও ‘শঙ্খচিল’ ছবিগুলো সবার কাছে এরইমধ্যে বেশ প্রশংসিত হয়েছে।

তারপরেও অভিনয়ে এই অভিনেত্রীর উপস্থিতি চোখে পড়ার মতন। তবে কি তার হয়াতে কাজ আসেনা? নাকি তিনি কাজ থেকে দূরে থাকতে চান? এমন প্রশ্নের জবাবে কুসুম ডেইলি বাংলাদেশকে বলেন, প্রায় সময় নতুন চলচ্চিত্র ও নাটকের প্রস্তাব আসে। কিন্তু সেগুলোর গল্প-চরিত্র আমার পছন্দ হয় না।

কারণ হিসেবে তিনি বলেন, আমার অভিনীত ‘গহীনের শব্দ’, ‘লালটিপ’ ও ‘শঙ্খচিল’ ছবিগুলো সবার কাছে প্রশংসিত হয়েছে। এই ছবিগুলোর মধ্য দিয়ে যে সুনাম অর্জন করেছি সেটি হারাতে চাই না। মনের মতো গল্প-চরিত্র না পাওয়া পর্যন্ত নতুন ছবির জন্য অপেক্ষা করবো। আমাকে প্রতি মাসে কাজ করতে হবে এমন নয়। আমি এখন দর্শকের মাঝে আজীবন বেঁচে থাকার জন্য কাজ করতে চাই।

এদিকে কুসুমের অভিনয়ের বাইরে কণ্ঠশিল্পী হিসেবেও বেশ পরিচিতি রয়েছে। গেলো বছরে ‘নেশা’ শীর্ষক একটি গানের মিউজিক ভিডিওর মধ্য দিয়ে আলোচনা-সমালোচনায় আসেন তিনি। প্রায় আঠারো বছর পর কুসুম এই গানটির মধ্য দিয়ে সংগীতে ফেরেন।

এর আগে, ১৯৯৯ সালে তিনি নিয়মিত গান করতেন। তার গাওয়া তিনটি অ্যালবাম প্রকাশ হয়। অ্যালবাম তিনটি হলো তুমি আজ কত দূরে (একক), জীবনের যত চাওয়া এবং অদলবদল (মিক্সড)। তবে ২০০২ সালে লাক্স-আনন্দধারা ফটোজেনিক চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পর কুসুম গান থেকে নিজেকে সরিয়ে নেন।

প্রসঙ্গত, কুসুম ছোট পর্দায় সর্বশেষ ‘আস্থা’ নামে একটি সিরিয়ালে ও চলচ্চিত্রে যৌথ প্রযোজনার ‘শঙ্খচিল’ ছবিতে অভিনয় করেন। এরপর থেকে তাকে আর নতুন কোন চলচ্চিত্র ও সিরিয়ালে দেখা যায়নি।

এদিকে প্রায় এক মাস পর সিঙ্গাপুর থেকে দেশে ফিরলেন এই জনপ্রিয় অভিনেত্রী কুসুম শিকদার। গত বৃহস্পতিবার সকালে তিনি দেশে ফেরেন। সিঙ্গাপুরে বেড়ানো এবং কাজিনের বিয়েতে অংশ নেয়া- এই ছিল সফরের উদ্দেশ্য তার।

কুসুম বলেন, কাজিনের বিয়েতে অংশ নেয়ার জন্যই মূলত সিঙ্গাপুরে যাওয়া। এছাড়া সেখানে দর্শনীয় স্থানগুলোতে বেড়ানোরও ইচ্ছে ছিল। দুটি ইচ্ছেই পূরণ হয়েছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডআই/টিএএস