Alexa ‘প্রাণ-মিল্কভিটা-আড়ংসহ পাস্তুরিত ৭ দুধ মানহীন’

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ১৮ জুলাই ২০১৯,   শ্রাবণ ৩ ১৪২৬,   ১৪ জ্বিলকদ ১৪৪০

‘প্রাণ-মিল্কভিটা-আড়ংসহ পাস্তুরিত ৭ দুধ মানহীন’

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৫:২৫ ২৫ জুন ২০১৯   আপডেট: ১৭:৫৯ ২৫ জুন ২০১৯

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্মেসি বিভাগের নমুনা পরীক্ষায় প্রাণ, মিল্কভিটা, আড়ং’সহ বাজারে বিক্রি হওয়া পাস্তুরিত ৭টি দুধ-ই মানহীন বলে জানানো হয়েছে। এগুলোর কোনোটিতে মিলেছে মাত্রাতিরিক্ত কলিফর্মের উপস্থিতি, আবার কোনোটিতে মিলেছে এন্টিবায়োটিক। 

মঙ্গলবার সকালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞান গ্রন্থাগারে খাদ্যের গুনগত মান পরীক্ষার ফলাফল বিশ্লেষণ ও প্রতিবেদন প্রকাশ করে ফার্মেসি বিভাগ।

এতে বলা হয়, প্রাণ, মিল্কভিটা, আড়ংসহ পাস্তুরিত দুধের ৭ টি নমুনার কোনোটিতেই কাঙ্খিতমাত্রার ‘সলিড নট ফ্যাট’ পাওয়া যায়নি। এই ৭টি নমুনায় ছিল: মিল্ক ভিটা, আড়ং, প্রাণ।

গবেষণায় আরো বলা হয়, ফ্রুট ড্রিংকসের ১১ টি নমুনার সবগুলোতে নিষিদ্ধ ক্ষতিকর সাইক্লামেট পেয়েছেন তারা। এগুলো হলো, স্টার শিপ ম্যাংগো ফ্রুট ড্রিংকস, সেজান ম্যাংগো ড্রিংক, প্রাণ ফ্রুটো, অরেনজি, প্রাণ জুনিয়র ম্যাংগো ফ্রুট ড্রিংক, রিটল ফ্রুটিকা, সান ড্রপ, চাবা রেড এপল, সানভাইটাল নেক্টার ডি ম্যাংগো, লোটে সুইটেন্ডএপল, ট্রপিকানা টুইস্টার।

গবেষণায় প্রাপ্ত ফলাফল অনুযায়ী পাস্তুরিত দুধের ৭টি নমুনার সবগুলোতেই মানব চিকিৎসায় ব্যবহৃত এন্টিবায়োটিক লেভোফ্লক্সাসিন, সিপ্রোফ্লক্সাসিন এবং ৬টিতে এজিথ্রোমাইসিনের উপস্থিতি পাওয়া গেছে।

এছাড়া পাস্তুরিত-অপাস্তুরিত দুধের মোট ১০টি নমুনার মধ্যে ১টিতে ফরমালিন ও ডিটারজেন্টের উপস্থিতি সনাক্ত করা হয়েছে। শুধু তাই নয়, বাজারে প্রচলিত ঘি, ফ্রুট ড্রিংকস, গুঁড়া মশলা, পাম অয়েল, সরিষার তেল, সয়াবিন তেলের নমুনা পরীক্ষা করে দেখা গেছে সেগুলোর বেশিরভাগই মানোত্তীর্ণ হতে ব্যর্থ হয়েছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএইচ