Alexa প্রবাসীর স্ত্রী অন্তঃসত্ত্বা, ফেঁসে গেলেন চাচা শ্বশুর

ঢাকা, শনিবার   ০৭ ডিসেম্বর ২০১৯,   অগ্রহায়ণ ২২ ১৪২৬,   ০৯ রবিউস সানি ১৪৪১

প্রবাসীর স্ত্রী অন্তঃসত্ত্বা, ফেঁসে গেলেন চাচা শ্বশুর

ফেনী প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ০৩:৪০ ২৩ নভেম্বর ২০১৯  

অভিযুক্ত শফি উল্লাহ

অভিযুক্ত শফি উল্লাহ

ফেনীর সোনাগাজীতে চাচা শ্বশুরের ধর্ষণে প্রবাসীর স্ত্রী অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েছেন। এ ঘটনায় মামলা হয়েছে।

অভিযুক্ত শফি উল্লাহ ওই উপজেলার সদর ইউপির ছাড়াইতকান্দি গ্রামের বাসিন্দা।

মামলার এজাহারে বলা হয়েছে, শফি উল্লাহ দীর্ঘদিন ধরে ওই গৃহবধূকে উত্যক্ত করছিলেন। এমনকি অর্থের বিনিময়ে অনৈতিক কাজের প্রলোভনও দেখিয়েছেন। ওই গৃহবধূ বিষয়টি স্বামী ও পরিবারকে জানানোয় ক্ষিপ্ত হয়ে ১৮ জুন দুপুরে ঘরে ঢুকে তাকে ধর্ষণ করেন শফি উল্লাহ।

ধর্ষণের শিকার গৃহবধূ জানান, দুই বছর আগে তার স্বামী বিদেশে যান। শ্বশুরও একটি দোকানে চাকুরি করেন। এ কারণে অসুস্থ শাশুড়িকে নিয়ে বাড়িতেই থাকতেন তিনি। ঘরে কোনো পুরুষ না থাকায় শফি উল্যাহ প্রায়ই উত্ত্যক্ত করার পাশাপাশি অনৈতিক কাজের প্রস্তাব দিতেন। বিষয়টি পরিবারকে জানানোর পর তারা শফি উল্যাহকে সতর্ক করেন। এতে আরো বেপরোয়া হয়ে ওঠেন তিনি।

ওই গৃহবধূ আরো জানান, ১৮ জুন দুপুরে শফি উল্যাহ ঘরে ঢুকে তাকে ধর্ষণ করেন। বিষয়টি কাউকে জানালে প্রাণনাশের হুমকিও দেন তিনি। লোকলজ্জায় বিষয়টি কাউকে জানাতে পারেনি ওই গৃহবধূ। কয়েকদিন আগে তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েন। ডাক্তারি পরীক্ষায় জানা যায় তিনি পাঁচ মাসের অন্তঃসত্ত্বা। বিষয়টি জানাজানি হলে স্থানীয়ভাবে সমাধানের লক্ষ্যে দুই দফা সালিশ করেও সমাধান হয়নি।

সালিশে ওই গৃহবধূকে আইনি সহায়তা নেয়ার প্রস্তাব দেয়া হয়। পরে শফি উল্লাহ’র বিরুদ্ধে মামলা করেন তিনি।

সোনাগাজী মডেল থানার ওসি মঈন উদ্দিন আহমেদ বলেন, ধর্ষণে অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূ মামলা করেছেন। অভিযুক্ত শফি উল্যাহ ঘটনার পর থেকেই পলাতক রয়েছেন। তাকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর