প্রত্যেক বাজেটই নির্বাচনী: অর্থমন্ত্রী

ঢাকা, মঙ্গলবার   ২১ মে ২০১৯,   জ্যৈষ্ঠ ৭ ১৪২৬,   ১৫ রমজান ১৪৪০

Best Electronics

প্রত্যেক বাজেটই নির্বাচনী: অর্থমন্ত্রী

 প্রকাশিত: ১৫:৪৬ ৮ জুন ২০১৮   আপডেট: ১২:৩২ ৯ জুন ২০১৮

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেছেন, আমার প্রত্যেক বাজেটই নির্বাচনী বাজেট। ‘নির্বাচনী বাজেট’ এমন সমালোচনার জবাবে তিনি একথা বলেন।

শুক্রবার বিকেলে রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে বাজেট পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে তিনি একথা বলেন।

অর্থমন্ত্রী বলেন, আমার প্রত্যেক বাজেটই নির্বাচনী বাজেট। আর তা তো হবেই। কারণ আমি একটি রাজনৈতিক দলের সদস্য। রাজনৈতিক দলের একজন সদস্য হিসেবে আমাকে জনগণকে খুশি করতে হয়।

এই বাজেট ‘গরীব মারার বাজেট’ কি-না- এমন প্রশ্নের জবাবে সাংবাদিকদের সমালোচনা করে অর্থমন্ত্রী পাল্টা প্রশ্ন করে জানতে চান দেশে দরিদ্র মানুষ বেড়েছে কি-না।

কেউ উত্তর না দিলে এক পর্যায়ে অর্থমন্ত্রী নিজেই উত্তর দিয়ে বলেন, ‘না, দেশে দরিদ্র মানুষ বাড়ছে না। এক সময় দেশে দরিদ্র মানুষের হার ছিল ৭০ শতাংশ। গত সাত বছর আগেও দেশে দরিদ্র মানুষের হার ছিল ৩০ শতাংশ। এখন দেশে দরিদ্র মানুষের হার ২২ দশমিক ৪ শতাংশ। সুতরাং এই বাজেট গরীব মারার বাজেট- এ কথা ঠিক না।’

বাজেটে করপোরেট ট্যাক্স হার কমানোর প্রস্তাব নিয়ে এক প্রশ্নের জবাবে মুহিত বলেন, ‘৪০ শতাংশের ওপর করপোরেট কর খুব কম দেশেই আছে। আমরাও সেটা নামিয়ে এনেছি।’

অনলাইনে কেনাবেচা সেবায় ৫ শতাংশ ভ্যাট আরোপ যথাযথ হয়েছে কি-না জানতে চাইলে অর্থমন্ত্রী বলেন, কেনাবেচার ওপরেই তো চার্জ বসানো হয়। অনলাইন কেনাবেচা এখন অনেক বেড়েছে। তাই চার্জ বসানো যেতেই পারে।

বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদে আগামী ২০১৮-১৯ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেট পেশ করেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। প্রস্তাবিত বাজেটে ৪ লাখ ৬৪ হাজার ৫৭৩ কোটি টাকা ব্যয়ের বিপরীতে মোট রাজস্ব আয় প্রাক্কলন করা হয়েছে ৩ লাখ ৩৯ হাজার ২৮০ কোটি টাকা, যা জিডিপির ১৩ দশমিক ৪ শতাংশ। এতে আয়-ব্যয়ের ঘাটতি দাঁড়াবে ১ লাখ ২৫ হাজার ২৯৩ কোটি টাকা, যা জিডিপির ৪ দশমিক ৯ শতাংশ।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমআরকে

Best Electronics